সারা বনাম জাহ্নবী (Sara Ali Khan Vs Jhanvi Kapoor)

সারা বনাম জাহ্নবী (Sara Ali Khan Vs Jhanvi Kapoor)

দুজনেরই জন্ম ফিল্মি পরিবারে। দুজনেই ছোটবেলা থেকে চেয়েছেন অভিনেত্রী বা আরও বিস্তারিত ভাবে বললে বলা যায় হিরোইন হতে। দুজনেরই মা ডাকসাইটে অভিনেত্রী। আর দুজনেরই মা তাদের কন্যাদের মনে সেই কোন ছোট্টবেলা থেকে অভিনেত্রী হওয়ার বীজ পুঁতে দিয়েছেন। এতক্ষণে নিশ্চয়ই বুঝতে পেরেছেন আমি অমৃতা সিং আর সইফ আলি খানের মেয়ে সারা আলি খান (Sara Ali Khan) এবং শ্রীদেবী ও বনি কাপুরের কন্যা জাহ্নবীর(Jhanvi Kapoor) কথা বলছি। এবার এত মিল থাকাটা কিছুটা হলেও তো কাকতালীয় তাই না? সুতরাং এদের মধ্যে একটা তুলনা না চাইলেও হবে। সারা (Sara) বা জাহ্নবী (Jhanvi) যদিও সবার সামনে নিজেদের বন্ধু বলেন, মিডিয়ার এই তুলনাতে ভুরুও কোঁচকান। তবে তাও বাতাসে কান পাতলে ফিসফাস শোনা যায় কখনও জাহ্নবী (Jhanvi) আবার কখনও সারা (Sara) একে অপরকে টেক্কা দিয়ে বেরিয়ে যাচ্ছেন। আপনার কাকে পছন্দ? সারা (Sara Ali Khan) নাকি জাহ্নবী কাপুর (Jhanvi)? দেখুন তো কার কোর্টে বল পড়ল? আর কেই বা এগিয়ে রইল অপর জনের থেকে?


#Point 5: Debut Quotient


sara vs jhanvi 6 ed


সারা আর জাহ্নবীর মধ্যে প্রথমে ডেবিউ করেছেন জাহ্নবী। ঈশান খট্টরের বিপরীতে “ধড়ক” এ তিনি আত্মপ্রকাশ করেন। প্রেমের ছবি তাই ঈশান ও জাহ্নবী দুজনেই সমান সমান স্ক্রিন টাইমিংস পেয়েছেন। কিন্তু সপ্রতিভ ঈশানের পাশে অভিনয়ের দিক থেকে জাহ্নবী বেশ নড়বড়ে।


কেদারনাথে মহাপ্রলয়ের উপর নির্মিত ‘কেদারনাথ’ ছবিতে সুশান্ত সিং রাজপুতের বিপরীতে ডেবিউ করেন সারা। ছবিটি “ধড়ক” এর মতো অতটা ভালো ব্যবসা না করলেও মোটামুটি উৎরে গেছে। তবে প্রথম ছবিতে সিনিয়র অভিনেতা সুশান্তের পাশে যথেষ্ট সপ্রতিভ সারা। ভালো অভিনয় করেছেন।


 #Point 4 : Family  Quotient


amrita and sara


শ্রীদেবী তাঁর মেয়ের ডেবিউ দেখে যেতে পারেননি। এই দুঃখ জাহ্নবী সারা জীবন ভুলতে পারবেন না। দর্শকদের মধ্যেই তিনি কেঁদে ফেলেন। তবে মায়ের মৃত্যুতে সৎ দাদা অর্জুন কাপুরকে তিনি পাশে পেয়েছেন। বাড়ির অন্যান্য সদস্যরাও তাকে সাপোর্ট করেছেন।


বাবা মায়ের ভালোবাসা একসঙ্গে পাননি সারা। ছোটবেলাতেই অমৃতা ও সইফের বিবাহ বিচ্ছেদ হয়ে যায়। তবে সারার অভিনয়ে খুশি হয়েছেন শরমিলা ঠাকুর। অমৃতা আর শরমিলার সম্পর্কের বহুদিনের বরফ গলিয়েছেন সারা। অমৃতাকে ব্যক্তিগত মেসেজে শরমিলা জানিয়েছেন সারা সত্যিই উপযুক্ত নাতনি।


#Point 3: Emotional Quotient


sara vs jahnvi


জাহ্নবী শ্রীদেবী ও বনির প্রথম সন্তান। তিনি খুব আদুরে। হঠাৎ মায়ের মৃত্যু জাহ্নবী মেনে নিতে পারেননি। তাই সবার সামনে কেঁদে ফেলতেও তিনি দ্বিধা করেন না। শান্ত ও নম্র স্বভাবের জাহ্নবী অনেক বেশি আবেগপ্রবণ।


সারা স্বভাবে অনেক চঞ্চল এবং হাসিখুশি স্বভাবের। তিনি অনেক বেশি স্পষ্টবক্তা। করিনা কাপুরকে তিনি মা বলে ডাকতে পারবেন না, তার যে একসময় পিসিওডি ছিল এবং তিনি যে কার্ত্তিক আরিয়ানকে ডেট করতে চান সেটা সবার সামনে বলতে তিনি লজ্জাবোধ করেন না।


#Point 2: Fashion Quotient


sara vs jhanvi 4


 


পশ্চিমী পোশাকে জাহ্নবী অস্বচ্ছন্দ বোধ করেন। সেটা এলবিডি বা অন্য কোনও পোশাক পরলে তার আড়ষ্টতা দেখলে স্পষ্ট বোঝা যায়। আবার শাড়ি, সালয়ার বা ঘাঘরা চোলিতে তাকে অনেক বেশি প্রাণবন্ত দেখায়। বোঝাই যায় এই জাতীয় ভারতীয় পোশাক তিনি বেশি ভালোবাসেন।


সারা কিন্তু পশ্চিমী ও ভারতীয় দু ধরণের পোশাকেই স্বচ্ছন্দ বোধ করেন। 


 


#Point 1:  Personality and Style Quotient


sara vs jhanvi 7


‘সিম্বা’তে রনভির সিংয়ের এনার্জির পাশে খুব একটা জায়গা পাননি সারা। আর তাতে তিনি একটু চটেছেন। স্ক্রিন টাইমিংস বেশি না থাকলে ছবি সই করবেন না বলে জানিয়েছেন। সেই ডেবিউ ছবি থেকেই সেটে নানারকম ট্যানট্রাম দেখানোর বদনাম আছে তার।


জাহ্নবী করছেন ‘তখত’ যা একটি মাল্টিস্টারার ছবি। বোঝাই যাচ্ছে স্ক্রিন টাইমিংস নিয়ে তার মাথাব্যাথা নেই।


সারা ভালো নাচতে পারেন না। জাহ্নবী বেশ ভালো নাচেন। শ্রীদেবীর জিন রয়েছে যে তার শরীরে!


সারা সিঙ্গল না এনগেজড কেউ জানে না।তিনি সুশান্তের সঙ্গে ডেট করছেন বলে শোনা যায়। গুজব ছিল জাহ্নবীও ঈশানের সঙ্গে ডেট করছেন।দুজনেরই এ ব্যাপারে মুখে কুলুপ।


জাহ্নবী স্টাইল নিয়ে খুব একটা এদিক ওদিক করেন না। তবে সারা ভালোবাসেন এক্সপেরিমেন্ট করতে।


তাহলে কীরকম বুঝলেন? আপনি কাকে কত পয়েন্ট দিলেন? 


POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!