শারীরিক মিলনের কারণে যেন ক্ষতি না হয় শরীরের! (3 Reasons Why You Must Pee After Sex)

শারীরিক মিলনের কারণে যেন ক্ষতি না হয় শরীরের! (3 Reasons Why You Must Pee After Sex)

জড়িয়ে-জাপটে ভালোবাসার পর বিছানা ছেড়ে উঠতে কারই বা ভালো লাগে বলো! কিন্তু শরীরের কথা ভেবে যে একবার উঠতেই হবে, আর প্রস্রাব যে করতেই হবে। না হলে যে শরীরে ক্ষতি (3 Reasons Why You Must Pee After Sex)!


সেক্সের (sex) পর ইউরিন পাস (pee) না করলে শরীরের ক্ষতি হয়? একেবারেই! আসলে ২০১৫ সালে হওয়া একটি স্টাডিতে দেখা গেছে শারীরিক মিলনের সময় ছেলেদের শরীর থেকে বেশ কিছু ক্ষতিকর জীবাণু মেয়েদের শরীরে গিয়ে পৌঁছায়। আর সেই সব ব্যাকটেরিয়া খুব সহজেই মহিলাদের ইউরেথার বা মূত্রনালীতে প্রবেশ করে নানান সব জটিল সংক্রমণে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কাকে বাড়িয়ে তোলে। এই কারণেই তো প্রতিবার সেক্সের পর প্রস্রাব করার পরামর্শ দিয়ে থাকেন চিকিৎসকেরা (Why You Should Pee After Sex)। কারণ এমন অভ্যাস করলে কোনও ধরনের শরীরিক ক্ষতি হওয়ার আশঙ্কা প্রায় থাকে না বললেই চলে।


এত দূর পড়ার পরেও কি ধোঁয়াশা কাটছে না, তাহলে বাকি প্রবন্ধে চোখ রাখতে ভুলো না যেন!


১. সেক্স=জীবাণু=সংক্রমণ:


sex-bacteria
এনসিবিআই (NCBI)-এর ওয়েবসাইটে প্রকাশিত একটি গবেষণা পত্র অনুসারে ইন্টারকোর্স করার সময় পেনিস, হাতের আঙুল এবং মুখের মাধ্যমে হাজারো রকমের জীবাণু মেয়েদের শরীরে প্রবেশ করে। আর এই সব ক্ষতিকর ব্যাকটেরিয়া কারও শরীরে ঘর বাঁধার পর যে চুপ করে বসে থাকে না, তা তো বলাই বাহুল্য। বরং এরা খুব কম সময়ে মূত্রনালী হয়ে পৌঁছে যায় ব্লাডারে। আর শরীরের এই বিশেষ অংশে জীবাণুদের প্রবেশ ঘটা মাত্র দেখা দেয় মারাত্মক সংক্রমণ। এই কারণেই তো ভ্যাজাইনাল সেক্স করার পর যদি অ্যানাল সেক্স করার ইচ্ছা থাকে, তাহলে কন্ডোম চেঞ্জ করে নেওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়। তবে এক্ষেত্রে একটা জিনিস মাথায় রাখা জরুরি যে প্রতিবার সেক্স করার সময়ই যে ব্যাকটেরিয়ার প্রবেশ ঘটে, এমন নয়। তবে প্রয়োজনীয় সাবধানতা না নিলে যে কোনও সময়ে কোনও রোগের খপ্পরে পড়ে যাওয়ার আশঙ্কা যে বাড়ে, তা কি আর বলার অপেক্ষা রাখে (Pee After Sex)!


২. ইউরিনারি ট্র্যাক্ট ইনফেকশনে আক্রান্ত হওয়ার ভয় থাকে:


sex-uti
 ছেলেদের শরীরে অনেক সময়ই এমন কিছু ব্যাকটেরিয়া এসে ভিড় জমায়, যা একবার মেয়েদের শরীরে প্রবেশ করলেই "ইউটিআই" এর মতো রোগে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা যায় বেড়ে। কিন্তু সেক্সের পর পর যদি প্রস্রাব করার অভ্যাস করা যায়, তাহলে কিন্তু ইউরিনারি ট্র্যাক্ট ইনফেকশনে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা প্রায় থাকে না বললেই চলে।


এই ধরনের সংক্রমণ হলে সাধারণত প্রস্রাবের সময় জ্বালা করা, বারে বারে প্রস্রাব চাপা,তলপেটে ব্যথা, অল্পতেই ক্লান্ত লাগা এবং বারে বারে জ্বর আসার মতো লক্ষণগুলির বহিঃপ্রকাশ ঘটে থাকে। এক্ষেত্রে যত শীঘ্র সম্ভব চিকিৎসা শুরু করার প্রয়োজন রয়েছে। কারণ সংক্রমণ যদি একবার কিডনিতে পৌঁছে যায়, তাহলে কিন্তু আরও বিপদ!


৩. শারীরিক মিলনের পরে ৩০ মিনিটের মধ্যে ইউরিন পাস করা মাস্ট:


ex-urine
সেক্সের পর পরই দৌড়ে গিয়ে প্রস্রাব করার কোনও প্রয়োজন নেই। কিন্তু বেশি দেরি করলে কিন্তু চলবে না! বরং ৩০ মিনিটের মধ্যে ইউরিন পাস করতেই হবে। কারণ এমনটা করলে শরীরে প্রবেশ করা জীবাণুরা চটজলদি আবার শরীর থেকে বেরিয়ে যায়। ফলে ইউরিনারি ট্র্যাক্ট ব্যাকটেরিয়ার সংখ্যা বৃদ্ধি পাওয়ার আশঙ্কা প্রায় থাকে না বললেই চলে। আর এমনটা হলে সংক্রমণের আশঙ্কাও যে কমে, তা তো বলাই বাহুল্য! আশা করি এতক্ষণে নিশ্চয় সব ধোঁয়াশা কেটেছে!


POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!


এগুলোও আপনি পড়তে পারেন


সেরা ৫ টি Sex Position


Sex-এর সময় মহিলারা যে ভুল গুলো অজান্তেই করে থাকেন


সেক্সের ব্যাপারে পুরুষদের এই ৭টি ফ্যান্টাসি