স্বাস্থ্যরক্ষায় আলুর উপকারিতা! (health benefits of potato juice)

স্বাস্থ্যরক্ষায় আলুর উপকারিতা! (health benefits of potato juice)

আকারে ছোট্ট, গোলগাল এই সবজিটিকে নিয়ে গুজবের শেষ নেই। কেউ বলে আলু খেলে নাকি মেদ বাড়ে। আবার কিছু কিছু রোগ হলে তো আলু (potato) খাওয়ার উপর নিষেধাজ্ঞা জারি হয়ে যায়। কিন্তু মজার বিষয় কি জানেন, আলু খেলে না মেদ বাড়ে না শরীর খারাপ হয়। বরং আলু সেদ্ধ বা আলুর রস খাওয়া শুরু করলে তো নানা রকমের শারীরিক উপকার পাওয়া যায়, যা বলে শেষ করা যাবে না (health benefits of potato juice)।


আলুতে (potato juice) রয়েছে ভিটামিন বি, সি, পটাশিয়াম, ক্যালসিয়াম, আয়রন,ফসফরাস এবং কপার, যা শরীরে প্রবেশ করার পর এমন খেল দেখায় যে একাধিক রোগ ধারে কাছেও ঘেঁষতে পারে না। আর যদি আলুর রস খাওয়ার পাশাপাশি তা মুখে লাগাতে পারেন, তাহলে তো কথাই নেই। কারণ বিশেষজ্ঞদের মতে নিয়মিত আলুর রস দিয়ে ত্বকের পরিচর্যা করলে ত্বকের সৌন্দর্য তো বাড়েই, সেই সঙ্গে এগজিমার মতো স্কিন ডিজিজের প্রকোপ কমতেও সময় লাগে না। শুধু তাই নয়, মেলে আরও অনেক ধরনের উপকার।


আরও পড়ুনঃ লাউয়ের জুসের উপকারিতা


শরীরকে সুস্থ রাখতে ভরসা রাখুন আলুর উপরে:


১. রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ে :


po-1
বেশ কিছু গবেষণার পর একথা জলের মতো পরিষ্কার হয়ে গেছে যে নিয়মিত এক গ্লাস করে আলুর রস খাওয়া শুরু করলে শরীরে ভিটামিন সি-এর মাত্রা বদ্ধি পেতে শুরু করে, যার প্রভাবে দেহের ইমিউনিটি এতটাই বেড়ে যায় যে ছোট-বড় কোনও রোগই ধারে কাছে ঘেঁষতে পারে না। সেই সঙ্গে নানাবিধ সংক্রমণে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কাও যায় কমে।


২. বাতের ব্যথা কমে:


po-2
আলুতে উপস্থিত অ্যান্টি-ইনফ্লেমেটরি উপাদান শরীরে প্রবেশ করার পর দেহে ইতি-উতি সৃষ্টি হওয়া প্রদাহকে কমিয়ে ফেলে। ফলে স্বাভাবিকভাবেই যে কোনও ধরণের যন্ত্রণা, বিশেষত বাতের কষ্ট কমতে একেবারেই সময় লাগে না। তাই তো যারা মাঝে মধ্যেই পিঠের এবং কোমরের যন্ত্রণায় কাবু হয়ে পরেন, তাদের রোজের ডায়েটে আলুর রস থাকা মাস্ট (potato juice and body pain)!


৩. লিভারের ক্ষমতা বাড়ে:


po-3
লিভারে জমতে থাকা ক্ষতিকর উপাদানেরা শরীর থেকে বেরিয়ে যাক, এমনটা যদি চান, তাহলে প্রতিদিন এক গ্লাস করে আলুর রস খেতে ভুলবেন না যেন! কারণ লিভার এবং গলব্লাডারকে ডিটক্সিফাই করতে এই প্রাকৃতিক উপাদানটির কোনও বিকল্প হয় না বললেই চলে। শুধু তাই নয়, হেপাটাইটিসের মতো রোগকে দূরে রাখতেও আলুর রস নানাভাবে সাহায্য করে থাকে (potato juice for liver)।


৪. খারাপ কোলেস্টেরলের মাত্রা কমে:


po-4
আলুর রসে উপস্থিত ফাইবার, ভিটামিন এ, বি কমপ্লেক্স এবং সি, রক্তে মিশে যাওয়া মাত্র শরীরে উপস্থিত খারাপ কোলেস্টেরলের মাত্রাকে কমাতে শুরু করে। ফলে স্বাভাবিকভাবেই নানাবিধ হার্টের রোগে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা প্রায় থাকে না বললেই চলে। আমাদের দেশে যে হারে হার্টের রোগ বাড়ছে, তাতে সবারই যে নিয়মিত আলুর রস খাওয়ার প্রয়োজন রয়েছে, সে বিষয়ে কোনও সন্দেহ নেই!


৫. ক্যান্সার দূরে থাকে:


po-5
একেবারে ঠিক শুনেছেন! বাস্তবিকই ক্যান্সারের মতো মারণ রোগকে দূরে রাখতে এই বানান প্রাকৃতিক উপাদানটির কোনও বিকল্প হয় না বললেই চলে (potato juice cancer)। আসলে আলুতে উপস্থিত "গ্লাইকোয়াল্যকালয়েড" নামক উপাদান শরীরে উপস্থিত ক্যান্সার সেল ধ্বংস করে দেয়। ফলে এমন ভয়ঙ্কর রোগে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা প্রায় থাকে না বললেই চলে। এবার বুঝেছেন নিশ্চয়ই নিয়মিত আলুর রস খাওয়ার প্রয়োজনীয়তা কতটা!


৬. ওজন কমায়:


po-6
আলু খেলে ওজন বাড়ে, এই ধরণাটি একেবারেই ঠিক নয়। কারণ গবেষণা বলছে এই সবজিটির সঙ্গে ওজন বদ্ধির কোনও সম্পর্কই নেই। বরং নিয়মিত আলুর রস বা সেদ্ধ আলু খাওয়া শুরু করলে শরীরে ভিটামিন সি-এর মাত্রা বদ্ধি পায়, যা মেটাবলিজম রেটকে বাড়িয়ে তোলে। সেই সঙ্গে এমন কিছু হরমোনের ক্ষরণ হতে শুরু করে যে তার প্রভাবে খিদে কমে যায়। একদিকে খিদে কমে যাওয়া, অন্য়দিকে হজম ক্ষমতার বৃদ্ধি। এই দুই কারণে অতিরিক্ত মেদ ঝরে যেতে একেবারেই সময় লাগে না। তবে আলুর রস খাওয়া শুরু করার আগে একবার চিকিৎসকের সঙ্গে পরামর্শ করে নিতে ভুলবেন না যেন!


এক্ষেত্রে একটা জিনিস জেনে রাখা উচিত যে আলু সেদ্ধর পরিবর্তে যদি আলু ভাজা খাওয়া হয়, তাহলেই কিন্তু ওজন বাড়ার ভয় থাকে। না হলে ওজন বৃদ্ধি আর আলুর মধ্যে কোনও সম্পর্ক নেই বললেই চলে!


POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!