মুছে দিন Monday Blues

মুছে দিন Monday Blues

শুক্রবার (Friday) এলেই যে কোনও চাকুরীজীবী লোক বল্লে বল্লে নেচে ওঠে। চোখ বার বার ঘড়ির কাঁটার দিকে চলে যায়। মনে হয় এইতো আর মাত্র কয়েক ঘণ্টা আর তারপরেই ছুটি-ই-ই! তবে কী জানেন তো দুঃসময় যেমন কাটতেই চায় না, ঠিক সেরকমই ভালো সময় হুস করে শেষ হয়ে যায়। শুক্রবারে (Friday) যেমন ঘড়ির কাঁটা আর চলতেই চায় না। আর রবিবার দেখুন! এই সকাল হল। আপনি আড়মোড়া ভেঙে উঠলেন কী উঠলেন না বিকেল হয়ে গেল আর তারপরেই দুম করে গভীর রাত। আর তার পরে? ওরে বাবা! সে কথা তো ভাবতেই ভয় করে। তারপরেই আসবে সেই ভয়ানক সোমবার (Monday)। চোখে সর্ষেফুল দেখার মতো অবস্থা! আচ্ছা সর্ষেফুল কি নীল (Blue) হয়? উঁহু। সর্ষের ফুল তো জানি হলুদ হয়। তাহলে এই যে যারা চাকরি করেন তাদের এই যে জ্বালা যন্ত্রণা, এটাকে মনডে ব্লুজ (Monday Blues) কেন বলে? আমার মনে হয় বিষের মতো বিষাক্ত এই দিন। ধুস! অফিস যেতে ইচ্ছে হয় না। মনে হয় বিছানায় শুয়ে একটু গড়িয়ে নিই। অমন বিষাক্ত দিন নীলই (Blue) তো হবে। সে বাপু নীল (Blue) হোক আর লাল। প্রতি সোমবার (Monday) অমন হাঁড়িপানা মুখ করে আপিস গেলে চাকরি যে আর থাকবেনা বস! আবোলতাবোল চিন্তা না করে বরং এই মনডে ব্লুজ (Monday Blues) মুছে দিন মন থেকে।কীভাবে? জাস্ট এইভাবে...


ফেভারিট লাঞ্চ


monday kriti


অন্যদিন সাপ ব্যাং যা খুশি খান। কিন্তু সোমবার অফিসে সেটাই নিয়ে যান যেটা খেতে আপনি সবচেয়ে ভালোবাসেন। যদি বাড়িতে তৈরি করা সম্ভব না হয় তাহলে কিনে খান। কিন্তু সেটাই খান যেটা দেখলে আপনার আনন্দে ধেই ধেই করে নাচতে ইচ্ছে করে। এই যেমন ধরুন বিরিয়ানি বা পিৎজা।


মনপসন্দ গানা


favourite songs


ইয়েস! খানা যদি মনপসন্দ হয় তাহলে গানবাজনাও মনের মতো হয়ে যাক। শুনলেই একদম আনন্দে আত্মহারা হয়ে প্রাণ খুলে নাচতে ইচ্ছে করে এমন গান শুনতে শুনতে অফিসে যান। খুব সিরিয়াস কাজ না হলে হাল্কা করে গান চালিয়ে কানে ইয়ারফোন গুঁজে কাজ করুন। যেটা আপনার শুনতে ভালো লাগে সেটাই শুনবেন। গানের তাল, ছন্দ বা কথা সব আপনাকে একদম চার্জড আপ রাখবে। ওই নীল সোমবার না কী যেন মাথাতেই আসবে না।


আজ বিকেলে এস্পেশ্যাল


monday enjoying


সোমবার বিকেলে অফিস ফেরতা অন্য কিছু করুন। ধরুন রোজ আপনি মেট্রোয় ফেরেন, আজ বাসে ফিরুন। বা প্রতিদিন বাসের ভিরে চিঁড়েচ্যাপটা হয়ে যান। আজ একটু বিলাসিতা করে ট্যাক্সি নিয়ে নিন। সাত তাড়াতাড়ি যদি বাড়ি ফেরার কোনও প্রয়োজন না থাকে তাহলে কাছাকাছি কোনও বন্ধুর বাড়ি/অফিসে চলে যান। ঘণ্টা খানেক আড্ডা দিয়ে তারপর বাড়ির যান।চাইলে বাড়ি ফেরার আগে জিমেও যেতে পারেন। বাড়ির লোকজন কী খেতে ভালোবাসে? আলুরচপ? আইসক্রিম? ঝালমুড়ি? পাড়ার মোড় থেকে কিনে নিয়ে যান। তারপর সবাই মিলে দেদার আড্ডা দিতে দিতে মুড়িমাখা বা আলুকাবলি খান। দেখবেন মনডে ব্লু নয় অনেক রঙিন হয়ে গেছে।


প্র্যাকটিকাল সাজেশান


monday thinking


প্রতি সোমবার এক সমস্যা হচ্ছে? তাহলে সমস্যা সোমবারে নয় আপনার মধ্যে আছে। কেন এমন হচ্ছে? উত্তর খুঁজুন।


শুক্রবার এলে বেশি আহ্লাদ করা বন্ধ করুন। শুক্রবারেই সোমবারের জন্য মানসিক প্রস্তুতি নিন।


কাজের প্ল্যানিং করে নিন যাতে তাড়াতাড়ি সব কাজ শেষ করে বাড়ি যেতে পারেন।


POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!