আপনার প্রেমিক কি ভিন্ন সংস্কৃতির? (do you have a boyfriend from a different culture?)

আপনার প্রেমিক কি ভিন্ন সংস্কৃতির? (do you have a boyfriend from a different culture?)

টু স্টেটস ছবিটা (cinema) মনে আছে আপনার? যেখানে উত্তরের প্রেমে মজেছিল দক্ষিণ। একই রকমের গল্প চেন্নাই এক্সপ্রেসেও। শুধু এই দুটো ছবির (cinema) কথা বলছি বটে, কিন্তু এরকম ছবি অনেক হয়েছে। আর শুধু উত্তর দক্ষিণ কেন? প্রেমের তো কোনও দিনই কোনও সীমারেখা মানেনা। তাই সেটা মাঝে মাঝে সাগরপার হয়ে চলে গেছে। আর তার সবচেয়ে বড় উদাহরণ এই মুহূর্তে অবশ্যই নিক আর প্রিয়াঙ্কার শুভ বিবাহ (marriage) । অর্থাৎ সিনেমায় যেমন হয় সেটা বাস্তবেও হয়। মানে প্রেমিক অনেক সময়ই হয় ভিন্ন (different) সংস্কৃতির (culture)। আপনার সঙ্গে যদি এরকম হয় তাহলে কী করবেন? কীভাবে সামলাবেন ক্রস কালচারাল সম্পর্ক? যারা ইতিমধ্যেই এরকম সম্পর্কে আছেন এবং যারা প্রেমে পড়ব পড়ব করছেন, ইন শর্ট আপনার প্রেমিক (boyfriend) যদি ভিন্ন সংস্কৃতির হয় তাহলে তাদের সবার জন্য রইল আমাদের কিছু টিপস।


ভাষা এমন কথা বলে...


deepveer


ইয়েস! অন্য সংস্কৃতির প্রেমিক বা তার বাড়ির লোকজনদের সঙ্গে সঠিক ভাবের আদান প্রদান করার ক্ষেত্রে প্রধান এবং প্রথম বাধা হয়ে দাঁড়ায় ভাষা। যদি দুজনেই হিন্দি বলতে জানেন বা ইংরিজিতে চোস্ত হন তাহলে তো কথাই নেই। কিন্তু যদি সেটা না হয় তাহলে ভারী মুশকিল। আপনি হয়তো মালায়ালি বলেন আর আপনার প্রেমিক স্প্যানিশ। অথবা আপনি বলেন পাঞ্জাবি আর আপনার প্রেমিক বলেন তামিল!তাহলে উপায় কি? চট করে অন্য ভাষা সেখা তো সহজ নয়। বরং হিন্দি বা ইংরিজির সাহায্য নিন আর ইন্টারনেটের সাহায্যে অন্য ভাষার দু একটা শব্দ শিখে নিন। আর প্রেমিককেও বলুন তাই করতে। সব দায় কি আপনার?


অন্য ধরনের খাবার


nickyanka asol


ভাষা আলাদা হলে খাবারও যে আলাদা হবে সেটা বলাই বাহুল্য। দক্ষিণের মানুষরা সাধারণত নিরামিষ খান। আবার উত্তর ভারতেও নিরামিষ চলে কিন্তু সেখানকার রান্না অনেক বেশি মশলাদার হয়। আবার আমেরিকান ও ব্রিটিশরা, এমনকী চিনে জাপানিরাও একদম অন্য রকমের খাবার খান। আপনার যদি খাওয়া নিয়ে কোনও ছুঁৎমার্গ না থাকে তাহলে অন্য ধরণের খাবার ট্রাই করে দেখুন। আর যদি ভালো না লাগে সেটা প্রেমিককে বুঝিয়ে বলুন।তবে কোনও পারিবারিক অনুষ্ঠানে মুখের উপর অপছন্দটা বলবেন না।মাঝে মাঝে নিজের দেশের রান্না প্রেমিককে রেঁধে খাওয়ান।


অন্য সংস্কৃতিকে সম্মান জানান


bips and karan


 


নানা ভাষা, নানা দেশ, নানা পরিধান... কিন্তু তারমধ্যে যেন মিলনের মধুরতা থাকে। অর্থাৎ অন্য সংস্কৃতির অনেক কিছুই আপনার ভালো না লাগতে পারে। তবে সেটাকে সম্মান জানান। প্রেমিককেও নিজের দেশের সংস্কৃতি সম্পর্কে মাঝে মাঝে বলুন।যেমন ধরুন বিদেশীদের রেওয়াজ আছে প্রেমিকার বাবা মার সঙ্গে প্রথমবার দেখা করতে গেলে এক বোতল ওয়াইন নিয়ে যাওয়া। আপনার মধ্যবিত্ত বাঙালি বাবা মা সেটা মেনে নাও নিতে পারেন। আপনাকে বুঝতে হবে এটা তাদের দেশের ধারা, এতে দোষের কিছু নেই।


ধৈর্য রাখুন


chennai xpress


ভাষা, সংস্কৃতি এবং অন্যান্য নানা বিষয়ে তফাৎ থাকার দরুন ভুল বোঝাবুঝি হতে পারে। তবে সেটা মিটিয়ে নেবেন। আপনাদের দুজনে দুটো আলাদা মানুষ, আপনাদের দেশ, ভাষা সব আলাদা। এটা ভুলবেন না! বরং আর বেশি করে অন্য সংস্কৃতির সঙ্গে জড়িয়ে পড়ুন। প্রেমিককে নিজের বাড়ির কোনও অনুষ্ঠানে বা বিয়েতে নিমন্ত্রণ করুন।


 POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!