রাজস্থানের হেঁশেল থেকে (Flavours of Rajasthan)

রাজস্থানের হেঁশেল থেকে (Flavours of Rajasthan)

রাজস্থান বলতেই মনে পড়ে সুন্দর সব কেল্লা, ধুধু মরুভূমি, অপূর্ব কালবেলিয়া নৃত্য আর অবশ্যই জিভে জল আনা কিছু পদ।সম্প্রতি রাজস্থানের সেই সব সুস্বাদু পদ নিয়ে হাজির হয়েছিল কলকাতার (Kolkata) রাজারহাটের (Rajarhat) ওয়েস্টিন হোটেল। সেখানকার রাজস্থানি ফুড ফেস্টিভ্যালে ছিল ডাল-বাটি চুরমা (Dal Bati Churma), কের সাংরির (Ker Sangri) মতো কিছু এক্সক্লুসিভ রান্না।কলকাতার (Kolkata) রাজারহাটের (Rajarhat) ওয়েস্টিনের (Westin) শেফ পঙ্কজ নানা এবং অনুরাগ সিংহ শেয়ার করলেন রাজস্থানের হেঁশেল থেকে (Flavours of Rajasthan) কিছু অন্য স্বাদের রান্না।   


 


ডাল বাটি চুরমা (Dal Bati Churma)


Daal Baati Churma


উপকরণঃ ময়দা ২০০ গ্রাম, সুজি ১০০ গ্রাম, ঘি, জোয়ান ৫০ গ্রাম, নুন আন্দাজমতো, চুরমার জন্য গুড় ১০০ গ্রাম


ডালের জন্য


সবুজ মুগ ডাল ৭৫ গ্রাম, কালো ডাল ৭৫ গ্রাম, চানা ডাল ৭৫ গ্রাম, মিহি করে কাটা পেঁয়াজ (১০০ গ্রাম), টম্যাটো (১০০ গ্রাম), আদা (৫ গ্রাম) ও রসুন (১০ গ্রাম), কাঁচা লঙ্কা,হলুদ গুঁড়ো ১ চা চামচ, ধনেপাতা কুচনো আন্দাজমতো


তড়কার জন্য


ঘি আন্দাজমতো, জিরা পাউডার ১ চা চামচ, শুকনো লঙ্কা ২ টো   


 


প্রণালীঃ


প্রথমে বাটি তৈরি করতে হবে।সব রকম উপাদান দিয়ে (গুড় ছাড়া) ঠেসে ময়দা মাখুন।ময়দা মাখা ২০ মিনিট রেখে দিন। এতে বেকিং পাউডার দিন যাতে ফোলাভাব আসে।আরও একটু ময়দা ঠেসে দিন।এবার ১২ থেকে ১৫টা বড় আকারের লেচি করুন। আভেন ১৮০ ডিগ্রিতে দিয়ে বাটিগুলো বেক করুন। ২০ থেকে ৩০ মিনিট রাখবেন যতক্ষণ না বাটির দুপিঠ খয়েরি হয়ে যায়।বাটির রঙ সোনালি হলে আভেন বন্ধ করুন। বাটির মাথাগুলো ভেঙে তাতে অল্প করে গুড় দিন।এবার প্রেসার কুকারে ডাল তৈরি করুন।তড়কার জন্য পাত্রে ঘি গরম করে তাতে জিরে আর শুকনো লঙ্কা দিন।সুন্দর গন্ধ বেরোলে আঁচ বন্ধ করে দিন। আর তড়কা ডালের উপর ছড়িয়ে দিন।বাটির উপরে অল্প ঘি ছড়িয়ে ডাল সহ পরিবেশন করুন।


কের সাংরি (Ker Sangri)


Ker Sangri


মরুভুমির শুকনো বেরি বা কের ১০০ গ্রাম, মরুভূমির শুকনো বিন বা সাংরি ২০০ গ্রাম, দই ৫০ গ্রাম, রান্নার তেল ৩০ এমএল, শুকনো লঙ্কা ৫-৬ টা, রসুন বাটা ৫ গ্রাম, পেঁয়াজ কুচি ১০০ গ্রাম, টম্যাটো কুচি ২০০ গ্রাম, হলুদ গুঁড়ো ২ গ্রাম, লঙ্কা গুঁড়ো ৫ গ্রাম, ধনে গুঁড়ো ৫ গ্রাম, জিরে বাটা ৫ গ্রাম, আদা বাটা ৫ গ্রাম, ধনে গুঁড়ো ৫ গ্রাম, নুন আন্দাজমতো, আমচুর পাউডার ৫ গ্রাম, ধনেপাতা কুচি, রসুন কুচি ১৫ গ্রাম                 


 


প্রণালীঃ


ফেটানো দইতে বেরি আর বিন সারারাত ভিজিয়ে রাখুন। পরের দিন দই থেকে তুলে জলে ধুয়ে নিন। নুন আর হলুদ দিয়ে এই বেরি আর বিন ২০ থেকে ৩০ মিনিট সেদ্ধ করুন। কড়াইতে তেল গরম করে সব মশলা দিয়ে নাড়ুন। মশলা থেকে জল বেরোলে টম্যাটো দিন। টম্যাটোগুলো ঘাঁটা ঘাঁটা হয়ে গেলে কের আর সাংরি অর্থাৎ বেরি আর বিনস ওর মধ্যে দিয়ে দিন। এবার আরও একটু দই দিয়ে নাড়তে থাকুন। নুন আর আমচুর উপরে ছড়িয়ে দিন। ধনেপাতা কুচি ও রসুন কুচি দিয়ে সাজিয়ে পরিবেশন করুন। 


রেসিপি সৌজন্যঃ ওয়েস্টিন, রাজারহাট


POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!