আর কত দিন যোগাসন (Yoga) সম্পর্কিত নিয়ে এই ভুল ধরণাগুলিকে সত্যি ভাববেন? | POPxo

যোগাসন নিয়ে এই পাঁচটি ভুল ধারণা এবার ভেঙে দিন!

যোগাসন নিয়ে এই পাঁচটি ভুল ধারণা এবার ভেঙে দিন!

সমস্যা হচ্ছে, আমরা আজকাল সকলেই সব কিছু জেনে ফেলেছি! ফেসবুক খুললেই দেখবেন, মাছের কালিয়া তৈরির রেসিপি থেকে মোদির বিদেশ নীতি, সব কিছু নিয়েই এক্সপার্ট কমেন্ট দেওয়ার মতো লোকের অভাব নেই! আর মজার বিষয়টা হল, বেশিরভাগ লোকেই না জেনে তুমুল কনফিডেন্সের সঙ্গে এই সব আলপটকা বকে চলেছে, আর আমরা সেই সব রেডিমেড তথ্যের ভুল-ঠিক না জেনেই অন্ধের মতো মেনে চলেছি! এমনকী, বাদ দিইনি যোগাসনের মতো বিষয়কেও। প্রাচীন এই শরীরচর্চাকে ঘিরেও রয়েছে নানা ভুল ধরণা (Myths)। আর সেটা ভাঙতেই তো এই প্রতিবেদন। ভাবছেন, যোগাসন নিয়ে তো সবাই সব জানে, তা হলে ভুল ধারণাগুলি কী? জেনে নিন আমাদের কাছ থেকে।


যোগাসন নিয়ে যে-যে ভুল ধরণাগুলি খুব জনপ্রিয়


১. শরীর ফ্লেক্সিবল না হলে নাকি যোগাসন করা যায় না


এক্কেবারে ভুল ধারণা। যাঁরা জীবনে একদিনও এক্সারসাইজ করেননি, তাঁরাও যে কোনওদিন যোগাসন (Yoga) শুরু করতে পারেন। তার জন্য না ছিপছিপে শরীরের প্রয়োজন, না ফ্লেক্সিবিলিটির। তবে একথা ঠিক যে, নিয়মিত আসন করলে ভিতর এবং বাইরে থেকে শরীরের ক্ষমতা এতটাই বেড়ে যায় যে, শরীরের ফ্লেক্সিবিলিটি বাড়তে সময় লাগে না। তা ছাড়া যোগাসনই হল এমন শরীরচর্চা, যাতে সব থেকে দ্রুত পেশির ক্ষমতা বাড়ে, যে কারণ শরীরের ক্ষমতা বাড়তে সময় লাগে না।


২. যোগাসন আর পাঁচটা শরীরচর্চার মতোই


কে যে আপনাদের মাথায় এই সব ভুল ধারণাগুলি ঢুকিয়েছে, জানা নেই। তবে একথা জেনে রাখা ভাল যে, যোগাসনের সঙ্গে বাকি এক্সারসাইজের আকাশ-পাতাল পার্থক্য। কেন জানেন? কারণ, নিয়মিত যোগাসন করলে যেমন নানা ধরনের শারীরিক উপকার পাওয়া যায়, তেমনই মেন্টাল হেল্থেরও উন্নতি ঘটে। অর্থাৎ যোগাসনের গুণে স্ট্রেস, অ্যাংজাইটি এবং মানসিক অবসাদের মতো সমস্যার প্রকোপ কমে চোখে পড়ার মতো। ইনসোমনিয়ার মতো রোগও দূরে পালায়। তা হলে বুঝতেই পারছেন, মস্তিষ্ক থেকে শুরু করে শরীরে প্রতিটি অঙ্গের ক্ষমতা বাড়াতে যোগাসনের জুড়ি মেলা ভার।


আরও পড়ুন: রাতে ভাল ঘুমের জন্য ট্রাই করুন এই চারটি যোগব্যায়াম


৩. গর্ভবতী মহিলাদের যোগাসন করা উচিত নয়


প্রেগন্যান্সির সময় মায়ের শরীর এবং মনকে সুস্থ রাখতে যোগাসনের কোনও বিকল্প হয় না বললেই চলে। প্রেগন্যান্ট মহিলাদের জন্য বিশেষ কিছু আসন রয়েছে, যা নিয়মিত করলে সারা শরীরে রক্তের প্রবাহে উন্নতি ঘটে, যে কারণে প্রেগন্যান্সি সম্পর্কিত কোনও ধরনের সমস্যা মাথা চাড়া দিয়ে ওঠার আশঙ্কা কমে। এমনকী, প্রসবের আগে-পরে কোনও ধরনের জটিলতা দেখা দেওয়ার আশঙ্কাও আর থাকে না। তবে একথা মাথায় রাখা জরুরি যে, এই সময় একজন প্রশিক্ষকের তত্ত্বাবধানে এক্সারসাইজ করতে হবে। কারণ, কিছু ভুল হয়ে গেলে কিন্তু বিপদ!


আরও পড়ুন: গর্ভাবস্থায় সুস্থ থাকতে এবং প্রসবের সুবিধের জন্য কোন-কোন ব্যায়াম করা যেতে পারে


৪. হট যোগা করলেই একমাত্র মেদ ঝরে


এ কথা ঠিক যে 'বিক্রম যোগা', যা আজকাল হট যোগা নামে পরিচিত, তা নিয়মিত করলে মেদ ঝরতে সময় লাগে না। কিন্তু একথাও ঠিক যে, শরীরের অতিরিক্ত মেদ ঝরিয়ে ফেলতে সাধারণ যোগাসনেরও কোনও বিকল্প হয় না। নিয়মিত যদি বীরভদ্রাসন, ত্রিকোণাসন, অধোমুখ শবাসন এবং ধনুরাসন মতো যোগাসন করা যায়, তা হলে উপকার মিলতে সময় লাগবে না। তবে এছাড়াও আরও অনেক আসন রয়েছে যা ওজনকে নিয়ন্ত্রণে রাখতে বিশেষ ভূমিকা পালন করে থাকে।


৫. খোলা হাওয়ায় যোগাসন করলে বেশি উপকার মেলে


একবার ভাবুন তো এই কথাটা যদি সত্যি হত, তা হলে তো হিমালয়ে গিয়ে যোগাসন না করলে কোনও উপকারই মিলত না! জেনে রাখা ভাল যে, যোগাসন যে-কোনও জায়গাতেই করা যায়। শুধু খেয়াল রাখতে হবে, শান্ত পরিবেশে আসন করলে বেশি উপকার মেলে। তাই বাগান নেই বলে আসন করবেন না, এই অজুহাত ভুলে নিয়মিত ৩০ মিনিট আসন করুন। দেখবেন, শরীর এবং মনকে নিয়ে আর কোনও চিন্তাই থাকবে না। বাড়বে আয়ুও।


POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!


এগুলোও আপনি পড়তে পারেন


কপালভাতি প্রাণায়াম এর উপকারিতা ও পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া


আপনি যদি রংচঙে, মিষ্টি জিনিস কিনতে পছন্দ করেন, তা হলে POPxo Shop-এর কালেকশনে ঢুঁ মারুন। এখানে পাবেন মজার-মজার সব কফি মগ, মোবাইল কভার, কুশন, ল্যাপটপ স্লিভ ও আরও অনেক কিছু!