দোল খেলার আগে ও পরে কী ভাবে স্কিন (skin) আর চুলের (hair) যত্ন নেবেন

দোল খেলার আগে ও পরে কী ভাবে স্কিন (skin) আর চুলের (hair) যত্ন নেবেন

দোল (holi) তো প্রায় দোরগোড়ায়। পুরোদমে প্রস্তুতি চলছে তো? কী পরবেন, কী সাজবেন, কী খাবেন ঠিক করে ফেলেছেন তো? আর কোন কোন গানে নাচবেন, সেই লিস্টও তো নিশ্চয়ই তৈরি হয়ে গিয়েছে। দোলে (holi) তো আনন্দে মাতবেন। রং খেলবেন। আবির মাখবেন। কিন্তু তাতে চুল (hair) আর স্কিনের (skin) কী অবস্থা হবে, সেটা ভেবে দেখেছেন কি? না ভাবলে এক্ষুণি শুরু করুন স্কিন (skin) আর হেয়ার (hair) কেয়ার (care) রুটিন। না হলে কিন্তু আপনিই মুশকিলে পড়বেন। কারণ রঙ আর আবিরে থাকে ক্ষতিকর কেমিক্যালস। যেগুলো আপনার স্কিনের (skin) জন্য অত্যন্ত ক্ষতিকর। তাই দোল খেলার আগে ও পরে স্কিন (skin) আর চুলের (hair) যত্ন (care) প্রয়োজন। এমন অনেকেই রয়েছেন, যাঁদের স্কিন (skin) খুবই সেনসিটিভ। কেমিক্যালসের জন্য তাঁদের স্কিনে rash বেরোতে পারে। তাই সতর্ক হয়ে কিন্তু দোল (holi) খেলতে হবে। তাই দোল খেলার আগে আর পরের স্কিন (skin) আর হেয়ার (hair) কেয়ার (care) নিয়ে কিছু টিপস রইল আপনাদের জন্য।


দোল খেলতে যাওয়ার আগে কী কী করবেন


colors-festival-holi-skin care


লোশন বা তেল


আগেই বলেছি, রং বা আবিরে প্রচুর ক্ষতিকর কেমিক্যালস থাকে, তাই আপনার স্কিনে (skin) আর মুখে নারকেল তেল অথবা অলিভ অয়েল লাগিয়ে নিন। মুখে, হাতে-পায়ে ভাল করে তেল লাগালে রংয়ের ক্ষতি থেকে অনেকটাই বাঁচানো যাবে স্কিনটাকে, কানের আশপাশেও তেল অথবা লোশন লাগাবেন। ঠোঁটের কথাও ভুলবেন না কিন্তু! ঠোঁটে পুরু করে ভেসলিন লাগিয়ে নেবেন। আর লিপবাম অথবা লিপস্টিকও ব্যবহার করতে পারেন। আর চুলের (hair) ক্ষেত্রেও ঠিক তা-ই। চুলে তেল লাগিয়ে নিন। সব থেকে ভাল হয়, আগের রাতে চুলে একটা অয়েল মাসাজ করিয়ে নেবেন। তা হলে চুল ক্ষতিগ্রস্ত হবে না।


সানস্ক্রিন লোশন


চড়া রোদের মধ্যেই তো দোল খেলবেন। ট্যান অথবা সানবার্নের কথাটা কি ভেবে দেখেছেন? না ভাবলে এখনই ভাবুন। স্কিনকে সূর্যের ক্ষতিকর অতিবেগুনি রশ্মি থেকে রক্ষা করুন। তাই একটা ভাল সানস্ক্রিন মেখে দোল (holi) খেলতে যান।


নেল পলিশ


জমিয়ে রং খেলতে গেলে নখে তো রং লাগবেই! নখে রং লাগলে সহজে উঠতে চাইবে না। সেটা দেখতেও খুব খারাপ লাগে। তাই দোল খেলতে যাওয়ার আগে নখে নেলপলিশ লাগাতে ভুলবেন না যেন! দরকার হলে নখের উপর দু’কোট বেস নেলপলিশ লাগিয়ে নিন। তাতে নখে রং লাগবে না।


চুল বাঁধবেন


চুল বেঁধে নেওয়াই ভাল অপশন। চুল (hair) খুলে রাখলে কিন্তু ক্ষতির সম্ভাবনা অনেক বেশি। তাই চুলটা টাইট করে বিনুনি করে নিন অথবা মাথার উপরে একটা খোঁপা করে নিতে পারেন। তা হলে চুলের ক্ষতি অতটা হবে না। না হলে মাথাটা স্কার্ফ অথবা ব্যান্ডানা দিয়ে ঢেকে রাখুন। তাতে স্টাইলিশও লাগবে আর চুলেরও ক্ষতি হবে না।


চোখে সানগ্লাস


চোখে কনট্যাক্ট লেন্স পরে রং খেলবেন না। আর চোখে যাতে রং না লাগে, তার জন্য সানগ্লাস পরে নিন। এতে চোখে ক্ষতিকর রং অথবা আবির ঢুকে চোখের ক্ষতি করতে পারবে না।


দোল খেলে আসার পর কী কী করবেন


holi-party


ক্লিনজিং


রং খেলে আসার পর স্কিন থেকে রং তোলা সব থেকে কঠিন কাজ। আর জরুরিও বটে। না হলে ক্ষতিকর রাসায়নিক থেকে স্কিনে (skin) ব্রণ, অ্যালর্জি আর স্কিন rash হয়ে যেতে পারে। তাই স্নানের আগে ক্লিনজিং ক্রিম অথবা ভাল কোনও তেল দিয়ে স্কিনে রঙের দাগ পরিষ্কার করে নিন। রঙের দাগ না উঠতে চাইলে লেবু ঘষে নিন। তা হলে রং ফিকে হয়ে আসবে।


চুলের মাস্ক


ক্ষতিকর কেমিক্যালসের জেরে চুলের রুক্ষতা থেকে বাঁচতে চুলে লাগান হেয়ার মাস্ক। ২ টেবিল চামচ অলিভ অয়েল, চার টেবল চামচ মধু আর কয়েক ফোঁটা লেবুর রস মিশিয়ে নিন। সেটা চুলে মাসাজ করে ২০-৩০ মিনিট রেখে দিন। তার পর একটা মাইল্ড শ্যাম্পু দিয়ে চুলটা ধুয়ে নিন।


স্কিন মাস্ক, টোনার, সিরাম


স্নানের পর স্কিনে গোলাপ জল অথবা শসার নির্যাস ব্যবহার করতে পারেন। স্নানের পর আর একটা জিনিস ব্যবহার করতে পারেন, যেটা খুবই ভাল। সেটা হল- গ্লিসারিন। স্কিন লাল হয়ে গেলে অথবা জ্বালা করলে গ্লিসারিন খুবই কার্যকর। এ ছাড়া, ব্যবহার করতে পারেন ঘরোয়া স্কিন মাস্কও। আর স্নানের পর চুলে একটা ভাল সিরাম লাগিয়ে নিন।


ময়েশ্চারাইজার


স্নানের পর যেটা সব থেকে ইম্পর্ট্যান্ট, সেটা হল- স্কিনকে ময়েশ্চারাইজ করা। একটা ভাল ময়েশ্চারাইজার স্কিনে লাগিয়ে নিন। যেটা স্কিনকে হাইড্রেট করার সঙ্গে সঙ্গে স্কিনকে নারিশও করবে।


কয়েকটি প্রয়োজনীয় টিপস


holi-gulal


১। দোল খেলতে যাওয়ার আগে প্রচুর পরিমাণে জল খেয়ে নেবেন। প্রচুর পরিমাণে ফলের রস বা জুস খান। রোদে দোল (holi) খেলার সময় নিজেকে হাইড্রেটেড রাখতে হবে।


২। দোল (holi) খেলার সময় মুখে কোনও রকম চুলকানি-জ্বালা করলে মুখে ঠান্ডা জলের ঝাপটা দিন।


৩। সুতির ফুলহাতা জামাকাপড় পরে দোল খেললে স্কিনে (skin) রঙের দাগ হবে না।


ছবি সৌজন্যে: পিক্সঅ্যাবে


POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি এবং বাংলাতেও!