ঘরোয়া উপায়ে কী ভাবে বানাবেন স্কিন ডিটক্স (skin detox) মাস্ক

ঘরোয়া উপায়ে কী ভাবে বানাবেন স্কিন ডিটক্স (skin detox) মাস্ক

পেলব-মসৃণ-সুন্দর-জেল্লাদার ত্বক (skin) পেতে কে না চান! আর তার জন্য তো ব্যস্ত শিডিউল থেকে সময় বার করেও স্কিনের যত্নের প্রয়োজন। আর তার জন্য কিন্তু ওপর-ওপর যত্নই যথেষ্ট নয়। ভিতর থেকেই স্কিনের কেয়ার প্রয়োজন। কারণ কারণ স্কিন (skin) তো আমাদের শরীরের একটা বর্মের মতো কাজ করে। তাই স্কিনকেই সমস্ত ধোঁয়া-ধুলো-দূষণ-ক্ষত সবটাই সহ্য করতে হয়। আর স্কিনের ভিতর থেকে যত্নের জন্য নিয়মিত স্কিন ডিটক্স (skin detox) করতে হবে। আরে ঘাবড়াবেন না! সহজেই ঘরে বসেও আপনি স্কিন ডিটক্স (skin detox) করতে পারবেন। আমাদের শরীরকে যে ভাবে আমরা ডিটক্স করি, ঠিক সে ভাবেই স্কিনকেও ডিটক্স (skin detox) করা দরকার। এতে স্কিনের (skin) সমস্ত দূষিত পদার্থ বেরিয়ে যায়। আর এতে স্কিন থাকে সতেজ, সুন্দর আর জেল্লাদার। তার জন্য তো প্রচুর পরিমাণে জল খেতে হবে, আর ডায়েটে শাক-সবজির পরিমাণও বাড়াতে হবে। খেতে হবে ফলও। তা ছাড়া নানা রকম স্মুদিও চলতে পারে। আর যেটা চাই, সেটা হল নিয়মিত শরীরচর্চা। কারণ ওটা আপনাকে ফিট আর ফাইন তো রাখবেই। তার সঙ্গে সঙ্গে স্কিনকেও (skin) ভাল রাখবে। এগুলো ছাড়াও  স্কিনের কিছু ডিটক্স (skin detox) মাস্কের (mask) হদিস দিচ্ছি আমরা। দেখে নিন সেগুলো।


আরো পড়ুনঃ চুল পড়া বন্ধ করতে ঘরোয়া হেয়ার মাস্ক


ক্লে বা কাদামাটির মাস্ক


clay mask detox skin


ক্লে-র ডিটক্স করার ক্ষমতা রয়েছে। এটা আসলে একটা স্পঞ্জের মতো কাজ করে। স্কিনের (skin) বিষাক্ত পদার্থ শুষে নেয় স্পঞ্জের মতো। আর স্কিনে মিনারেলসের জোগান দেয়। স্কিনকে এক্সফোলিয়েট করার সঙ্গে সঙ্গে স্কিনের যত দূষিত পদার্থ আছে, সব শরীরের বাইরে বার করে দেয়। সেই সঙ্গে স্কিনকে শুষ্কও হতে দেয় না। তাই কাদামাটির মাস্ক (mask) স্কিনের (skin) জন্য দারুণ। ক্লে-র মধ্যে ১ চা-চামচ অ্যাপল সাইডার ভিনিগার আর কয়েক ফোঁটা আপনার পছন্দের এ সেন্সিয়াল অয়েল মিশিয়ে একটা পেস্ট বানিয়ে নিন। তার পর ১০-১৫ মিনিট ধরে স্কিনে লাগিয়ে অপেক্ষা করুন। তার কিছু ক্ষণ পরে ঠান্ডা জলে মুখ ধুয়ে ফেলুন। দেখবেন, কেমন ফ্রেশ লাগছে। এ ছাড়াও এই মাস্ক বানানোর জন্য দই, দুধ, জল আর গোলাপ জল ব্যবহার করতে পারেন।


চকলেট-ক্যাফিন মাস্ক


১ চা-চামচ কফি গুঁড়ো, ১ চা-চামচ কোকো পাউডার নিন। তার মধ্যে দই দিয়ে একটা পেস্ট বানিয়ে নিন। তার পর মুখে লাগিয়ে রাখুন। ১৫ মিনিট রেখে তুলে ফেলুন। এতে স্কিনের (skin) পরিবর্তন লক্ষ্য করতে পারবেন।


টোম্যাটোর রস-মধুর মাস্ক


যাঁরা নিয়মিত ব্রণ, ব্ল্যাকহেডস ও স্কিনের অন্যান্য সমস্যায় ভোগেন, তাঁদের জন্য এই ডিটক্স মাস্কটা দারুণ। ২ চা-চামচ টোম্যাটোর রসের সঙ্গে ১ চা-চামচ মধু মিশিয়ে নিন। এ বার মুখে লাগিয়ে ২৫ মিনিট মতো অপেক্ষা করুন। তার পর ঠান্ডা জল দিয়ে ধুয়ে ফেলুন। এটা আপনার স্কিনকে আরাম দেওয়ার পাশাপাশি আপনার স্কিনের (skin) সমস্যা দূর করবে।


আঙুরের মাস্ক


grapes-fruit


চার-পাঁচটা আঙুর নিয়ে রস বার করে নিন। এ বার তার মধ্যে অল্প ময়দা যোগ করে একটা পেস্ট বানিয়ে ফেলুন। এর পর মুখে মেখে কিছুক্ষণ রাখার পরে ধুয়ে ফেলুন। এটা স্কিনকে ডিটক্স (skin detox) করার জন্য দারুণ একটা মাস্ক (mask)। আর যাঁদের তৈলাক্ত ত্বক, তাঁদের জন্যও তো খুবই ভাল!


স্ট্রবেরি মাস্ক


strawberry


স্ট্রবেরি মাস্ক আপনার স্কিনকে (skin) পরিষ্কার করার সঙ্গে সঙ্গে আপনার ক্লান্ত মুখকে নিমেষে সুন্দর করে তোলে। এর জন্য কয়েকটা স্ট্রবেরি নিয়ে চটকে মেখে নিন। এ বার ১ চা-চামচ দই, ১ চা-চামচ মধু আর ২ চা-চামচ লেবুর রস মিশিয়ে নিন। এ বার মুখে ওই পেস্ট লাগিয়ে রাখুন। তার কিছু ক্ষণ পরে ঠান্ডা জলে মুখ ধুয়ে নিন।


ছবি সৌজন্যে: পেক্সেলস, পিক্সঅ্যাবে ও ইউটিউব


POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি এবং বাংলাতেও!


এগুলোও আপনি পড়তে পারেন


এলোভেরার ১২ টি বিশেষ উপকারিতা ও গুণাগুণ