বাস্তুশাস্ত্র (vastu tips)মতে বাড়ির প্রতিটি জিনিস আমাদের প্রভাবিত করে। | POPxo

কোন ফার্নিচার কোথায় রাখা উচিত? (Vastu tips to organize furniture)

কোন ফার্নিচার কোথায় রাখা উচিত? (Vastu tips to organize furniture)

বাস্তুশাস্ত্র মতে আমাদের আশেপাশে থাকা প্রতিটি জিনিসই নানাভাবে আমাদের প্রভাবিত করে থাকে। কারণ প্রত্যেকটি জড় বস্তুই হয় পজেটিভ, নয়তো নেগেটিভ শক্তির জন্ম দিয়ে থাকে। আর কোনও কারণে যদি আমাদের চারিপাশে নেগেটিভ শক্তির মাত্রা বেড়ে যায়, তাহলেই কিন্তু বিপদ! কারণ সেক্ষেত্রে একের পর এক খারাপ ঘটনা ঘটার আশঙ্কা যায় বেড়ে। বিশেষত, বাস্তু দোষ দেখা দেওয়ার কারণে হঠাৎ করে কোনও দুর্ঘটনা ঘটার আশঙ্কা যেমন থাকে, তেমনি অর্থনৈতিক ক্ষতি হওয়ার আশঙ্কাও বৃদ্ধি পায়। তাই তো আজকের দিনে বাস্তুশাস্ত্র মেনে বাড়ি বানানোর পরামর্শ যেমন দেওয়া হয়ে থাকে, তেমনি যে কোনও জিনিস বাড়িতে নিয়ে আসার পরে তা ঠিক কোন জায়গায় রাখা উচিত, সে সম্পর্কেও জেনে নেওয়ার প্রয়োজন রয়েছে। যেমন ফার্নিচারের কথাই ধরো না। আমরা প্রত্যেকেই প্রায় নানা ধরনের আসবাবপত্র ব্যবহার করে থাকি। কিন্তু জানা আছে কি বাড়ির কোন জায়গায় কোন ফার্নিচারটি রাখা উচিত?


১. বাড়ির পশ্চিম এবং দক্ষিণ দিক:


furniture-west-facing


বাস্তুশাস্ত্র অনুসারে যে কোনও ফার্নিচার রাখার আদর্শ জায়গা হল বাড়ির পশ্চিম এবং দক্ষিণ দিক। কারণ এই নিয়মটি মেনে চললে নাকি বাস্তু দোষ দেখা দেওয়ার আশঙ্কা প্রায় থাকে না বললেই চলে।


২. ফার্নিচারের ধরন:


furnitute-type


শুনতে হয়তো আজব লাগতে পারে। কিন্তু বাস্তুশাস্ত্র অনুসারে বাড়িতে ভুলেও ডিম্বাকার, তেকোনা অথবা গোল আকারের কোনও আসবাবপত্র রাখা উচিত নয়। বরং এমন ফার্নিচার কিনতে হবে, যা হবে বর্গক্ষেত্রকার, নয়তো আয়তক্ষেত্রকার।


৩. ফাঁক থাকাটা জরুরি:


furniture-gap


ভুলেও কোন ফার্নিচার দেওয়ালে সাঁটিয়ে রাখা উচিত নয়। বরং দেওয়াল থেকে কম করে ৩ ইঞ্চি দূরে রাখতে হবে প্রতিটি আসবাবপত্র। আসলে এমনটা বিশ্বাস করা হয় যে এই নিয়মটি মেনে চললে সারা বাড়িতে পজেটিভ শক্তির প্রবাহ ঠিক মতো হতে পারে। ফলে কোনও ধরনের বিপদ ঘটার আশঙ্কা প্রায় থাকে না বললেই চলে।


৪. বিছানা রাখার নিয়ম:


furniture-bed


শোয়ার ঘরের বিছনাটা কি দক্ষিণ-পশ্চিম দিকে রেখেছো? এমনটা করে থাকলে আর চিন্তা নেই! কারণ বিশেষজ্ঞদের মতে এই নির্দিষ্ট দিকে যদি বিছানা রাখা যায়, তাহলে নাকি বৈবাহিক জীবনে সুখ-শান্তি বজায় থাকে। সেই সঙ্গে কোনও ধরনের ঝামেলা বা কলহ মাথা চাড়া দিয়ে ওঠার আশঙ্কা যেমন কমে, তেমনি পরিবারে সুখ-শান্তি বজায় থাকে।


৫. ডাইনিং টেবিল:


furniture-dining-table


বাস্তুশাস্ত্র বড়ই আজব এক দুনিয়া। কারণ এর গভীরে যত প্রবেশ করা হয়, ততই আশ্চর্য হতে হয়। কারণ বেশ কিছু বাস্তু নিয়ম আপাত দৃষ্টিতে উদ্ভট বলে মনে হলেও আদতে কিন্তু দারুন কার্যকরী। যেমন খাবার টেবিল রাখার নিয়মটির কথাই ধরো না। প্রাচীন এই শাস্ত্র মতে বাড়ির উত্তর-পশ্চিম দিকে খাবার টেবিল রাখলে নাকি জীবনে কখনও খাবারের অভাব হয় না, এমনটাই বিশ্বাস বিশেষজ্ঞদের। সেই সঙ্গে যে কোনও ধরনের টাকা-পয়সা সংক্রান্ত ঝামেলাও মিটে যায়।


৬. স্টাডি টেবিল:


furniture-study-table


ছাত্র-ছাত্রীরা যদি পরীক্ষায় ভালো ফল করতে চাও, তাহলে পড়ার টেবিলটা রাখতে হবে হয় উত্তর দিকে, নয়তো পূর্ব দিকে মুখ করে করে।


৭. টেলিভিশন সেট রাখার নিয়ম:


furniture-tv


বাস্তুশাস্ত্র মতে বাড়ির লিভিং রুমের দক্ষিণ-পূর্ব দিকে, নয়তো উত্তর দিকে রাখতে হবে টিভি সেটটা। আর যদি এমনটা করার সুযোগ না থাকে, তাহলে পূর্ব দিকে মুখ করেও রাখা যেতে পারে।


POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!