ছেলেদের কাছে Romanticism মানে কিন্তু অন্য কিছু !

ছেলেদের কাছে Romanticism মানে কিন্তু অন্য কিছু !

একজন ছেলে এবং মেয়ের মানসিকতা এবং ভাবনা-চিন্তা যে আলাদা হবে, তা তো বলাই বাহুল্য। আর এই কারণেই একজন মেয়ের কাছে যা রোমান্টিক, তা একজন ছেলের কাছে রোমান্টিক (romantic) নাও লাগতে পারে। কিন্তু তাই বলে ছেলেরা একেবারেই রোমান্টিক হয় না, এই ধরণা কিন্তু একেবারেই ভুল। বরং ছেলেরা ততটাই রোমান্টিক হয়, যতটা মেয়েরা। শুধু ছেলেদের কাছে রোমান্টিসিজমের মানেটা আলাদা হয় (These Things Guys Actually Find Romantic)।


ছেলেরা যে যে জিনিসগুলিকে রোমান্টিক বলে মনে করেন সেগুলি হল:


১. একসঙ্গে আচেনা কোথায় ঘুরতে যাওয়া ছেলেদের কাছে বেজায় রোমান্টিক:


ro-1
প্রেমিকার হাত ধরে অচেনা পাহাড়ি পথে হারিয়ে যাওয়ার মধ্যে রোমান্টিকতা খুঁজে পান অনেকে। তাই তো আপনার প্রেমিক যদি আপনার মাপকাঠিতে রোমান্টিক নাও হন, কিন্তু সে যদি আপনার সঙ্গে একের পর এক জায়গা ঘুরতে যাওয়ার প্ল্যান বানান, তাহলে জানবেন রোমান্টিসিজমের (Romanticism) দিক থেকে আপনার প্রেমিক আপনার থেকে কোনও অংশে পিছিয়ে নেই। তাই এমন উদ্যোগে তাকে উৎসাহ দিন। ট্র্যাভেল প্ল্যান করতে তাকে সাহায্য করুন, দেখবেন এমনটা করলে আপনাদের সম্পর্ক আরও বেশি রোমান্টিক হয়ে উঠবে (how to be romantic to a guy)।


২. প্রেমিকের পছন্দই নিজের পছন্দ:


re-2
এমন অনেক ছোট ছোট বিষয় আছে, যা অনেক প্রেমিকাই হয়তো নজরে রাখেন না। কিন্তু একজন ছেলের কাছে হয়তো সেটাই বেজায় রোমান্টিক! যেমন ধরুন আপনার প্রেমিক কেকেআর-এর ম্যাচ দেখছে, আর আপনিও তার সঙ্গে বসে জমিয়ে বিয়ার পান করতে করতে খেলা উপভোগ করছেন, এমন মুহূর্ত কিন্তু ছেলেরা দারুন উপভোগ করেন। সহজ কথায় বললে আপনার প্রেমিকের পছন্দের কোনও জিনিসে যদি কোনও কোনও সময় আপনিও আগ্রহ প্রকাশ করেন, তাহলে কিন্তু সম্পর্ক আরও রোমান্টিক হয়ে ওঠে (romantic things to do for your boyfriend)।


৩. ডাক নামে ডাকেন তো?


ro-3
বেশিরভাগ প্রেমিকই চান তার প্রেমিকা তাকে কোনও বিশেষ নামে ডাকুক। আর আপনি যদি এমনটাই করে থাকেন, তাহলে তো কথাই নেই! কারণ এমন ক্ষেত্রে প্রেমিকের মন যে বেজায় আনন্দে ভরে ওঠে, তা কিন্তু হলফ করে বলা যেতে পারে। কারণ ছেলেরা যে এমন ছোট ছোট জিনিসেই যে বিশেষ গুরুত্ব দিয়ে থাকেন। তবে এখানেই শেষ নয়, রাস্তা পার হওয়ার সময় হাত ধরলে অথবা রাস্তা দিয়ে গল্প করতে করতে যাওয়ার সময় আলতো করে আঙুল ছোঁয়ার মতো বিষয়গুলির মধ্যেও কিন্তু ছেলেদের রোমান্টিক অনুভূতি লুকিয়ে থাকে। তাই এবার থেকে এই ছোট ছোট বিষয়গুলি নজরে রাখতে ভুলবেন না যেন!


৪. যতটা সম্ভব উৎসাহ দিন:


re-4
কর্মক্ষেত্র থেকে পারিবারিক জীবন, যে কোনও ক্ষেত্রেই আপনার প্রেমিক আগ্রহ নিয়ে যাই করুন না কেন, তাতে উৎসাহ দিন। কারণ ছেলেরা তার ভালোবাসার মানুষের কাছ থেকে এমন সাপোর্টই তো প্রত্যাশা করেন। আর এমন আপাত তুচ্ছ জিনিসই কিন্তু তাদের কাছে বেজায় রোমান্টিক। তাই কোনও পরিস্থিতিতেই প্রেমিকের হাত ছাড়বেন না যেন! বরং সুযোগ পেলেই তাকে ভরসা দেবেন, পাশে থাকবেন। দেখবেন এমনটা করলে আপনাদের সম্পর্কে (relationship) ভালোবাসার কোনও দিন অভাব হবে না।


৫. কী পোশাক পরেছেন তাও কিন্তু কম গরুত্বপূর্ণ নয়:


ro-5
ধরুন আপনার প্রেমিকের লাল রং বেজায় পছন্দের। কিন্তু এই রংটা আপনার একেবারেই ভালো লাগে না। কিন্তু শুধুমাত্র আপনার ভালোবাসার মানুষটির কথা ভেবে বিশেষ কোনও দিনে আপনি লাল কোনও পোষাক পরার সিদ্ধান্ত নিলেন। এমন ভবনাকে কিন্তু ছেলেরা খুব কদর করেন। কারণ আপনি আপনার প্রেমিকের কথা ভেবে নিজের পছন্দের বাইরে গিয়ে কাজ করছেন, এমন ভবনাকে কিন্তু পুরুষেরা বেজায় রোমান্টিক বলে বিবেচিত করে থাকেন।


৬. জীবনের অংশ করে তুলুন:


ro-6
ভালোবাসা এমন এক অনুভূতি যা শুধু নিজের মধ্যে রাখতে কারও ভালো লাগে না। কতক্ষণে সারা দুনিয়া এই সম্পর্কের কথা জানবে, সেই চেষ্টাই প্রেমিকেরা সারাক্ষণ করে থাকে। তাই তো যে মুহূর্তে প্রেমিকা তার পরিবারের সদস্যদের বা সঙ্গী-সাথীদের নিজের ভালোবাসার মানুষটার কথা বলেন, অমনি আনন্দে ভরে ওঠে প্রেমিকের মন। কারণ ছেলেদের কাছে এটাই তো রোমান্টিসিজম।


POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!


এগুলোও আপনি পড়তে পারেন


রোমান্টিক ডায়লগ শুধুমাত্র ভালোবাসার মানুষটির জন্য