পুরনোকে ভুলে এবার ঢুঁ মারো কলকাতার নতুন সব food street-এ!

পুরনোকে ভুলে এবার ঢুঁ মারো কলকাতার নতুন সব food street-এ!

কলকাতার (kolkata) স্ট্রিট ফুড নিয়ে কথা উঠলেই ডালহৌসি স্কোয়ার না ডেকার্স লেন, কোন জায়গার খাবার স্বাদের দিক থেকে এগিয়ে, তা নিয়ে বিতর্ক বেঁধে যেতে সময় লাগে না। কোনও কোনও সময় উঠে আসে পার্ক স্ট্রিটেরও নামও। কারণ কলকাতার এই অভিজাত এলাকাতেও রয়েছে নানান ধরনের রেঁস্তরা এবং বার। তবে দক্ষিণ কলকাতা যদিও এতদিন কলকাতার ফুড স্ট্রিটের (food street) তালিকায় সেভাবে জায়গা করে নিতে পারেনি। আর তা নিয়ে দক্ষিণ কলকাতার বাসিন্দাদের দুঃখ কম ছিল না। কারণ মুখরোচক খাবার খেতে গেলে সেই দক্ষিণ থেকে যেতে হত সেন্ট্রাল কলকাতা, নয়তো উত্তর কলকাতায় (street food)। মাঝে রাসবিহারী অ্যাভিনিউ ছিল বটে। কিন্তু ফুড স্ট্রিট হিসেবে সেভাবে নাম করে উঠতে পারেনি। তবে সে যুগ যে আর নেই, তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না। কারণ গত কয়েক বছরে রুবি হাসপাতালের আশেপাশের এলাকায় গজিয়ে উঠেছে নানান স্বাদের একের পর এক রেঁস্তোরা, যা কলকাতার ফুড স্ট্রিট মানচিত্রে যে একটা বড় রকমের বদল এনে দিয়েছে, তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না (Welcome to Kolkata’s new food streets)।


দক্ষিণের ফুড স্ট্রিট:


১. রুবি-গড়িয়াহাট কানেক্টার:





যদি ভেবে থাকো কেবল পার্ক স্ট্রিটেই পাওয়া যাক মুখরোচক সব খাবার, তাহলে ভুল ভাবছো! কারণ গড়িয়াহাটার মোড় থেকে রুবি পর্যন্ত একের পর এক ভিন্ন স্বাদের সব রেঁস্তোরা (restaurants) খুলে গেছে এই কয়েক বছরে, যেখানে বিরিয়ানি থেকে শুরু করে কাবাব, কী না পাওয়া যায়। আর যদি গলা ভেজাতে মন চায়, তাহলেও ক্ষতি নেই! কারণ এই এলাকায় পাবের সংখ্যাও কম নয়। আর যদি বাঙালি খাবার খেতে মন চায়, তাহলে সে ব্যবস্থাও রয়েছে। রয়েছে পাঞ্জাবি রাসোইয়ের মতো রেঁস্তোরাও (৯৮৩১০৩৫৬৬২), যেখানে খাঁটি পাঞ্জাবি সব পদ মেলে একেবারে পকেট ফ্রেন্ডলি রেটে। বিশেষত, মাটন মাখমলি কাবাব এবং পনির বাটার মশলার স্বাদ না ভোলার মতো। ঠিকানা ১৯৬, চক্রবর্তী পাড়া, রাজডাঙা,কসবা। দুজনের জন্য খরচ হবে কম-বেশি ৯০০ টাকা। আর যদি চাইনিজ ডেলিকেসি খেতে মন চায়, তাহলে অনায়াসে ঢুঁ মারতে পারো রেড ব্যাম্বু শুট রেঁস্তরায় (৯৮৬১০০৪২৪৩)। এখানকার চিলি চিকেন ফ্রাই খেতে মন্দ নয়। ঠিকানা,২২৫ রাজডাঙ্গা,নবপল্লি, কসবা। দুজনের জন্য এখানে খেতে খরচ হবে ৭০০-৮০০ টাকার মতো। এছাড়াও রয়েছে আরও বেশ কিছু খাবার হোটেল, যা বেশ ভালো। যেমন ধরো রয়্যাল জেড (২৪৪১৬৭৪০)। এখানকার মোমো এবং বাকি চাইনিজ পদগুলির স্বাদ কিন্তু বেশ খাসা কিন্তু! দুজনের জন্য খরচ পরবে ৬০০-৭০০ টাকা। ঠিকানা- ১২৮২,রাজডাঙা মেইন রোড, কসবা।


২. কালিকাপুর-আনোয়ার শাহ রোড কানেক্টার:


দক্ষিণ কলকাতার ফুড স্ট্রিট মানচিত্রের (food street) একেবারে উপরে দিকে যদি রুবি-গড়িয়াহাট কানেক্টার থাকে, তাহলে আনোয়ার শাহ রোডকে বাদ দেওয়াও সম্ভব নয়। কারণ যাদবপুর থানা থেকে কালিকাপুর হয়ে আনওয়ার শাহ রোড পর্যন্ত একাধিক নতুন খাবার হোাটেল (restaurants) খুলেছে, যাদের মধ্যে রয়েছে চাইনিজ, জাপানিজ, কন্টিনেন্টাল এবং আওয়াধি রেঁস্তরাও। আর যদি মাল্টি কন্টিনেন্টাল খাবার খেতে ইচ্ছা করে, তাহলে পৌঁছে যেতে পারো কলিকাপুরের "লা কোমিডা" রেঁস্তরায় (৮৫৮৪৮৬৭৬১৭)। এখানকার নন-ভেজ কম্বো কিন্তু বেশ মুখোরচক। তবে ইচ্ছা হলে অন্য কিছুও চেখে দেখতে পারেন। দুজনের জন্য খরচ হবে ৯০০-১১০০ টাকার মতো। ঠিকানা-১৯ই,ঝিল রোড, যাদবপুর থানার কাছে।


বিরিয়ানি প্রেমিদের জন্যও রয়েছে সুখবর। কারণ নানা স্বাদের বিরিয়ানি সার্ভ করছে শাম-ই-আওয়াধ রেঁস্তরা, যেখানকার মাটন হান্ডি বিরিয়ানি এবং মুর্গ বারওয়ান টাংরির মতো পদ ইতিমধ্যেই বেশ জনপ্রিয়তা লাভ করেছে। এছাড়াও রয়েছে হরেক রকমের কাবাব এবং আমিষ খাবার, যা চেখে দেখতে দুজনের জন্য খরচ হবে ৮০০-১০০০ টাকার মতো। ঠিকানা- প্রকৃতি বিল্ডিং, ১২৬ কালিকাপুর রোড, কালিকাপুর।


আমিষ খাবারের পরে অনেক বাঙালির আবার মিষ্টি না হলে চলে না। তাই যদি মিষ্টিমুখ করতে মন চায়, তাহলে যাদবপুর থানার কাছে ‘হিন্দুস্থান সুইটস’এ একবার পৌঁছে যেতে পারো। এখানকার দই এবং মিষ্টি কিন্তু বেশ নামকরা।


৩. শরৎ বোস রোড:







যারা কথায় কথায় পার্টি করতে ভালোবাসেন, তাদের জন্য শরৎ বোস রোড একেবারেই "আইডিয়াল ডেস্টিনেশন"। কারণ এই রাস্তার দুই ধারে যেমন রয়েছে একাধিক পাব এবং রেঁস্তরা (restaurants), তেমনি রয়েছে বেশ কয়েকটি নামী আইসক্রিম পার্লারও, যেমন ধরো হ্যাগেন ড্যাজ এবং পাবরাই। আর যদি শাওরমা রোল খেতে ইচ্ছে করে, তাহলে চলে আসতে পারো গো লেবানিজ, শাওরমা নেশান অথবা রয়্যাল লেবানিজের মতো রেঁস্তরায়।


গত কয়েক বছরে ইতালিয়ান খাবারের প্রতি বাঙালি ভোজনরসিকদের নাকি বেশ ঝোঁক বেড়েছে। তুমিও যদি তাদের একজন হও, তাহলে পৌঁছে যাও কর্নার কোর্টইয়ার্ড নামক রেঁস্তরায় (৯৯০৩৯৯০৫৯৭)। এখানকার প্রায় প্রতিটি পদই বেশ সুস্বাদু। দুজনের জন্য খরচ হবে কম-বেশি ১৫০০ টাকার মতো। ঠিকানা- ৯২বি, শরৎ বোস রোড, হাজরা, কলকাতা। এছাড়াও রয়েছে ফুজি (৯৮৩০০৪১৩৮৬)। এখানকার জাপানিজ খাবার কিন্তু ইতিমধ্যেই বেশ জনপ্রিয়তা পেয়েছে, যার স্বাদ নিতে দুজনের জন্য খরচ হবে ১৪০০ টাকার মতো। ঠিকানা- ২০৯ এ, শরৎ বোস রোড।


তাহলে কী বুঝলে! এবার থেকে কলকাতার ফুড স্ট্রিট নিয়ে যখনই তর্ক জমে উঠবে, তখন দক্ষিণ কলকাতার এই সব জায়গার নাম নিতে ভুলো না যেন!


ছবির কৃতজ্ঞতা স্বীকার-instagram


POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!