রাজস্থানী স্টাইল লঙ্কার আচার রেসিপি! (rajasthani hari mirch ka achar recipe)

রাজস্থানী স্টাইল লঙ্কার আচার  রেসিপি! (rajasthani hari mirch ka achar recipe)

টেকনিকালি সাইড ডিশ বটে। কিন্ত তাতে কিছু যায় আসে না! কারণ বাঙালি পেটুক কুলের কাছে আচারের (achar) কদর যে কখনই কমে না, তা তো বলাই বাহুল্য! কারণ আমরা হলাম গিয়ে জাত খাদ্যরসিক। তাই তো শীত হোক কি গ্রীষ্ম, বছরের প্রতিটি দিনই আমাদের চাই হরেক স্বাদের নানান পদ। আর সেই সব মেইন কোর্সের সঙ্গে যদি এক চামচ আচার পরিবেশন করা যায়, তাহলে তো পোয়াবারো! আর সেই আচার যদি হয় রাজস্থানী লঙ্কার আচার (chilli pickle), তাহলে তো কথাই নেই!


গ্লোবালাইজেশনের যুগে যেখানে আমেরিকায় বসে পোস্ত পাওয়া যায়, সেখানে কলকাতায় বসে রাজস্থানী লঙ্কার আচার পাওয়া যাবে না, তা আবার হয় নাকি! কিন্তু মুশকিলটা কোথায় জানো, এই সব দোকানি লঙ্কার আচারগুলি (hari mirch ka achar) দেখতে তো খাসা লাগে, কিন্তু স্বাদে তেমন একটা মুখরোচক হয় না, উপরন্তু লঙ্কার ঝাঁঝ প্রায় থাকে না বললেই চলে! তাই তো আজ এই লেখায় সহজ পদ্ধতিতে কীভাবে রাজস্থানী স্বাদের লঙ্কার আচার (rajasthani hari mirch ka achar recipe) বানাতে হয়, সে বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা করা হবে!


CHILLI-RECIPE


উপরকরণ:


১. ৫০০ গ্রাম কাঁচা লঙ্কা।
২. হাফ কাপ সরষে বীজ।
৩. পরিমাণ মতো নুন।
৪. ২ চামচ হলুদ গুঁড়ো।
৫. হাফ কাপ লেবুর রস।
৬. ২ কাপ সরষের তেল।


প্রণালী (recipe):


CJILLI-INGREDIENTS
১. লঙ্কাগুলো ভালো করে ধুয়ে নিয়ে একটা পরিষ্কার কাপড় দিয়ে মুছে নিতে হবে।
২. এরপর ছুরির সাহায্যে লঙ্কাগুলো মাঝ বরাবর একটু কেটে নিতে হবে।
৩. প্রতিটি লঙ্কা চিরে নিয়ে আলাদা করে রেখে দেওয়ার পরে সরষে বীজগুলি ব্লেন্ডারে ফেলে ভালো করে গুঁড়ো করে নিতে হবে।
৪. তারপর একটা বাটিতে পরিমাণ মতো সরষের তেল, নুন, হলুদ গুঁড়ো এবং সরষে গুঁড়ো নিয়ে ভালো করে মিশিয়ে নিতে হবে। এই সময় খেয়াল রাখতে হবে প্রতিটি উপাদান যেন একে ওপরের সঙ্গে ঠিক মতো মিশে যায়।
৫. মিশ্রনটি তৈরি হয়ে গেলে ধীরে ধীরে লঙ্কার মধ্য়ে সেটা ঢুকিয়ে দিতে হবে এবং লঙ্কাগুলি একটা একটা করে একটা বড় বাটিতে রাখতে হবে।
৬. এবার সেই বাটিতে পরিমাণ মতো লেবুর রস ঢেলে প্রতিটি লঙ্কার গায়ে ভালো করে মাখিয়ে নিতে হবে। এই সময় খেয়াল রাখতে হবে যাতে প্রত্যেকটি লঙ্কার মধ্যে লেবুর রস প্রবেশ করে।
৭. এবার বাটিটা একটা সুতির কাপড় দিয়ে ঢেকে দিতে হবে।
৮. এইভাবে আচারটা কম করে ২-৩ দিন রেখে দিলে অতিরিক্ত জল বেরিয়ে যাওয়ার সুযোগ পাবে। ফলে স্বাদ বাড়বে!
৯. ৩ দিন পরে একটা পরিষ্কার শিশিতে আচারটা ঢেলে নিয়ে তাতে হাফ কাপ গরম সরষের তেল ঢেলে দিতে হবে। এই সময় নজর রাখতে হবে লঙ্কাগুলি যেন পুরোপুরি সরষের তেলে ঢুবে যায়।
১০. এইভাবে শিশিটা বিনা নাড়িয়ে ৩ দিন রেখে দিতে হবে।
১১. তিন দিন পরেই রেডি হয়ে যাবে লঙ্কার আচার। এই আচারটি কম করে ৩-৪ মাস রেখে খেতে পারো। তবে তার জন্য ৩০ দিনে একবার করে আচারটা রোদে দিতে হবে এবং ভাল করে নাড়িয়ে নিতে হবে। এমনটা করলে দেখবে স্বাদে কোনও হেরফের হবে না।


POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!