কোন মুখে মানায় কেমন ভুরু (eyebrows according to shape of the face)

কোন মুখে মানায় কেমন ভুরু (eyebrows according to shape of the face)

প্রাচীন শাস্ত্রে যখনই নারীর রূপের বর্ণনা দেওয়া হয়েছে, বলা হয়েছে তার ধনুকের মতো ভুরু। আবার নায়িকাদের নানা ছলাকলা বোঝানোর ক্ষেত্রেও বলা হয় একই কথা। কী জ্বালা বলুন দেখি! ধনুকের আকার কীরকম হয় সেতো জানা আছে নিশ্চয়ই। এবার ভাবুন আপনার মুখের আকার কীরকম? এবার দুটোকে একবার মিলিয়ে দেখে বলুন দেখি সাহস করে, যে আদৌ ধনুকের মতো ভুরু আপনার মুখে মানায় কি? অ্যাঁ? কী বলছেন? আপনার মুখের আকার কীরকম আপনি জানেন না? তাই বলুন। এইবার সমস্যার গোড়ায় পৌঁছতে পেরেছি। সত্যিই তো, মুখের শেপ না জানা থাকলে ঠিকঠাক আইব্রো করবেন কী করে? এত কথা যখন বলছি, তখন নিশ্চয়ই বুঝতে পেরেছেন, যে সব রকম মুখে সব রকমের ভুরু একদমই খাপ খায় না। ধনুকের মতো ভুরু তো নয়ই!তাহলে এখন উপায় কী? উপায় একটাই প্রথমে আমরা জেনে নেব আমাদের মুখের আকার কীরকম আর এখন থেকে সেইমতোই রাখব আমাদের ভুরুর গঠন।তাহলেই বুঝতে পারব কোন মুখে মানায় কেমন ভুরু।  (eyebrows according to shape of the face)


ডিম্বাকৃতি মুখ (soft angled eyebrow for oval shaped face)


ovalshapealia


নাম শুনেই বুঝতে পারছেন এই ধরণের মুখের আকৃতি ডিমের মতো। অর্থাৎ উপরের দিকটা মানে কপালের কাছে চওড়া এবং থুতনির কাছে সরু। গোলাকার ভুরু এই মুখে একদম ভালো লাগবে না। এই ধরণের মুখে প্রয়োজন সফট অ্যাঙ্গল আইব্রো। অর্থাৎ ভুরু সামান্য উঠে খুব নরম করে নীচে নেমে যাবে।


পান পাতার মতো মুখ (rounded eyebrow for heart shaped face)


heart


deepika eyebrow


এটাও নাম শুনে দিব্যি বোঝা যাচ্ছে যে এই জাতীয় মুখের আকার পানের পাতার মতো। এখানেও কপালের দিকটা চওড়া হয় এবং থুতনির কাছে সরু হয়। কিন্তু এক্ষেত্রে গালের দিকটা একটু ছড়ানো হয়। অর্থাৎ এই জাতীয় মুখে চোয়াল একটু প্রকট হয়। এই জাতীয় মুখে ভালো লাগবে গোলাকার ভুরু। আপনার মুখ যদি পান পাতার মতো হয় এবং সেটা যদি বেশি ছড়ানো হয় তাহলে ভুরুতে বেশি আর্চ রাখবেন না। আপনার মুখের আকৃতি ছোট হলে তখন গোলাকার ভুরুতেও আর্চ রাখবেন। তাহলে মুখটা অতটাও ছোট লাগবে না।


লম্বা মুখ (straight eyebrow for long face)


long


লম্বা মুখে আমাদের এমন আইব্রো রাখতে হবে যাতে মুখ আর বেশি লম্বা না দেখায়। আর তার জন্য এই জাতীয় মুখে ভুরু হবে সোজা। লম্বা মুখে হরাইজনটাল বা সমান্তরাল ভুরু হলে মুখের দৈর্ঘ্য কম লাগবে।


গোল মুখ (highly angular eyebrow for circular face)


round


sonakshi


মুখ যখন গোলাকার তখন সেই মুখেই আবার গোলাকার ভুরু নৈব নৈব চ! তাহলে কিন্তু আরও গোল দেখাবে আপনার মুখ। তাই যাদের মুখ গোলাকৃতি তারা অবশ্যই একটু বেশি মাত্রায় আর্চ করা অ্যাঙ্গুলার আইব্রো রাখবেন।ভুরু যদি সোজা উপরে উঠে আবার নীচে নেমে যায় তাহলে চোখের মুভমেন্টও উপরে উঠবে আর নামবে ফলস্বরূপ মুখ গোল দেখাবে না। দেখবেন প্লাকিং করানোর সময় ভুরুর যে বেন্ড অর্থাৎ যেখান থেকে ভুরু নীচে নামছে সেই জায়গাটা যেন গোলাকার না হয়।


চৌকো মুখ (slightly angular eyebrow for square face)


square


kareena eyebrow


চৌকো মুখে চোয়ালের রেখা খুব শক্তিশালী হয়। তাই এমন ভুরু রাখবেন যেটাতে সামান্য উঠে থাকবে কিন্তু নরম করে নীচে নেমে আসবে।এতে চোয়াল অতটাও প্রকট লাগবে না।


ষড়ভুজের মতো মুখ (softly angular eyebrow for hexagonal face)


diamond


malaika


 


এই জাতীয় মুখ ছড়ানো হয় এবং অনেকগুলো কোণ থাকে। তাই এমন ভুরু রাখবেন যাতে ভুরুর কোণ নরম হয় এবং যেখানে আপনার মুখ বেশি চ্যাটালো সেখানে ভুরুর দৈর্ঘ্য বেশি রাখবেন।    


ছবি সৌজন্যঃ ফেসবুক, পিনটারেস্ট     


POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!