মিষ্টি দিয়ে শুরু হোক রঙের উৎসব (Holi Sweets Recipes)

মিষ্টি দিয়ে শুরু হোক রঙের উৎসব (Holi Sweets Recipes)

আজ আমাদের নেড়াপোড়া/কাল আমাদের দোল। হ্যাঁ, আজ রাত পোহালেই কাল রঙের (holi) উৎসব। আবিরের রঙে রঙিন (holi) হবে আকাশ বাতাস। আর এই খুশির উৎসবে একটু মিষ্টি (sweets) মুখ হবে না তাই কি হয়? আর তাই দোলের ঠিক আগের দিনে থালা ভর্তি মিষ্টি (sweets) নিয়ে হাজির হয়েছি আমরা। শুধু রঙ খেললেই হবে? তার সঙ্গে একটু আধটু মিষ্টি (sweets) মুখ না হলে কি আর উৎসব জমে? রইল দোল স্পেশ্যাল মিষ্টির (sweets) স্পেশ্যাল রেসিপি।


সেরা ১০ টি বাংলা হোলির গান


ভাজা গুজিয়া


bhaja gujia


উপকরণঃ ময়দা দেড় কাপ, ময়ানের জন্য ঘি ২ টেবিল চামচ, সুজি আধ কাপ, চিনি আধ কাপ, ভাজবার জন্য ঘি প্রয়োজনমতো।


প্রণালীঃ সুজি ঘিয়ে ভেজে নিন। আঁচ থেকে নামিয়ে চিনি মেশান। ময়দা ময়ান ও জল দিয়ে মেখে নিন। ছোট ছোট লেচি কেটে লুচির মতো বেলে নিন। এক টেবিল চামচ করে সুজির পুর ভরে লুচি ভাঁজ করে নিন। জল দিয়ে চেপে চেপে লুচির দুই প্রান্ত জুড়ে নিন এবং বিনুনির মতো করে মুড়ে ভেজে নিন।


আরও পড়ুনঃ দোলের শুভেচ্ছা বার্তা


গুলকন্দ শাহি গুজিয়া


gulkand gujia ed


উপকরণঃ ঘি ৫০০ এমএল, সাদা তেল ১০০ এমএল, এলাচ পাউডার ৫ গ্রাম, কিসমিস ১৫ গ্রাম, চিনি ২০০ গ্রাম, রাংতা, ময়দা এক কাপ, খোয়া ক্ষীর ৩০০ গ্রাম, আমন্ড বাদাম কুচি, নারকেল কুড়নো ১৫ গ্রাম, গুলকন্দ ১৫ গ্রাম, পেস্তা ৩টে


প্রণালীঃ ময়দা ভালো করে চেলে নিয়ে তেল দিয়ে মাখুন। এবার এর মধ্যে জল দিয়ে ভালো করে ঠেসে একটা তাল তৈরি করুন। খোয়া ক্ষীর ভালো করে ভেঙে গুঁড়িয়ে কড়াইতে একটু ভেজে নিন। এর মধ্যে চিনি আর এলাচ পাউডার দিয়ে ভালো করে নেড়ে নিন। তারপর আমন্ড বাদাম, নারকেল আর কিসমিস দিন। দু মিনিত নাড়াচাড়া করুন। আঁচ বন্ধ করে ঠাণ্ডা হতে দিন। আটার তাল থেকে ছোট ছোট লেচি কেটে লুচির মতো বেলে নিয়ে তাতে খোয়া ক্ষীরের পুর দিন। এবার লুচির ধারগুলো মুড়ে দিন। এবার ওগুলো তেলে ভেজে নিন। ভাজা হয়ে গেলে নামিয়ে নিয়ে রাংতা দিয়ে মুড়ে পেস্তা দিয়ে সাজিয়ে পরিবেশন করুন।    


বোঁদে মোতি


bonde moti


উপকরণঃ বেসন ২৫০ গ্রাম, চালের গুঁড়ো ২ চামচ। ময়দা ১ চামচ, চিনি ৫০০ গ্রাম, খোয়া ক্ষীর ১০০ গ্রাম, গোলাপজল, এলাচ গুঁড়ো, কাজুবাদাম, কিসমিস আন্দাজমতো, সাদাতেল ভাজার জন্য আন্দাজমতো, চিনি ১০০ গ্রাম, লাল রঙ সামান্য


প্রণালীঃ চিনির সঙ্গে পাঁচ ছ’ কাপ জল দিয়ে পাতলা রস তৈরি করুন। অন্যদিকে বেসন, ময়দা ও চালের গুঁড়ো একসঙ্গে জল মিশিয়ে ফেটিয়ে নিন। বেশ পাতলা গোলা তৈরি হবে। কড়াইতে তেল গরম করে তার উপর ঝাঁঝরা হাতায় করে অল্প গোলা ঢালুন। ঝাঁঝরা দিয়ে পড়ায় ওগুলো ছোট ছোট বোঁদের আকার নেবে। অল্প ভাজা হলেই তুলে নিয়ে রসে ফেলুন। সাত থেকে আট ঘণ্টা রসে ভিজিয়ে রাখুন। আলাদা ১০০ গ্রাম চিনি দিয়ে খুব ঘন করে রস তৈরি করুন। এলাচ, কাজু, কিসমিস, গোলাপজল, ক্ষীর ও রস দিয়ে মেখে হাতে করে গোল গোল আকারে লাড্ডু তৈরি করে নিন। খানিকটা বোঁদের লাল রঙ মিশিয়ে দেবেন। দেখতে সুন্দর লাগবে।


POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!


Picture: Instagram