প্রধানমন্ত্রী হতে পারলে কাকে কোন দপ্তর দিতেন করণ জোহর? কপিল শর্মার প্রশ্নে করণের সুপার সিক্সার জবাব!

প্রধানমন্ত্রী হতে পারলে কাকে কোন দপ্তর দিতেন করণ জোহর? কপিল শর্মার প্রশ্নে করণের সুপার সিক্সার জবাব!

পরিচালক ও প্রযোজক হিসেবে করণ জোহরের (Karan Johar) দক্ষতা ও সাফল্য প্রশ্নাতীত। তিনি যে শুধু একজন ভালো পরিচালক ও প্রযোজক নয়, একজন সত্যিকারের জহুরিও বটে তার প্রমাণও তিনি দিয়েছেন বহুবার। বহু প্রতিভাবান তারকাকে খুঁজে বের করে নিজের ছবিতে তাদের চান্স দিয়েছেন তিনি। দুই সন্তানের বাবা করণ (Karan Johar) এইসব তরুন তারকাদেরও প্রায় পিতৃস্নেহ দিয়ে থাকেন। তার বহুচর্চিত এবং জনপ্রিয় অনুষ্ঠান ‘কফি উইথ করণ’ এ আসার জন্য বহু সুপারস্টার হা পিত্যেশ করে বসে থাকেন। আর এই শো দেখলে বোঝা যায়, করণের বুদ্ধিমত্তা আর রসবোধের দৌড় ঠিক কতখানি। আর শুধু নিজের শোতেই যে তার মৌরসিপাট্টা তা নয়, অন্যের প্রোগ্রামে এসেও সঞ্চালককে রীতিমতো থতমত খাইয়ে দিলেন তিনি। করণের শোয়ের মতো আরও একটি জনপ্রিয় শো হোল কপিল শর্মার (Kapil Sharma) অনুষ্ঠান। অনেকেই জানেন কথার প্যাঁচে কপিলের  সঙ্গে পেরে ওঠা খুব সহজ নয়। কিন্তু তাকেও নাকানি চোবানি খাইয়ে দিলেন করণ। আসল কথায় আসি। কপিলের শোয়ে অতিথি হয়ে এসেছিলেন কাজল ও করণ জোহর। ভোটের মরসুম বলে কথা। তাই কপিল আচমকা প্রশ্ন করে বসেন করণকে তিনি যদি প্রধানমন্ত্রী হন তাহলে কোন তারকাকে কোন দপ্তর দেবেন। করণের উত্তর শুনে চোখ কপালে উঠল কপিলের আর হেসে কুটোপাটি হলেন কাজল, অর্চনা পূরণ সিং আর দর্শকরা। আপনারাও এই মজা থেকে বাদ পড়বেন কেন? দেখুন কি বললেন করণ।


কাকে দেবেন স্বাস্থ্য দপ্তর?


akshay kumar


প্রশ্ন শেষ হওয়ার আগেই করণের উত্তর অক্ষয় কুমার। করণ বললেন, অক্ষয়কুমার ফিটনেস নিয়ে পাগল। অরগ্যানিক খাবার ছাড়া উনি কিছু খান না। বিগত ২০ বছর ধরে নুন খান না, ভোর ছ’টায় উঠে পড়েন। এহেন মানুষকে স্বাস্থ্য ছাড়া আর কোন দপ্তর দেওয়া যায়!


সোশ্যাল মিডিয়া মন্ত্রী


varun


যদিও এরকম কোনও মন্ত্রক নেই তবু করণ প্রধানমন্ত্রী হলে এই দপ্তর যেত বরুন ধাওয়ানের হাতে! অন্য তারকাদের যেমন সোশ্যাল মিডিয়া ম্যানেজার থাকে সেসবের ধার ধারেন না বরুণ। সকাল থেকে উঠে তিনি পোস্ট করে জান সোশ্যাল মিডিয়ায় তাও গাদা গুচ্ছের ভুল বানান সহ! কাজলের হাসি আর থামতেই চায় না যখন করণ বললেন এই ভুলভাল বানান দেখেই তিনি ধরে ফেলেন সব কটা পোস্ট বরুণ নিজেই করেছেন!


গসিপ মন্ত্রী?


kareena lips


জানেন কোন তারকা সকালে উঠেই বাকিদের ফোন করে গসিপের খোঁজ করেন? আমাদের বেগম করিনা! হ্যাঁ, করণ রীতিমতো হাটে হাঁড়ি ভেঙে দিলেন। বললেন মুম্বাইতে করিনার বাড়ি হচ্ছে গসিপ তৈরির কারখানা। বেবো সকালবেলা উঠেও সবাইকে ফোন করে খবর যোগাড় করেন। তারপর করণকে ফোন করে জানতে চান যেগুলো তিনি শুনেছেন সেগুলো সত্যি কিনা!


তথ্য সম্প্রচার মন্ত্রক


ranbir


করণের অকপট স্বীকারোক্তি, করিনা যদি খবর যোগাড় করায় ওস্তাদ হন তাহলে সেই খবর দেয় কে জানেন? আর কেউ না তার নিজের খুড়তুতো ভাই রণবীর কাপুর! খবর ছড়িয়ে দিতে সিদ্ধহস্ত রণবীর! করণ জানালেন কেউ যদি রণবীরকে বলে যে পৃথিবী গোল নয় চৌকো, সেই খবর তিনি এত ছড়াবেন পরের দিন সেটা খবরে কাগজের হেডলাইন হয়ে যাবে।


ফ্যাশন মন্ত্রক


sonam thinking


এক কথায় জবাব এল এই দায়িত্ব পাবেন সোনাম কাপুর। করণ নিজেই হেসে খুন হয়ে বললেন সোনাম নাকি এমনভাবে ফ্যাশন ছড়িয়েছেন যে আজকাল করণের সবাইকে লাল কার্পেট মনে হয়!


এতকিছু অন্যরা করলে করণ নিজে কি করবেন? ‘কুছ কুছ হোতা হ্যায়’ ছবির পরিচালকের সোজা সাপটা উত্তর, আমি পার্টি অরগানাইজ করতে পারি, মন্ত্রী হলে ওটাই বেছে নিতাম!


 


POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!