স্বাদের ঐতিহ্য নিয়ে আজও এগিয়ে চলেছে কলকাতার এই খাবারের দোকানগুলো (Heritage eateries in Kolkata)

স্বাদের ঐতিহ্য নিয়ে আজও এগিয়ে চলেছে কলকাতার এই খাবারের দোকানগুলো (Heritage eateries in Kolkata)

খুব ছোটবেলায় বাবা পাঁচুবাবুর দোকানের কষা মাংস নিয়ে আসতেন। শালপাতায় মুড়ে ঝাল ঝাল কষা মাংসের জন্য গোটা মাস অপেক্ষা করতাম (heritage eateries)। আজ এতদিন পরেও সেই রান্নার স্বাদ আজও ভুলতে পারিনি। খিদিরপুর অঞ্চলে মনসাতলায় এই পাঁচুবাবুর দোকানে বড় হওয়ার পর একবার গিয়েছিলাম। আশ্চর্যের বিষয় হল এখনও সেই কষা মাংসের স্বাদ একই রকম আছে। অথচ যার নামে দোকান (heritage eateries) তিনি মারা গেছেন বহু আগে।পাল্টে গেছে রাঁধুনিও। তবে কিযে জাদু রেসিপি তারা ব্যবহার করেন, রান্নার স্বাদে এতটুকু হেরফের হয়নি। এইরকম দোকান (heritage eateries) কলকাতায় মেলা আছে। যাদের হয়তো বাহারি চেকনাই নেই। তবে খাবার একদম ফার্স্টক্লাস। শুনেই বুঝি খিদে পেয়ে গেল? চলুন আমরা তাহলে বেরিয়ে পড়ি আমাদের এই ‘ফুড ওয়াকে।’ 


মিত্র কাফে


mitra cafe


মিত্র কাফে খোলে বিকেল চারটের সময়। আর তিনটে থেকে দোকানের সামনে ভিড় জমে যায়। উত্তর কলকাতার শোভাবাজার অঞ্চলে এটা রোজকার ঘটনা। সেই ১৯২০ সালে তৈরি হয়েছিল এই দোকান। কিন্তু তার খ্যাতি আজও অমলিন। এখান ইস্পেশ্যাল খাবার হল পাঁঠার মাথার ঘিলু দিয়ে তৈরি চপ। আর তার সঙ্গে অতি মাত্রায় জনপ্রিয় এখানকার ফিশ ডায়মন্ড ফ্রাই এবং মটন কবিরাজি। শোভাবাজার মেট্রো স্টেশনের একদম উল্টো দিকে এই দোকান। সুতরাং চিনে নিতে একদম অসুবিধে হবে না।


ঠিকানাঃ মিত্র কাফে ৩/১ ভুপেন বোস এভিনিউ, কলকাতা ৪


ফোন নাম্বারঃ(০৩৩) ২৫৪৩ ৮১৯২ 


প্রধান দোকানঃ ৪৭ যতীন্দ্র মোহন এভিনিউ, কলকাতা ৫ 


গোলপার্ক শাখার ফোন নাম্বারঃ ৯০০৭৬৯৫৯২৯  


অ্যালেন কিচেন


allen kitchen


শোভাবাজারে আছেন আর শুধু মিত্র কাফে ঘুরে বাড়ি চলে যাবেন? ধ্যাত! সেটা আবার হয় নাকি? ১৩০ বছরের পুরনো অ্যালেন কিচেনে যাবেন না? এটা যদিও আগে অ্যালেন মার্কেটে ছিল, পরে উত্তর কলকাতায় চলে আসে। বাঙালিরা হামলে পড়ে খায় বলে ভাববেন না এই দোকানের সঙ্গে কোনও বাঙালির যোগ আছে। এর মালিক ছিলেন খাস স্কটিশ এক সাহেব। তার নামেই দোকান শুরু। এখানকার স্পেশ্যাল মেনু হল কাটলেট। নিয়ম মেনে আজও এখানে খাঁটি ঘিয়ে কাটলেট ভাজা হয়। একদম চ্যাংড়ামি না করে বলছি এখানকার চিংড়ির কাটলেট না খেলে সারাজীবন পস্তাবেন। দোকান খোলে সাড়ে চারটে নাগাদ। 


ঠিকানাঃ ৪০/১ যতীন্দ্র মোহন এভিনিউ, কলকাতা ৬ 


ফোন নাম্বারঃ ৮০১৩৮২১০৫৫ 


অনাদি কেবিন 


anadi


অনাদির কেবিন এতটাই ছোট, যে এসপ্ল্যানেডে শপিং করতে আসা আর হুরমুরিয়ে ছুটে চলা অফিসযাত্রীদের ভিড়ে অনেক সময় নাও চোখে পড়তে পারে। অথচ এই ছোট্ট দোকানের কি যে মহিমা যে একবার না গিয়েছে সে মোটে বুঝবে না। এখানকার মোগলাইয়ের খ্যাতি সর্বজনবিদিত। বিকেলের পরে তো এত ভিড় হয় যে বাধ্য হয়ে টেক অ্যাওয়ে শুরু করেছেন তারা।


ঠিকানাঃ ৯এ, জহরলাল নেহেরু রোড, ধর্মতলা, তালতলা, কলকাতা ১৩


ফোন নাম্বারঃ ৯৭৩৩৭২৭৭৪০ 


গোলবাড়ির কষা মাংস


golbari


শ্যামবাজারের শশীবাবু কি করেন জানা নেই। তবে আমি কিন্তু শ্যামবাজার পাঁচ মাথার মোড়ে গেলেই এখানে একবার ঢুঁ মারি। আরে বাবা গুটিগুটি পায়ে একশ বছর হতে চলল প্রায় এই দোকানের। অথচ এখনও পাশ দিয়ে গেলে কষা মাংসের গন্ধে পেটে ইঁদুর দৌড়োয়। অরোরা পরিবার, যারা তিন প্রজন্ম ধরে এই দোকান চালাচ্ছেন একদম বাঙালি হয়ে গেছেন। কষা মাংস আর পরোটার সঙ্গে তাই খাস বাঙালি আড্ডা একদম উপরি পাওনা হতে পারে। 


ঠিকানাঃ শ্যামবাজার পাঁচ মাথার মোড়, ২১১, আচার্য প্রফুল্ল চন্দ্র রোড, ফরিয়াপুকুর, কলকাতা ৪


ফোন নাম্বারঃ (০৩৩) ২৫৫৪ ৬০৯৬  


চাচার হোটেল


chachar hotel


বিধান সরণিতে ওই যে যেখানে স্বামী বিবেকানন্দের পৈতৃক বাড়ি ওখানেই চাচার দোকান। তবে এটি চালায় একটি হিন্দু পরিবার। ১৮৭৫ সালে গোঁসাইদাস পাত্র এক মুসলিম ব্যক্তির কাছ থেকে একটি ছোট্ট চায়ের দোকান কিনেছিলেন। দিনেকালে সেটিই চাচার হোটেল নামে বিখ্যাত হয়। এখানকার ফাউল কাতলেত...আহা সে যে কি স্বাদ, না খেলে বুঝবেন না।


ঠিকানাঃ ৪২ বিধান সরণি, রামকৃষ্ণ মিশন স্বামী বিবেকানন্দের পৈতৃক বাড়ির উল্টো দিকে, মানিকতলা, কলকাতা ৬ 


ফোন নাম্বারঃ (০৩৩) ২২৪১ ২৮৭৬  


দিলখুশা কেবিন 


dilkhusha


শ্যামবাজার, শোভাবাজার ছেড়ে এবার একটু কলেজ স্ট্রিট অঞ্চলে চলে আসি। এখানকার দিলখুসা কেবিন আপনার দিলখুশ করে দেবে। এখানকার বিখ্যাত পদ হল দই চিকেন।


৮৮ মহাত্মা গান্ধী রোড, কলেজ স্কোয়ার, কলকাতা ৯


(০৩৩) ২২৪১ ৭৩৭৫ 


Picture Courtsey: Instagram and Facebook 


POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!