সবার জন্য মনের মতো বই (Books for Everyone)

সবার জন্য মনের মতো বই (Books for Everyone)

প্রতি বছর জানুয়ারি মাসের শেষ হলেই মন কেমনের পালা শুরু। বইমেলা কবে যাব? দেখতে দেখতে এই বছরেও শুরু হয়ে গেল বইমেলা। এ বছরের থিম গুয়াতেমালা (Guatemala)। যারা বই (books) পড়তে ভালোবাসেন তারা বই (books) উপহার (gift) দিতেও ভালোবাসেন।কিন্তু আমাদের প্রত্যেকের যেমন খাবারের রুচি আলাদা, ঠিক তেমনই আমাদের বই (books) পড়াও একেক জনের ক্ষেত্রে একেক রকম। কেউ ভালোবাসেন থ্রিলার পড়তে, কেউ পছন্দ করেন রোম্যান্টিক নভেল আবার কেউ কবিতার বই সংগ্রহ করেন। বইমেলার আনন্দ আর নস্টালজিয়াকে আরও একটু উস্কে দিতে আমরা নিয়ে এসেছি একটা ছোট্ট তালিকা। সবার জন্য বই উপহার দেওয়ার একটা গাইডলাইন। যে বই হবে সবার মনের মতো (Books for Everyone)। বই পড়ুন, বই উপহার দিন। বইমেলা সার্থক হোক।কিনে নিয়ে যান সবার জন্য মনের মতো বই।  


notun boi 4


বাবাকে উপহার দিতে হলে


notun boi 2


বাবারা সবাই যদিও গুরুগম্ভীর প্রকৃতির হন না, তবু তাদের জন্য সেরা বইয়ের তালিকায় অবশ্যই থাকবে জন রনসনের লেখা ‘সো ইউ হ্যাভ বিন পাবলিকলি শেমড’ বইটি। হাই প্রোফাইল পাবলিক শেমিং-এর বইটি আপনার বাবার নিশ্চয়ই ভালো লাগবে। তাছাড়াও চিরন্তন রবীন্দ্র রচনাবলী এবং তারাশঙ্কর বন্দ্যোপাধ্যায়ের ছোট গল্পের সংকলনও বাবাকে উপহার দিতে পারেন।বাবারা পছন্দ করেন থ্রিলারের সঙ্গে মজা। তাই ডন ক্যামিলোর কালেকশানও তালিকায় রাখা যায় অনায়াসে।


notun boi 5


মাকে উপহার দিতে হলে


notun boi 1


মা বলতেই প্রথমে মনে পড়ে মায়ের হাতের রান্না।তাই বেলা দের লেখা ‘সহস্র এক রান্না’ বা লীলা মজুমদারের লেখা ‘রান্নার বই’ ভালো চয়েস হতে পারে। আপনার মার যদি বাগান করার শখ থাকে তাহলে অবশ্যই তাকে গার্ডেনিং-এর উপর কোনও বই দিতে পারেন।তবে আপনার মা যদি ঐতিহাসিক ফিকশান পড়তে বেশি পছন্দ করেন তাহলে সেরার সেরা বইটি হবে ক্রিস্টিন হ্যানার লেখা ‘দা গ্রেট অ্যালোন’ বইটি। ১৯৪৭ সালের পটভূমিকায় লেখা ‘দা গ্রেট অ্যালোন’ হল বাবা, মা ও এক মেয়ের আলাস্কা যাত্রার কাহিনি। এই বই আপনার মা পছন্দ না করে পারবেন না। আশাপূর্ণা দেবীর ছোট গল্পের সংকলন এবং ডেবোরা রডরিগুয়েজের লেখা ‘দা লিটল’ কফি শপ অফ কাবুল’ ও মাকে উপহার দেওয়ার জন্য আদর্শ।


notun boi 6


প্রেমিক/ প্রেমিকাকে উপহার দিতে হলে


notun boi 7


ফেব্রুয়ারি শুধু বইমেলা নিয়ে আসে না। নিয়ে আসে ভালোবাসার দিন অর্থাৎ ভ্যালেন্টাইনস ডে। তাই আপনার মনের মানুষটিকে উপহার দিন প্রেমের গল্পের সংকলন। প্রেমের কবিতার বইও ভালো উপহার হতে পারে। ভাস্কর চক্রবর্তী বা শক্তি চট্টোপাধ্যায়ের কবিতার বই ভালো উপহার হতে পারে।যদি আপনার প্রেমিক বা প্রেমিকা ঈষৎ হলেও প্রতিবাদী স্বভাবের হয় তাহলে তার জন্য সেরা চয়েস হবে মায়া অ্যাঞ্জেলুর ‘ফেনোমেনাল উওম্যান’ বা ফেদরিকো গারসিয়া লোরকার লেখা ‘দা জিপসি ব্যালেড’ বইটি।কবিতার কথা উঠলে গুলজার সাহেবের কবিতার কথা উঠতে বাধ্য। তাই গুলজারের কবিতার বইও আরও উষ্ণ করে তুলবে আপনাদের সম্পর্ক।


 


শিক্ষক/শিক্ষিকাকে উপহার দিতে হলে


notun boi 3


 


আপনার জীবনে কি বিশেষ কোনও শিক্ষক/শিক্ষিকার গভীর প্রভাব আছে? তাহলে আর দেরি না করে তাকে উপহার দিন স্টিফেন হকিংসের লেখা ‘চ্যালেঞ্জ টু ইম্পসিবল’ বইটি। আপনার মনে আত্মবিশ্বাস জাগিয়ে আপনাকে সমাজের উপযোগী করেছেন তিনি। তাই এই বই তিনি খুশি মনে গ্রহণ করবেন। কিছু না বলেই শুধু বিনম্র ধন্যবাদ জানাতে হলে বইয়ের চেয়ে সেরা উপহার আর হয় না। পুরনো কলকাতার উপর গবেষণামূলক কোনও বইও শিক্ষকের হাতে তুলে দিতে পারেন।


বাড়ির খুদে সদস্যদের জন্য


charlie


ছোটদের বই পড়ার অভ্যেস তৈরি করাটা খুব দরকার। তাই ছোটদের দিন রূপকথার বই। গ্রিম ভাইদের লেখা অমর রূপকথা, ঠাকুরমার ঝুলি বা রোয়াল্ড ডালের যে কোনও বই ছোট সদস্যর হাতে তুলে দিন। তাছাড়া চির পরিচিত ফেলুদা, টেনিদা আর ঘনাদা তো আছেনই। সত্যজিৎ রায়ের ছোট গল্প এবং শঙ্কুও ছোটদের পছন্দ হবেই।     


কৃতজ্ঞতা স্বীকারঃ দোসর, রতনতনু ঘাটি এবং ধানসিঁড়ি


POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!