সুন্দর হয়ে উঠুক ননদ-বৌদির (nanad-bhabi) সম্পর্ক (relation)

সুন্দর হয়ে উঠুক ননদ-বৌদির (nanad-bhabi) সম্পর্ক (relation)

বিয়েটা একটা জার্নি। আর সেখানে তো চরাই-উতরাই থাকবেই। নতুন সংসার-নতুন পরিবারে এসে অ্যাডজাস্ট করাও মাঝেমধ্যে খুবই কঠিন হয়ে দাঁড়ায়। আসলে একটা পরিবেশে বড় হয়ে ওঠার পরে সম্পূর্ণ নতুন একটা পরিবেশে গিয়ে মানিয়ে ওঠা একটা মেয়ের কাছে বেশ টেনশনের। কারণ নতুন পরিবারের কে কী রকম হবে, সেটা নিয়ে বিয়ের আগে থেকেই একটা চিন্তা থেকেই যায়। তাই বিয়ের আগে থেকে হবু শ্বশুরবাড়ির মানুষগুলোকে (in-laws) একটু হলেও চিনে-জেনে নেওয়া ভাল। তাতে একটা বন্ডিংও (bonding) তৈরি হয়ে যাবে। আর আপনার শ্বশুরবাড়িতে (in-laws) আপনার হবু বরের ছোট বোন বা দিদি (nanad) থাকে, তা হলে তো কথাই নেই! আর সে আপনার বয়সি হলে তো আরও ভাল! তার সঙ্গে সুন্দর সম্পর্ক গড়ে তুলুন। তাই ননদিনির (nanad) সঙ্গে আপনি যাতে সুন্দর সম্পর্ক (relation) তৈরি করতে পারেন, তার জন্য আমরা অবশ্য হেল্প করতে পারি। এই যেমন ধরুন-


বিয়ের আগে থেকেই


বিয়ের কথাবার্তা পাকা হয়ে গিয়েছে। এখনও হাতে খানিকটা সময় আছে। সেই সময়টাতেই বন্ডিং (bonding) তৈরি হোক আপনার ও আপনার ননদের (nanad) মধ্যে। দেখবেন, আপনাদের মধ্যে অনেক কিছুই কমন রয়েছে। ফলে খুব শিগিগিরিই আপনাদের মধ্য একটা বন্ধুত্বের সম্পর্ক (relation) গড়ে উঠবে! আর ননদ-বৌদির (nanad-bhabi) সম্পর্ক থেকে কখন যে আপনার দিদি-বোন হয়ে উঠেছেন, বুঝতেই পারবেন না।


নতুন পরিবারকে জানুন


ননদের (nanad) সঙ্গে কথা বলে জানুন আপনার নতুন পরিবারকে। কারণ আপনার বর অনেক সময় পরিবার নিয়ে বেশি কিছু আপনাকে হয়তো বলে উঠতে পারবেন না। সে ক্ষেত্রে ননদ কিন্তু আপনাকে অনেক কিছু বলতে পারবে। আর আপনি ওদের পরিবারকে জানার চেষ্টা করছেন দেখে আপনার ননদও খুশি হবে।


nanad-bhabi-crazy-selfie


শপিং পার্টনার


শপিং করতে কোন মেয়েই না ভালবাসে! তো নিশ্চয়ই বোনের সঙ্গে মাঝেমধ্যে শপিংয়ে যান। বিয়ে ঠিক হয়ে যাওয়ার পরে শপিং ডেটে ডেকে নিন ননদকেও। আর বিয়ের পরে তো কথাই নেই! বাড়িতেই আপনার শপিং পার্টনার (nanad-bhabi)। যখন খুশি বেরিয়ে পড়ুন আর শাশুড়ি বকুনি দিলেও ডোন্ট কেয়ার!


soha-kareena-nanad-bhabi


গার্লি ডেট


শুধু শপিং কেন, গার্লি ডেটও হয়ে যাক ননদের সঙ্গে। বোন-মেয়ে বন্ধুদের সঙ্গে আড্ডায় গেলে নিয়ে যান ননদকেও (anad)। আর বাড়িতেও মাঝে মাঝে দু’জনে মিলে পার্টি করুন। সঙ্গে নিন শাশুড়ি মা-কেও। দেখবেন, সুন্দর বন্ডিং (bonding) তৈরি হবে আপনাদের মধ্যে।


সুখ-দুঃখের কথা


ওর সঙ্গে ভাগ করে নিতে পারেন সুখ-দুঃখের কথাগুলোও। বিকেলে বা উইকেন্ডে কফি খেতে খেতে দু’জন গল্প করুন। হয়তো ননদের (nanad) নতুন বয়ফ্রেন্ড হয়েছে। ওর কথা মন দিয়ে শুনুন। আর ওকে ভাল সম্পর্ক নিয়ে সাজেশনসও দিতে পারেন। আর ভুল সম্পর্কে জড়াচ্ছে কি না, সেটা দেখে সাবধান করুন। আর আপনার সঙ্গে আপনার বরের ঝগড়া হল ছোট বিষয়ে, মনটা খারাপ, তাই ননদের সঙ্গে শেয়ার করে নিন।


রান্নাবান্না


বিয়ের পরে প্রথম রান্নাঘরে ঢুকছেন। কোথায় কী আছে, জানেন না। তো ওর কাছ থেকেই আপনি সাহায্য পাবেন। আর পরে মাঝেমধ্যে দু’জনে একসঙ্গে রান্নাবান্না করুন। একসঙ্গে পরিবারের সকলের জন্য কোনও স্পেশ্যাল ডিশ বানিয়ে ফেলুন। আর তাতে দু’জনের সম্পর্ক তো ভাল হবেই। পরিবারের সকলকে বুঝতে সুবিধা হবে।


ভুল বোঝাবুঝি দূরে থাক


সব সম্পর্কেই (relation) ভুল বোঝাবুঝি থাকে। ফলে সেই ভুল বোঝাবুঝি আলোচনার মাধ্যমে দূরে ঠেলে দিতে হবে। ননদের সঙ্গে ভুল বোঝাবুঝি হলে কথা বলে সেটা দূর করুন। না হলেই সম্পর্কে দূরত্ব আসতে বাধ্য। কোনও কিছু ভাল না লাগলে বুঝিয়ে বলুন। দেখবেন, সম্পর্ক সুন্দর থাকছে।


ছবি সৌজন্যে: পিন্টরেস্ট


POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি এবং বাংলাতেও!