উইকএন্ড স্ন্যাক হিসেবে জমে যাবে এমন কয়েকটি চাটের রেসিপি

উইকএন্ড স্ন্যাক হিসেবে জমে যাবে এমন কয়েকটি চাটের রেসিপি

সান্ধ্যকালীন খিদেকে জোড়া গোল দিতে অফিস থেকে ফেরার সময় বেশিরভাগ বাঙালিই যে মুখ চালাতে নানান স্বাদের চাটে (chaat) মনোনিবেশ করে থাকে, তা কি আর বলার অপেক্ষা রাখে! কিন্তু এই সব দোকানি চাটের জায়গায় যদি একই জিনিস বাড়িতেই বানিয়ে ফেলা সম্ভব হয়, তাহলে পকেট ফুটো করার মানে কি! তাই তো আজ এই প্রবন্ধে বাঙালির প্রিয় দুই চাটের শর্টকাট রেসিপি (easy chaat recipes) নিয়ে আলোচনা করতে চলেছি, যা যে কোনও দিন, যে কোনও সময়েই তৈরি করে ফেলা সম্ভব!


কোন দুটি চাটের রেসিপির (recipes) কথা বলছি, তাই ভাবছো নিশ্চয়?


১.দই বড়া:


Dahi-Vada-1
মুখরোচক এই পদটি (dahi vada) তৈরি করতে প্রয়োজন পড়বে ৫০০ গ্রাম কলাই ডাল, হাফ চামচ বেকিং সোডা, ২ কাপ দই, হাফ চামচ লঙ্কা গুঁড়ো, হাফ চামচ বিটনুন, ১ কাপ সাদা তেল, ১ চামচ চিনি, ২ চামচ জিরা গুঁড়ো, স্বাদ অনুসারে নুন এবং ১ চামচ চাট মশলার।


গার্নিশিং করতে প্রয়োজন পড়বে:
১. অল্প করে আদা কুচি।
২. এক মুঠো ধনে পাতা।
৩. ২ টো কাঁচা লঙ্কা।
৪. ২ চামচ তেঁতুলের পেস্ট (ইচ্ছা হলে নাও দিতে পারো)।


প্রণালী:


Dahi-Vada-2
১. ডালটা ভালো করে ধুয়ে নিয়ে সারা রাত ভিজিয়ে রাখতে হবে। পরের দিন সকালে জলটা ছেঁকে নিয়ে ডালটা পিষে নাও। এই সময় অল্প করে জল মেশাতে ভুলো না যেন! এক্ষেত্রে আরেকটি বিষয় মাথায় রাখতে হবে, তা হল ডালটা পেষার পর যে পেস্টটা তৈরি হবে, সেটা যেন হয় থকথকে।
২. এবার ডালের পেস্টটা ভালো করে ফেটিয়ে নিয়ে তাতে পরিমাণ মতো নুন এবং বেকিং সোডা মিশিয়ে আরও একবার ভালো করে নাড়াতে হবে।
৩. এরপর একটা ফ্রাইং প্য়ানে পরিমাণ মতো তেল নিয়ে গরম করে নাও। তারপর হাতের তালুতে একটা প্লাস্টিক শিট নিয়ে সেটা একটু ভিজিয়ে নাও। এবার তাতে অল্প করে ডালের পেস্ট নিয়ে লেবুর মাপের একটা বল বানিয়ে ফেলো। এবার বলের উপরের দিকটা চাপ দিয়ে চ্যাপ্টা করে নাও।
৪. এইভাবে প্রতিটি ডালের বলকে চ্যাপ্টা অবয়ব দেওয়ার পরে গরম তেলে এক এক করে ছেড়ে দাও। এই সময় খেয়াল রাখবে আঁচ যেন খুব বেশি না হয়।
৫. মধ্যম আঁচে ফ্রাই করার পর হালকা আঁচে আরও কিছুক্ষণ বলগুলিকে ভাজতে হবে।
৬. কয়েক মিনিট পরে বড়াগুলি প্যান থেকে তুলে নিয়ে এক বাটি জলে ১৫-২০ মিনিট চুবিয়ে রাখো।
৭. সময় হয়ে গেলে বড়াগুলি সংগ্রহ করে নাও। এই সময় খেয়াল রাখবে বড়ার মধ্যে যেন জল না থেকে যায়।
৮. এবার একটা চালনীর সাহায্যে দইটা ছেঁকে নাও। তরপর তাতে চিনি এবং বিটনুন মিশিয়ে ভালো করে নাড়াও। এরপর ধীরে ধীরে দইটা বড়ার উপরে ছড়িয়ে দিতে হবে।
৯. সবশেষে দই বড়ার উপরে অল্প করে জিরে গুঁড়ো, কাঁচা লঙ্কা কুচি, চাট মশলা এবং লঙ্কা গুঁড়ো ছড়িয়ে দাও। তারপর এক চামচ তেঁতুলের চাটনি বা গ্রিন চাটনি ছড়িয়ে পরিবেশন করো।


২. ভেল পুরি:


Bhelpuri-1
প্রায় প্রতিটি বাঙালির প্রিয় এই ডিশটি (bhel puri recipe) তৈরি করতে প্রয়োজন পড়বে ২ কাপ মুড়ি, হাফ কাপ ঝুরি ভাজা, ১ কাপ পেঁয়াজ কুচি, ১ কাপ সেদ্ধ আলু, ১ চামচ গ্রিন চাটনি, হাফ কাপ তেঁতুলের চাটনি (অল্প করে জল মেশানো), ১ চামচ লেবুর রস, ১ চামচ নুন এবং পরিমাণ মতো ধনে পাতার।


গ্রিন চাটনি বানাতে প্রয়োজন পড়বে:
১. অল্প পরিমাণ ধনে পাতা।
২. অল্প করে রসুন।
৩. কাঁচা লঙ্কা।
৪. এক চামচ লেবুর রস।


প্রণালী:


১. মুড়ির সঙ্গে ভালো করে মিশিয়ে ফেলো প্রতিটি উপাদান। তারপর নাড়াতে থাকো, যাতে প্রতিটি উপকরণ মুড়ির সঙ্গে ভালো করে মিশে যাওয়ার সুযোগ পায়।
২. এবার গ্রিন চাটনি বানানোর পালা। এক্ষেত্রে সম পরিমাণে ধনে পাতা, রসুন, লেবুর রস এবং কাঁচা লঙ্কা নিয়ে ভালো করে গ্রাইন্ড করে নিতে হবে। এমনটা করলেই তৈরি হয়ে যাবে গ্রিন চাটনি।
৩. এরপর মুড়ি মাখার সঙ্গে গ্রিন চাটনি এবং তেঁতুলের চাটনি মিশিয়ে ভালো করে নাড়িয়ে নিতে হবে। তরপর মুড়ির উপর অল্প করে ধনে পাতা ছড়িয়ে পরিবেশন করলেই কেল্লা ফতে!


ছবির কৃতজ্ঞতা স্বীকার: wikipedia


POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!