পিরিয়ডের সময় পেট আর কোমরের ব্যথা? এই তিনটি যোগব্যায়ামের মাধ্যমে হবে মুশকিল আসান

পিরিয়ডের সময় পেট আর কোমরের ব্যথা? এই তিনটি যোগব্যায়ামের মাধ্যমে হবে মুশকিল আসান

পিরিয়ডসের (menstrual cramps) সময় পেট আর কোমরের ব্যথা মেয়েদের কাছে একটা দুঃস্বপ্নের মতো! বেশিরভাগ মহিলাই এই জাতীয় সমস্যায় ভোগেন। এর প্রভাব সরাসরি গিয়ে পড়ে তাঁদের দৈনন্দিন জীবনে। স্কুল, কলেজ বা অফিস যে-কোনও জায়গাতেই যেতে ইচ্ছে করে না। অনেকেই এই ব্যথার হাত থেকে মুক্তি পেতে পেনকিলারের সাহায্য নেয়। কিন্তু সেটা একদমই উচিত নয়। তার দুটো কারণ আছে। প্রথমত, কোন পেনকিলারের কী পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া, তা আপনি জানেন না। সুতরাং, চিকিৎসকের পরামর্শ ছাড়া কোনওরকম ওষুধই খাওয়া উচিত নয়। দ্বিতীয়ত, পেনকিলার আপনাকে সাময়িক আরাম ছাড়া আর কিছুই দিতে পারবে না। উল্টে প্রতি মাসে পেনকিলার খেলে সেটা আপনার অভ্যেসে পরিণত হবে। সুতরাং, পিরিয়ডস বা ঋতুস্রাবের সময় পেট ও কোমরের ব্যথার চিরতরে নিরাময় করতে সাহায্য নিন যোগব্যায়ামের (yoga poses)। নীচে বলা তিনটি আসন আপনাকে সাহায্য করবে এই সমস্যার সমাধান করতে।


ঋতুস্রাবের সময় কেন হয় পেট ব্যথা?


ঋতুস্রাব (period) হওয়ার সময় জরায়ু (Uterus) সঙ্কুচিত হয়ে যায় এবং জরায়ুর দেওয়াল থেকে অনেকটা সরে যায় ও যোনিপথ (vagina) মাধ্যমে রক্ত প্রবাহ বের হয়। জরায়ু কুঞ্চিত হয়ে যাওয়ার ফলেই পেটে ব্যথা বা কোমরে ব্যথা হয়ে থাকে ঋতুস্রাব শুরু হওয়ার প্রথম দু’দিন। এই সময় বেশিরভাগ মহিলাদের তলপেটে ব্যথা হয়। অনেকেই আবার তলপেট ছাড়াও কোমর, থাই ও কাফ পেশির (cuff muscle) ব্যথাও অনুভব করেন।


আরও পড়ুন ঋতুস্রাবের সময় পেট ও কোমর ব্যথা দূর করার ঘরোয়া উপায় 


কোন-কোন যোগব্যায়ামে সারবে এই ব্যাথা


আসন ১: বালাসন


balasana


বালাসন অর্থাৎ একটি শিশুর মতো পোজ। যেহেতু এই পোজে পিঠ স্ট্রেচড হয় তাই এটি মেরুদণ্ডের রিল্যাক্সেশনে কাজে আসে। তা ছাড়াও এটি পেশিঘটিত সমস্যা, যেমন ঘাড়ে, পিঠে ও কাঁধে ব্যথার সঙ্গে-সঙ্গে কোমর ও পেটের ব্যথাও অনেকটা নিয়ন্ত্রণে নিয়ে আসে। টেনডনস (tendons), পেশি (muscle) এবং হাঁটুর জয়েন্ট অনেক নমনীয় করে দেয় এই পোজ। গর্ভস্থ শিশুর পোজ বলে এটি মানসিক চাপ অনেকটাই কমিয়ে দেয়। দু' পা ভাঁজ করে জড়ো করুন। পেটের অংশ পায়ের উপর দিকে বাকি শরীর সামনের দিকে ঝুঁকিয়ে মাটিতে দুই হাত দিয়ে মাথা ঝুঁকিয়ে থাকুন। এই অবস্থায় লম্বা শ্বাস নিতে থাকুন। যাতে শরীরের ওঠানামা স্পষ্ট বোঝা যায় সেভাবে করবেন।


আসন ২: মার্জার আসন


marjarasan


মার্জার মানে বিড়াল। এই আসনকে অনেকে গবাসন অর্থাৎ কাউ পোজও (Cow Pose) বলেন। মোদ্দা কথা হল, এই আসন করার সময় আপনাকে চতুষ্পদ প্রাণীর মতো দেখতে লাগে, তাই এই নাম! হাঁটু মুড়ে নীচের দিকে ঝুঁকে দু' হাত সোজা করে থাকুন। এতে শরীরের নমনীয়তা বাড়ে। ফলে পেট ও কোমরের ব্যথা অনেকটাই কমে। একবার কোমর উঁচু করে পেট ভিতরে ঢুকিয়ে নিন। আবার পেশি শিথিল করে দিয়ে কোমর স্বাভাবিক অবস্থায় নিয়ে আসুন। বারবার এটা করলে পেশিতে রক্ত সঞ্চালন হবে, ফলে ব্যথা নিয়ন্ত্রণে আসবে। এ ছাড়াও হাঁটু মুড়ে নীচের দিকে ঝুঁকে বসার পর এক পায়ে ভর দিয়ে আর-একটা পা স্ট্রেচ করুন আর হাত দিয়ে সেই পায়ের পাতা ধরুন। যদি ডান পা তোলেন, তা হলে বাঁ হাত দিয়ে ধরবেন। এভাবেও এই আসন করা যায়।  


আসন ৩: শবাসন


shabasana


মানসিক চাপ, উদ্বেগ, দুশ্চিন্তা থেকে শুরু করে পিরিয়ডের সময় পেট ও কোমরের ব্যথা সারাতে এই শবাসনের জুড়ি নেই। শবাসন শরীরকে বলে বিশ্রাম নিতে এবং তার মাধ্যমেই আবার শরীরে এনার্জি প্রবেশ করে। প্রতিদিন পাঁচ থেকে ১০ মিনিট এই আসন করুন। দু' হাত দু' পাশে রেখে শরীর টান-টান করে পা ছড়িয়ে শুয়ে পড়ুন। সবচেয়ে ভাল হয়, যদি আপনার শরীর সরাসরি মাটির স্পর্শ পায়। চোখ বন্ধ করে শুয়ে লম্বা শ্বাস-প্রশ্বাস নিতে থাকুন। জেনে রাখুন, শবাসন শুনতে যত সোজা, এটা সঠিকভাবে করাটা অতটাও সোজা নয়। এর জন্য চাই অখণ্ড মনোযোগ। কারণ, ফোকাস না থাকলে আপনার ব্যথা কমবে না।


Picture Courtsey: Indian Yoga 


 


POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!