এই দু’রকম ভাবে পরে নিতে পারেন ঘাগরা স্টাইল শাড়ি (Ghagra style saree)

এই দু’রকম ভাবে পরে নিতে পারেন ঘাগরা স্টাইল শাড়ি (Ghagra style saree)

আর কয়েক দিনের মধ্যেই নতুন বছর পড়ে যাবে। আর বৈশাখ মাস মানেই তো আবার শুরু হয়ে যাবে বিয়ের মরসুম। তো এই প্যাচপ্যাচে গরমে (Summer) আর শাড়ি (Saree) পরতে ইচ্ছে করবে না। এই সময় খোলামেলা গাউন অথবা ঘাগরাই (Ghagra) আইডিয়াল। তবে ঘাগরার (Ghagra) সমস্যাটা হল বড্ড ভারী জমকালো। সে ক্ষেত্রে এই গরমে (Summer) ক্যারি করতেও অসুবিধা। তাই ঘাগরা স্টাইল শাড়ি (Ghagra style saree) ট্রাই করে দেখতে পারেন। আর এটা ফ্যাশনে ইনও। সব থেকে বড় কথা, আপনার ঘাগরা স্টাইল শাড়িই (Ghagra style saree) কিন্তু চর্চার বিষয় হবে! আসলে ঘাগরা স্টাইল শাড়ি (Ghagra style saree) অনেক রকম ভাবেই পরা যেতে পারে। আপনাদের সঙ্গে ২ রকম ভাবে শাড়ি পড়ার স্টাইল শেয়ার করব।


ghagra style saree


প্রথম স্টাইল


এই স্টাইলটা (Style) অনেকেরই পছন্দের। একটু সময় লাগলেও দারুণ একটা লুক আপনি পাবেন।


স্টেপ-১


এই স্টাইলটার জন্য ওয়্যার্ড্রোব থেকে আপনার পছন্দ মতো যে কোনও ২টো শাড়ি (Saree) বেছে নিন। কনট্রাস্ট কালারের সিল্ক শাড়ি হলে ভাল হয়। ধরুন আপনি ডার্ক গ্রিন আর অফ হোয়াইট বেছেছেন।


স্টেপ-২


এ বার ওই কনট্রাস্ট কালার শাড়ির সঙ্গে মানানসই পছন্দমতো ব্লাউজ অথবা ক্রপ টপ বেছে নিন। ব্লাউজ অথবা ক্রপ টপ  এবং পেটিকোট পরে নিন।


স্টেপ-৩


এর পর ঠিক করে নিন কোন রংটা ঘাগরা হিসেবে চাইছেন। ধরুন, ডার্ক গ্রিনটা আপনার ঘাগরা হিসেবে আর অফ হোয়াইটটা পাল্লুতে রাখতে চাইছেন।


স্টেপ-৪


প্রথমে শাড়িটার প্রথম প্রান্তটা পেটিকোটে গুঁজে নিন। এর পর ছোট্ট ছোট্ট প্লিট বানাতে থাকুন আর পেটিকোটে গুঁজতে থাকুন। গোঁজার পরে যে-ই আঁচলের অংশটা আসবে, তখন সেটাকে ভাঁজ করে নিয়ে কুচি করে গুঁজে নিন। এ ভাবে পুরো শাড়িটাকে পেটিকোটে গুঁজে নেওয়ায় শাড়িটা (Saree) ঘাগরার (Ghagra) ঘের তৈরি করছে।


স্টেপ-৫ 


এ বার অফ হোয়াইট শাড়িটার পালা। পাল্লু করার জন্য শাড়িটার আঁচলটা প্রথমে সরু আর সুন্দর করে প্লিট করে একটা সেফটিপিন আটকে নিন। এ বার আঁচলটাকে বাঁ কাঁধে ফেলে একটু ঝুলিয়ে নিন। সামনের অংশটা ঠিকঠাক সেট করে শাড়ির বাকি অংশটা টেনে পিছনের দিক থেকে দিয়ে ঘুরিয়ে কোমরের বাঁ পাশে নিয়ে আসুন। বাকি অংশটা বড় বলে ঘাবড়াবেন না!


স্টেপ-৬


এ বার বাকি অংশটা শাড়ির কুচি করার মতো করে কুচি করতে থাকুন, তবে শাড়ির শেষ প্রান্তের অল্প কিছুটা ছেড়ে দেবেন। কুচি করা হলে সেফটিপিন আটকে আপনার পিছনের দিকে ওই কুচিগুলো গুঁজে নিন।


স্টেপ-৭


তার পর যে অংশটা ছেড়ে রেখেছিলেন, সেই অংশটার শেষ প্রান্তটা থেকে ছোট ছোট প্লিট করে নিয়ে একটা সেফটিপিন আটকে বাঁ দিকের কোমরের কাছে গুঁজে নিন। ব্যস, রেডি আপনার ঘাগরা স্টাইল শাড়ি (Ghagra style saree)।


ghagra style saree draping


দ্বিতীয় স্টাইল


প্রথম স্টাইলটা একটু শক্ত অথবা সময়সাপেক্ষ মনে হলে এই স্টাইলটা ট্রাই করে দেখতে পারেন।


স্টেপ-১


এই স্টাইলটার জন্য ওয়্যার্ড্রোবের কোনও সিল্ক শাড়ি বেছে নিন। বেশি ডিজাইন না থাকলেই ভাল। আর তার সঙ্গে নিন একটা কনট্রাস্ট অথবা মানানসই রঙের বেনারসি দোপাট্টা।


স্টেপ-২


আগের মতোই মানানসই ব্লাউজ অথবা ক্রপ টপ  আর পেটিকোট পরে নিন।


স্টেপ-৩


এ বার শাড়ির প্রথম প্রান্তটা পেটিকোটে গুঁজে ফেলুন। এ বার ছোট ছোট প্লিট করে একটু ছড়িয়ে ছড়িয়ে নিয়ে গুঁজতে থাকুন। আঁচলের প্রান্তটা এলে প্রথম স্টাইলের (Style) মতোই ভাঁজ করে কুচি করে পেটিকোটে গুঁজে নিন। পুরো শাড়িটা (Saree) গোঁজা হলে ঘাগরার (Ghagra) মতো হয়ে যাবে।


স্টেপ-৪


এ বার বেনারসি দোপাট্টাটা আপনার পছন্দমতো স্টাইলে ড্রেপ করুন। এক দিকে করে নিতে পারেন অথবা গলায় জড়িয়ে দিতে পারেন। ব্যস! ঘাগরা স্টাইল শাড়ি পরা ডান!


ছবি সৌজন্যে: ইউটিউব ও ইনস্টাগ্রাম


POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি এবং বাংলাতেও!


এগুলোও আপনি পড়তে পারেন


বাজেটের মধ্যে শাড়ি কেনার জন্য এই অনলাইন সাইট গুলো বেস্ট