রাতে ঘুমোতে যাওয়ার আগে ঠিক কীরকম হওয়া উচিত আপনার স্কিন কেয়ার রুটিন

রাতে ঘুমোতে যাওয়ার আগে ঠিক কীরকম হওয়া উচিত আপনার স্কিন কেয়ার রুটিন

রাতে ঘুমোতে যাওয়ার আগে আয়নার সামনে বেশ কিছুক্ষণ কাটে গ্ল্যামারাস নৃত্যশিল্পী অনন্যার। ভাল করে মেকআপ তোলা থেকে শুরু করে নাইট ক্রিম লাগানো- এ সবের জন্য বেশ কিছুটা সময় কাটায়। প্রচণ্ড টায়ার্ড থাকলে অথবা ঘুম (Sleep) পেলেও এই রুটিনের কখনও নড়চড় হয় না। প্রায় রোজই শো না হলে কিছু না কিছু ইভেন্ট অ্যাটেন্ড করতে হয়। আর ভারী মেকআপটা তারই অঙ্গ। মাঝে অবশ্য ক্লান্তির জন্য রুটিনে নড়চড় হয়েছিল, তখন ওর স্কিনের যে-কে সেই অবস্থা। কেমন খসখসে হয়ে যাচ্ছিল মাখনের মতো স্কিন। ভয় পেয়ে শেষমেশ ত্বক বিশেষজ্ঞের কাছে গিয়ে রেহাই। তাঁর পরামর্শমতোই রোজ একটু সময় নিজের স্কিনকে (Skin Care) দেয় অনন্যা। তার পর থেকেই হারানো জৌলুস ফিরে পেতে থাকল ওর স্কিন (Skin)।


আসলে শুতে যাওয়ার আগে স্কিনকে (Skin Care) একটু সময় সকলেরই দেওয়া উচিত। সে ৫ মিনিটই হোক বা আধ ঘণ্টাই হোক। আপনি হয়তো সারা দিন অফিসে ব্যস্ত। রান্না সামলান। তাই হাড়ভাঙা খাটনির পর আর শরীর চলে না। শুতে না শুতেই একেবারে ঘুমের দেশে (Sleep)। তবে আমার মনে হয়, নিজের জন্য এইটুকু সময় বার করে নেওয়াই যায়। আর সেটা খুবই জরুরি। এতে আপনার স্কিনও হেলদি আর সুন্দর থাকবে। তো জেনে নিন, রাতে ঘুমোতে যাওয়ার আগে কী ভাবে নিজেকে প্যাম্পার (Skin Care) করবেন।


আরো পড়ুনঃ কিভাবে নেবেন এজিং স্কিনের নিয়মিত যত্ন


রাতে ঘুমোনোর আগে স্কিন কেয়ার রুটিন - Skin Care Routine Before Sleep In Bengali


নো মেকআপ - No Makeup


সারা দিন দৌড়াদৌড়ি বা অফিস যাওযার জন্য যেটুকু প্রসাধনী ব্যবহার করেন, সেটা ঘুমোতে (Sleep) যাওয়ার আগে ভাল করে পরিষ্কার করে নিতে হবে (Remove Makeup)। চোখের কাজল, বা আইলাইনার যেন না থাকে। অথবা ঠোঁটে হালকা লিপস্টিকও যেন লেগে না থাকে। না হলেই কিন্তু চোখের নানা রোগ এবং ঠোঁট শুষ্ক রুক্ষ হয়ে যাবে। মুখে বেস মেকআপ অথবা ফাউন্ডেশনটাও ভাল করে পরিষ্কার (Remove Makeup) করুন। পরিষ্কার করার পরে একটা ভাল ফেসওয়াশ দিয়ে মুখ ধুয়ে নিন।


হ্যান্ড ক্রিম - Hand Cream


handcream


সারা দিন এসি ঘরে বসে কি-বোর্ড পেটান। তাই আপনার হাতেরও যত্নের প্রয়োজন। আর এসিতে থাকার জন্য হাতের স্কিন শুষ্ক হয়ে যেতে থাকে। মনে রাখবেন, মুখের মতো আপনার হাতের স্কিনেরও (Skin Care) যত্নের প্রয়োজন রয়েছে। রোজ শুতে (Sleep) যাওয়ার আগে ইষদুষ্ণ গরম জলে একটা মাইল্ড সোপ দিয়ে হাত পরিষ্কার করে নিন। এ বার একটা নরম তোয়ালে দিয়ে হাত ভাল করে মুছে নিন। তার পর হাতে ময়েশ্চার প্রয়োজন। একটা ভারী কিন্তু চ্যাটচ্যাটে নয়, এমন একটা ক্রিম লাগিয়ে নিন। যেটা আপনার হাতকে গোটা রাত ময়েশ্চারাইজড রাখবে। সকালে উঠে দেখবেন, আপনার হাত নরম হয়েছে।


টোনার - Toner


টোনার কিন্তু ঘুমোতে যাওয়ার আগে মাস্ট। কারণ এটা আপনার স্কিনকে ব্যাকটেরিয়া বা জীবাণুর আক্রমণ থেকে বাঁচাতে সাহায্য করে। তা ছাড়াও এটা আপনার স্কিনের (Skin) ধুলো-ময়লা, অতিরিক্ত তেল পরিষ্কার করে। তো রাতে শুতে যাওয়ার আগে একটা তুলোর প্যাডে অল্প পরিমাণে টোনার নিন। এ বার হালকা হাতে মুখ আর ঘাড়ে ঘষতে থাকুন। সকালে ঘুম (Sleep) থেকে উঠে পরিবর্তনটা লক্ষ করতে পারবেন।


আরও পড়ুনঃ টোনার ব্যবহারের পদ্ধতি ও উপকারিতা


আই-ক্রিম - Eye Cream


মুখ-হাতের সঙ্গে চোখের যত্নও নেওয়া উচিত। সারা দিন কম অত্যাচার তো সহ্য করে না! কম্পিউটার বা ফোনের স্ক্রিনে তাকিয়ে থাকা, অথবা কিছু না কিছু পড়া- এতে চোখে ক্লান্তি আসে। চোখের তলায় কালিও পড়ে। তাই প্রথমে চোখের মেকআপ ভাল করে তুলতে হবে। আর সেটা করার জন্য দু’হাতের আঙুলে অল্প করে ভেসলিন নিয়ে চোখের পাতায় হালকা হাতে মাসাজ করুন। এ বার একটা ভেজা কটন প্যাড দিয়ে মেকআপ তুলে ফেলুন। এ ভাবে মেকআপ পরিষ্কার (Remove Makeup) হয়ে যাবে সহজেই। একটা আইক্রিম হালকা হাতে মাসাজ করুন। এটা আপনার চোখকে ময়েশ্চারাইজ করবে আর হাইড্রেটেড রাখবে। শুধু তা-ই নয়, বলিরেখা এবং ফাইন লাইন্স কমাতেও সাহায্য করবে আইক্রিম।


ফুট-ক্রিম - Foot Cream


foot cream


মুখ-হাতের সঙ্গে সঙ্গে পায়ের যত্নও মাস্ট। এটা আপনি এড়িয়ে যেতে পারবেন না। তাই ঘুমোতে যাওয়ার আগে একটু গরম জল করে একটা মাইল্ড শ্যাম্পু গরম জলে নিয়ে পা কিছুক্ষণ ডুবিয়ে বসুন। আরামও হবে, পায়ের ময়লাও সহজেই পরিষ্কার হয়ে যাবে। এ বার একটা নরম তোয়ালে দিয়ে পা ভাল করে মুছে শুকিয়ে নিন। এ বার পেট্রোলিয়াম জেলি বা ভাল কোনও ফুটক্রিম লাগিয়ে নিন। এই রুটিন ফলো করলে দেখবেন, আপনার পা নরম হয়ে উঠছে।


ছবি: ইউটিউব, পেক্সেলস


POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি এবং বাংলাতেও!


এগুলোও আপনি পড়তে পারেন


জানুন অ্যালোভেরা কিভাবে আমাদের সৌন্দর্য বৃদ্ধিতে সহায়তা করে


শরীর চাঙ্গা রাখতে ঠিক করুন স্লিপ পজিশন