আপনার Gynecologist-কে এই পাঁচটি প্রশ্ন অবশ্যই করুন!

আপনার Gynecologist-কে এই পাঁচটি প্রশ্ন অবশ্যই করুন!

আমরা মেয়েরা অনেক বিষয়ই মাঝেমধ্যে এড়িয়ে চলি এবং সেই লিস্টে উপরের দিকে যা রয়েছে, তা হল নিজের শরীরের প্রতি খেয়াল রাখা। অনেকসময়েই শুধুমাত্র নিজেদের গাফিলতির কারণে মহিলারা নানা শারীরিক সমস্যায় পড়ে যাই। নানা ধরনের মহিলাজনিত শারীরিক সমস্যা অর্থাৎ যাকে আমরা gynecological problems বলে থাকি, সে সমস্যাগুলোই সবচেয়ে বেশি এড়িয়ে যাই। অনেকসময়েই স্ত্রীরোগ বিশেষজ্ঞের কাছে আমরা যেতে চাই না অথবা গেলেও প্রশ্ন করতে অস্বস্তিবোধ করি। কিন্তু এতে আখেরে আমাদেরই লোকসান হয়। অনেকেই আবার ভুলে যান যে, ঠিক কী-কী প্রশ্ন একজন স্ত্রীরোগ বিশেষজ্ঞকে করা উচিত। কয়েকটি জরুরি প্রশ্নের তালিকা এখানে দিয়ে দিচ্ছি, মনে করে পরের বার যখন gynecologist-এর কাছে যাবেন, তাঁকে জিজ্ঞেস করে নেবেন!  

১। কী ধরনের গর্ভনিরোধক বড়ি খাওয়া উচিত?

শাটারস্টক

যদি আপনি নিয়মিত শারীরিক মিলনে লিপ্ত থাকেন, তা হলে আপনার গর্ভবতী হওয়ার সম্ভাবনা অন্য মহিলাদের তুলনায় অনেক বেশি। কিন্তু অনেকেই অবাঞ্ছিত প্রেগন্যান্সি চান না ফলে নিজেরাই ডাক্তারি করে বা বিজ্ঞাপন দেখে গর্ভনিরোধক বড়ি খান। কিন্তু জেনে রাখুন, গর্ভনিরোধক বড়ির কিন্তু অনেক পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া আছে। আবার সবার শারীরিক অবস্থা এক্রকমের হয় না। কাজেই যে গর্ভনিরোধক বড়ি অন্য কারও সুট করছে, সেটা আপনার সুট না-ও করতে পারে। কাজেই জিজ্ঞেস করে নিন যে, কী ধরনের গর্ভনিরোধক বড়ি আপনার খাওয়া উচিত এবং কত দিন খাওয়া উচিত।

২। ঋতুস্রাব চলাকালীন কি আপনি গর্ভবতী হতে পারেন?

আমরা প্রায়শই শুনি যে, ঋতুস্রাব চলাকালীন গর্ভবতী হওয়ার আশঙ্কা থাকে না। কিন্তু সবক্ষেত্রে তা সত্য না-ও হতে পারে। সাধারণত ঋতুস্রাবের দিন থেকে ১৪তম দিনে ডিম্বাশয় থেকে এগ রিলিজ হয়, কিন্তু এই দিন সংখ্যার তারতম্য হতে পারে। আপনার ঋতুচক্র কীরকম, তার উপরে আপনার ওভাল্যুশন নির্ভর করছে। কাজেই কোনও খটকা থাকলে তা আপনি স্ত্রীরোগ বিশেষজ্ঞকে জিজ্ঞেস করে নিন।

৩। বিকিনি ওয়াক্স করালে কি কোনও সমস্যা হতে পারে?

অনেক মহিলাই বিকিনি ওয়াক্স করান। অনেক gynecologist-এর মতে যোনিপথের নানা সমস্যার জন্য বিকিনি ওয়াক্স অনেকাংশেই দায়ী। যেহেতু আমাদের ভ্যাজাইনা শরীরের বাকি অংশের তুলনায় অনেক বেশি নরম এবং সংবেদনশীল, কাজেই ওয়াক্স করার সময়ে যে টান লাগে, তাতে কিছু সমস্যা হলেও হতে পারে।

৪। সাদাস্রাবের কারণ কী?

শাটারস্টক

অনেক কারণেই সাদাস্রাব হতে পারে। তবে দুঃখের বিষয় হল, বেশিরভাগ মহিলাই ব্যাপারটিকে গুরুত্ব দেন না। জেনে নিন, ঠিক কী-কী কারণে এই সমস্যা দেখা দেয়। গর্ভনিরোধক বড়ি, ইস্ট ইনফেকশন, একাধিক শারীরিক সম্পর্ক, সুলভ শৌচালয় ব্যবহার করা, পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন না থাকা – ইত্যাদি কারণে মহিলাদের সাদাস্রাব হয়ে থাকে। তবে তা ছাড়াও আরও অন্য কোনও কারণও থাকতে পারে, মনে করে আপনার স্ত্রীরোগ বিশেষজ্ঞকে জিজ্ঞেস করে নিন পরের বার।

৫। শারীরিক মিলনের সময়ে অর্গাজমে সমস্যা কেন হয়?

অনেক মহিলার একটু বয়স বাড়লে অর্গাজমের সমস্যা দেখা দেয়। যদিও এক একজনের অর্গাজমের এক এক রকম সময়ে হয় কিন্তু অস্বাভাবিক দেরি হলে অথবা অর্গাজম না হলে সেটা কিন্তু বেশ একটা চিন্তার বিষয়। যদিও অনেকেই বলেন এটা মানসিক সমস্যা, কিন্তু শারীরিক সমস্যাও হতে পারে। একবার জিজ্ঞেস করতে ক্ষতি কিছুই নেই, তাই না?

 

 

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!

আপনি যদি রংচঙে, মিষ্টি জিনিস কিনতে পছন্দ করেন, তা হলে POPxo Shop-এর কালেকশনে ঢুঁ মারুন। এখানে পাবেন মজার-মজার সব কফি মগ, মোবাইল কভার, কুশন, ল্যাপটপ স্লিভ ও আরও অনেক কিছু!