বাস্তুর এই টিপসগুলি মাথায় রেখে সন্তানের ঘর সাজান

বাস্তুর এই টিপসগুলি মাথায় রেখে সন্তানের ঘর সাজান

নিজ হাতে গড়া মোর খাসা এই বাসা! নিজের বাড়ি নিয়ে আমাদের গর্বের শেষ থাকে না। যতই ছোট হোক না কেন, নিজের বাড়ি, নিজের ঘরের একটা আলাদা সুখ আছে। বাড়ি তৈরি হওয়ার পর, কত সাধ করে বিভিন্ন জায়গা থেকে ঘর সাজাবার সামগ্রী খুঁজে আনি আমরা। দেওয়ালের রং কীরকম হবে, সেই নিয়ে রাতের পর রাত তর্ক চলে। কিন্তু এসবের মধ্যে আরও একটি গুরুত্বপূর্ণ বিষয় থাকে, সেটি হল বাস্তু (vastu)। অনেকে মানেন, অনেকে মানেন না। কিন্তু কিছু জিনিসের কিছু ইতিবাচক প্রভাব থাকে, যা অস্বীকার করা যায় না। বিশেষ করে নিজের সন্তানদের (child) ঘর সাজানোর সময় আমাদের একটু বেশি সতর্ক থাকা উচিত। কারণ, তাদের সামনে রয়েছে সোনালি ভবিষ্যৎ। পরিবারের সেই সব খুদে (child) সদস্যদের কথা ভেবেই আমরা নিয়ে এসেছি এমন কয়েকটি বাস্তু (vastu) পরামর্শ (tips), যেগুলি অনুসরণ করে ঘর সাজালে আপনি ভাল ফল পাবেন।


মূল বিষয়ে যাওয়ার আগে কয়েকটি তথ্য জেনে নেওয়া প্রয়োজন


বাস্তু শাস্ত্র আসলে কী?


‘বাস্তু’ অর্থাৎ আপনি যেখানে বাস করেন। প্রকৃতির যা-যা উপাদান আছে, অর্থাৎ অগ্নি, বায়ু, আকাশ, জল ও মাটি ইত্যাদির মধ্যে সমণ্বয় গড়ে তার পজিটিভ এনার্জি ছড়িয়ে দেওয়ার যে বিদ্যা, তাকেই বাস্তুশাস্ত্র বলে।


কোথায় এর কথা লেখা আছে?


বাস্তুশাত্রের কথা লেখা আছে অথর্ব বেদের একটি অংশে। যেখানে স্থাপত্যবিদ্যার কথা বলা আছে। এছাড়াও বৃহৎসংহিতা, রামায়ণ ও মহাভারতেও এর উল্লেখ আছে।


সন্তানের ঘরে কীভাবে মেনে চলব বাস্তু?


most-effective-vastu-tips-for-childrens-room 4


সন্তানের ঘর সাজানোর সময় তার দেওয়ালের রং নীল নাকি গোলাপি হবে, এই নিয়ে তর্কের চেয়ে অনেক বেশি গুরুত্বপূর্ণ হল কয়েকটি বিষয়। যেমন...


কোন দিকে এই ঘর থাকবে


সাধারণত ছেলে মেয়েদের ঘর উত্তর পূর্ব, পূর্ব বা উত্তর পশ্চিমে হলে ভাল হয়। দক্ষিণ পূর্বেও ঘর হলে ভাল হয়, তবে দক্ষিণ বা দক্ষিণ পূর্বে ঘর রাখবেন না, এতে নেগেটিভ এনার্জি প্রবেশ করে।


বিছানা কোন দিকে থাকবে


ঘরের পূর্ব-পশ্চিম রেখা বরাবর খাট বা বিছানা রাখবেন। খেয়াল রাখবেন, সন্তান যেন পূর্ব দিকে মাথা রেখে শোয়।  


পড়ার টেবিল কোথায় থাকবে


টেবিল এমনভাবে থাকবে, যাতে পড়াশোনা করার সময় সন্তানের মুখ পূর্ব দিকে অর্থাৎ যেদিকে সূর্য ওঠে সেদিকে হয়। যদি বুক শেলফ থাকে, তা হলে সেটা পড়ার টেবিলের পাশে রাখবেন।


দেওয়ালের রং কীরকম রাখবেন


বাস্তু অনুযায়ী সন্তানের ঘরের দেওয়ালের রং হওয়া উচিত সাদা, হালকা নীল, হালকা গোলাপি বা হালকা সবুজ। একটু ঘন রং চাইলে লেবুপাতার রং বা ক্রিমি অরেঞ্জও ভাল। এই জাতীয় রঙ চোখ আর মনের শান্তি নিয়ে আসবে। সন্তান পড়াশোনায় মনোযোগ দিতে পারবে।


পর্দার রং


যদি সন্তানের ঘর উত্তর পূর্বে অবস্থিত হয়, তা হলে বেগুনি রংয়ের পর্দা রাখবেন। অন্য কোনও দিকে ঘর হলে হালকা সবুজ বা হালকা নীল পর্দা টাঙিয়ে দিন। এই রঙগুলি আলো প্রতিফলন করে ঘরে উজ্জ্বলতা নিয়ে আসে। এতে নেগেটিভিটি দূর হয় এবং মনে শান্তি আসে।


আরও কয়েকটি জরুরি তথ্য


১) ঘরের দরজা যেন বিছানার উল্টো দিকে না হয়।


২) আসবাবপত্র দেওয়াল থেকে তিন ইঞ্চি জায়গা ছেড়ে রাখবেন।


৩) ঘরে কোনও বড় আয়না না রাখাই ভাল। আর যদি আয়না থাকে, তা হলে সেটা বিছানার সামনে রাখবেন না।


৪) পড়ার টেবিল, বিছানা ও আলমারি যেন অগোছালো না হয়। এতে নেগেটিভ এনার্জি আসে।


 


POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!


আপনি যদি রংচঙে, মিষ্টি জিনিস কিনতে পছন্দ করেন, তা হলে POPxo Shop-এর কালেকশনে ঢুঁ মারুন। এখানে পাবেন মজার-মজার সব কফি মগ, মোবাইল কভার, কুশন, ল্যাপটপ স্লিভ ও আরও অনেক কিছু!