Heat rash বা ঘামাচির হাত থেকে মুক্তি পাওয়ার ঘরোয়া টোটকা

Heat rash বা ঘামাচির হাত থেকে মুক্তি পাওয়ার ঘরোয়া টোটকা

যেরকম গরম পড়েছে, মনে হচ্ছে, ফ্রিজ থেকে বের করা আইসক্রিমের মতো গলে যাব! পাখা, এসি, কুলার সবকিছু একসঙ্গে ডাহা ফেল করে যাচ্ছে! স্বস্তি মিলছে না একদম। কিন্তু পাপী পেটের জন্য তো আর গরম বলে ঘরে বসে থাকা যায় না। স্কুল-কলেজে না হয় গরমের ছুটি বলে একটি দুর্লভ বস্তু আছে। অফিসে তো আর সেটি নেই। তা ছাড়া ব্যাঙ্ক, পোস্ট অফিস হ্যান-ত্যান নানা কাজে বাইরে তো বেরতেই হয়। আর বাইরে বেরলেই সূর্যের প্রবল দাপটে সারা শরীরে একগাদা হিট র‍্যাশ (heat rash), ঘামাচি (prickly heat), চুলকানি, জ্বালা, এসব হবেই। খুবই সামান্য ব্যাপার। সেরেও যে যাবে না, তা নয়। কিন্তু বড়ই অস্বস্তিদায়ক আর বিরক্তিকর। তাই আমরা নিয়ে এসেছি কয়েকটি সহজ ঘরোয়া সমাধান (home remedies), যার মাধ্যমে আপনি হিট র‍্যাশ (heat rash) বা ঘামাচির (prickly heat) হাত থেকে সহজে মুক্তি পেতে পারবেন এই গরমে।


কেন হয় হিট র‍্যাশ?


sunscreen


যখন ত্বকের স্বেদ গ্রন্থি বা ঘাম বেরনোর রাস্তা বন্ধ হয়ে যায়, তখন ঘাম ত্বকের উপরিভাগে এসে বাষ্পীভূত হতে পারে না। সেই ঘামই ত্বকের উপর জমে গিয়ে হিট র‍্যাশ তৈরি করে।


মনে রাখবেন


ঘরোয়া টোটকা জানার আগে কয়েকটা কথা বলা প্রয়োজন। হিট র‍্যাশ বা ঘামাচি দূর করার যে পাউডার, লোশন বা ক্রিম আছে, সেগুলোর মধ্যে কয়েকটা শুধু শরীর ঠান্ডা করে, কয়েকটা আবার জ্বালা বা চুলকানি কমায়। সুতরাং, এরকম কিছু কিনলে দেখে নেবেন, যে সেই প্রোডাক্ট আদতে কোন কাজটা করছে। দ্বিতীয় কথা হচ্ছে, ঘামাচি হলে একদম নখ দিয়ে চুলকাবেন না। এতে সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ার আশঙ্কা থাকে।


ঘরোয়া টোটকা


হিট র‍্যাশ বা ঘামাচি যাতে না হয় বা কম হয়, তার জন্য প্রথমেই এই পাঁচটি পন্থা অবলম্বন করা উচিত।


১) যতটা সম্ভব ঠান্ডা ঘরে, যেখানে পাখা, এসি বা কুলার চলছে, সেখানে থাকুন। ঘরে যদি বেশি আলো আসে, পর্দা টেনে ঘর ছায়া-ছায়া করে রাখুন।


২) সারা দিন যত পারেন জল পান করুন। কোল্ড ড্রিঙ্কস নয়, ডাবের জল, নুন-চিনির শরবত, ইলেকট্রল বা ওআরএস পান করুন।


৩) ফ্যাশন কনশাস থাকুন, তবে একগাদা লেয়ারিং পোশাক একদম নয়। এইসময় সুতির পোশাক পরাই বুদ্ধিমানের কাজ।


৪) বাড়িতে থাকলে এবং বাইরে থেকে এসে একটু বসেই ঠান্ডা জলে স্নান করুন। একাধিক বার স্নান করতে পারেন, কোনও অসুবিধে নেই তাতে।


৫) কড়া গন্ধযুক্ত ট্যালকম পাউডার ব্যবহার করবেন না।


আরও পড়ুন ঋতুস্রাবের সময় পেট ও কোমর ব্যথা দূর করার ঘরোয়া উপায় 


আরও পড়ুন গলা, বুক জ্বালা আর অম্বল দূর করার ঘরোয়া উপায় 


এছাড়াও যে ঘরোয়া টোটকা আছে


বরফের ছোঁওয়া


ice cubes


বাইরে বেরলে একটা টাওয়েল রুমালে বরফের টুকরো মুড়ে নিয়ে বেরোন। সেটা মাঝে-মাঝে মুখে ঘষুন। তাতেই যে ঘামাচি বা হিট র‍্যাশ সেরে যাবে, সেটা বলছি না। কিন্তু জ্বালা থেকে আরাম পাবেন। যদি বেশ কিছুক্ষণ বাইরে থাকতে হয় তা হলে আইস বক্সও ক্যারি করতে পারেন।


ওটমিলের জাদু


oatmeal


ঘামাচি হলে যে জ্বালা বা চুলকানি হয়, সেটা কমিয়ে দেওয়ার ক্ষমতা রাখে ওটমিল। তার জন্য আপনাকে নাতিশীতোষ্ণ স্নানের জলে ১ থেকে ২ কাপ ওটমিল ভিজিয়ে রাখতে হবে ২০ মিনিট। জল একদম ঠান্ডা হলে সেই জলে স্নান করুন। ওটমিল বেটে করে মুখে বা শরীরে যেখানে হিট র‍্যাশ হয়েছে সেখানে লাগাতে পারেন।


To Buy Oatmeal Click Here 


চন্দনের প্রলেপ


chandan powder


ত্বকের জ্বালা আর চুলকানি বন্ধ করতে যুগ-যুগ ধরে ভারতবর্ষে চন্দনের ব্যবহার চলে আসছে। চন্দন পাউডার জলে মিশিয়ে প্রলেপ তৈরি করে লাগান। যদিও চন্দনে অ্যালার্জি হওয়ার আশঙ্কা নেই বললেই চলে, তবে তাও একবার প্যাচ টেস্ট করে নেবেন।


To Buy Chandan Powder Click Here 


বেকিং সোডা


baking soda


ঘামাচি থেকে যে চুলকানি হয়, সেটা কমাতে পারে বেকিং সোডা বা সোডিয়াম বাই কার্বনেট। স্নানের জলে ২ থেকে তিন চামচ সোডা মিশিয়ে স্নান করুন।


To Buy Baking Soda Click Here 


অ্যালো ভেরা জেল


aloe vera


অ্যালো ভেরা বা ঘৃতকুমারীর মধ্যে আছে সেই গুণ, যা ত্বকের জ্বালা কমায় ও সংক্রমণ রোধ করে। যেখানে হিট র‍্যাশ হয়েছে সেখানে সরাসরি লাগাতে পারেন এই জেল।


To Buy AloeVera Gel Click Here 


নিমের কোনও তুলনা নেই


neem leaves


একদম তাই! স্নানের জলে নিমপাতা দিয়ে স্নান করুন। বা নিমপাতা ফুটিয়ে সেই জল স্নানের জলে মিশিয়ে স্নান করুন আরাম পাবেন। নিমপাতা বেটে পেস্ট করেও ঘামাচিতে লাগাতে পারেন। নিমের কুলিং এফেক্ট আর অ্যান্টিসেপটিক গুণ কাজে দেবে।


To Buy Neem Face Pack Click Here 


ক্যালামাইন লোশন ও এপসাম সল্ট


এই জাতীয় লোশনে থাকে জিঙ্ক অক্সাইড, যা হিট র‍্যাশ বা ঘামাচি কমিয়ে দেয়। এছাড়াও স্নানের জলে এপসাম সল্ট মিশিয়ে স্নান করলেও ঘামাচি কমে। তবে ভুলেও এই জল খেয়ে ফেলবেন না! এপসম সল্ট একটি স্বাভাবিক ল্যাক্সেটিভ। ফলে পেট খারাপ হতে পারে।     


POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!


আপনি যদি রংচঙে, মিষ্টি জিনিস কিনতে পছন্দ করেন, তা হলে POPxo Shop-এর কালেকশনে ঢুঁ মারুন। এখানে পাবেন মজার-মজার সব কফি মগ, মোবাইল কভার, কুশন, ল্যাপটপ স্লিভ ও আরও অনেক কিছু!