কখন খাবেন হাই ক্যালোরি খাবার? (High Calorie Food In Bengali)

কখন খাবেন হাই ক্যালোরি খাবার? (High Calorie Food In Bengali)

দিব্যি ছিপছিপে সুন্দর চেহারা ছিল প্রমিতার। সব পোশাকেই সুন্দর লাগত তাকে। বাধ সাধল ডেঙ্গু। পরপর দুবার এই রোগের কবলে পড়ে চেহারার দফারফা। এদিকে খাওয়াদাওয়া নিয়ে বরাবরের খুঁতখুঁতে প্রমিতা। কিছু খেলেই তার মনে হয় এই বুঝি ওজন বেড়ে গেল। কিন্তু তা বললে তো হবে না। শুধু অসুস্থতার জন্য নয়, অনেক সময় আমাদের এনার্জি স্তর হুস করে নেমে যায় বা ইমিউনিটি (Immunity) কমে যায়। তখন আমাদের হাই ক্যালোরি (Calorie) খাবার (Food) প্রয়োজন। সুতরাং অবশ্যই দেখে নিন এই হাই ক্যালোরি খাবার আপনার ডায়েটে কখন প্রয়োজন আর কীভাবে সেটাকে সাজাবেন। তবে একটা কথা মনে রাখবেন, আপনার চেহারা তথাকথিত ভাবে রোগা (Thin) বা মোটা (Fat) যাই হোক না কেন, আপনি সব সময়ই সুন্দর। বাকিরা কী বলল, তাতে মোটেও পাত্তা দেবেন না। প্রয়োজন হলে ডায়েটেশিয়ানের পরামর্শ নেবেন ব্যস! শুধু সুস্থ এবং ফিট থাকাটাই আসল কথা।


আরও পড়ুনঃ কিটো ডায়েটের উপকারিতা


হেলদি ডায়েট প্ল্যান (Healthy Diet Plan)


খুব সকালে (Morning Diet)


খেজুর, কিশমিশ, ছোলা, বাদাম, মুগ ভেজানো।


সকালের চা (Morning Tea)


চিনি ছাড়া চা (মধু দিতে পারেন সামান্য), মাখন বা চিজ দিয়ে বিস্কুট।


ব্রেকফাস্ট (Breakfast)


পাউরুটি (Bread) বা হাতে গড়া রুটি মাখন দিয়ে, সঙ্গে আলু বা ডিম সেদ্ধ। ফলের মধ্যে কলা এবং আপেল। সঙ্গে যেন অবশ্যই থাকে ছানা বা চিজ।


একটু বেলার দিকে (Before Lunch)


গ্লুকোজ বা মধু (Honey) দিয়ে ডাবের জল বা ফলের রস। সঙ্গে গোটা একটা ফল।


লাঞ্চ (Lunch)


ভাত, ডাল, আলুসহ সবজি, মাছ বা মাংস, ছানা বা পনির, রায়তা, ফলের স্যালাড ও দই।


বিকেলের জলখাবার (Evening Snacks)


রাঙা আলুর পায়েস, সুজি বা সিমাইয়ের পায়েস খই বা মুড়ি দিয়ে খেতে পারেন। তার সঙ্গে খাবেন কলা (Banana) বা ছানা।


ডিনার (Dinner)


মোটামুটি দুপুরে যা খেয়েছেন তাই।


calorie


মনে রাখবেন (Healthy Diet Guide)


উপরের ডায়েট চার্ট একটি নমুনা মাত্র। হতে পারে আপনার বিশেষ কোনও ফল বা সবজিতে (Vegetables) অ্যালার্জি আছে। সেটা আপনি এই তালিকা থেকে বাদ রাখবেন। তার পরিবর্তে কী খাবেন, সেটা জানতে হলে অবশ্যই ডাক্তার বা পুষ্টিবিদের সাহায্য নেবেন। কোনও বন্ধুর পরামর্শ বা ইন্টারনেটে অজানা সাইটের চেয়ে সেটাই বেশি দরকার।


একজন ডায়েটিশিয়ানই বলতে পারবেন আপনার শরীরে এই মুহূর্তে কোনটার খামতি আছে। সেটা ফ্যাট না কার্বোহাইড্রেট, সেটা আগে বুঝে নিন। মোদ্দা কথা হল হাই ক্যালোরি ডায়েট আপনার কেন প্রয়োজন বা কতদিন প্রয়োজন সেটা আগে বোঝা দরকার।


যদি আপনি হাই ক্যালোরি ডায়েটে (high calorie food) অভ্যস্ত না থাকেন, তা হলে একসঙ্গে বেশি করে না খেয়ে বারে-বারে অল্প করে খান।


অলিভ অয়েল (Olive Oil), রাইস ব্রান অয়েল, বাদাম, মাছ, মাংস, ডিম ও দুধে ফ্যাট আছে। এগুলো সব হাই ক্যালোরি ডায়েট (High Calorie Diet)।


হাই ক্যালোরি খাবার এর মধ্যে প্রোটিন সবচেয়ে দরকারি। কারণ, প্রোটিন হল মাসল বিল্ডিং ব্লক। যদিও অনেক সময় শুধু প্রোটিন ইনটেকে ঠিকমতো পেশি গঠন হয় না। তার জন্য যথাযথ এক্সারসাইজও দরকার। যাঁরা ওয়ার্ক আউট করেন তাঁরা ব্যায়াম শুরু করার আগে ও পরে অবশ্যই হেলদি স্ন্যাক্স খেয়ে নেবেন।


food


ছবি সৌজন্যঃ পেক্সেল ডট কম 


POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!