এই পাঁচটি উপায়ে রূপটানে ব্যবহার করুন দুধের সর

এই পাঁচটি উপায়ে রূপটানে ব্যবহার করুন দুধের সর

নিয়মিত দুধ খেলে যেমন শরীর চাঙ্গা থাকে, তেমনই দুধ ফোটানোর সময় যে সর পাওয়া যায়, সেটা ত্বকের যত্নেও নানাভাবে কাজে আসে। বলেন কী সরও ত্বকের পরিচর্যায় কাজে আসে? এক্কেবারেই! বিশেষজ্ঞদের মতে, সরে উপস্থিত saturated fat এক নয়, একাধিক ভাবে ত্বকের জেল্লা বাড়ায়। এমনকী, এই গরমে ত্বকের যাতে কোনও ক্ষতি না হয়, সেদিকেও খেয়াল রাখে। তাই এমন প্যাচপ্যাচে গরমেও যদি ত্বকের জেল্লা ধরে রাখতে হয়, তাহলে প্রায় দিনই দুধের সর মুখে লাগিয়ে মালিশ করতে হবে। কিন্তু প্রশ্ন হল, শুধু কি দুধের সর লাগালেই চলবে, নাকি তার সঙ্গে আরও কিছু মেশাতে হবে? সেই খোঁজই আজ দিতে চলেছি আমরা।

ত্বকের যত্নে দুধের সর

১. ট্যান দূর করে

গরম যা পরেছে তাতে বাড়ির বাইরে বেরনো মাত্র ত্বক (Skin) পুড়ে কালো হয়ে যায়। সঙ্গে লেজুড় হয় কালো ছোপ ছোপ দাগ। ফলে ত্বকের জেল্লা কমে। কমে সৌন্দর্যও। এমন পরিস্থিতিতে ত্বকের হারিয়ে যাওয়া সৌন্দর্য ফিরিয়ে আনবেন কীভাবে জানেন? নিয়মিত মুখে লাগাতে শুরু করুন দুধের সর। দেখবেন, ফল মিলবে হাতে-নাতে! এক্ষেত্রে চামচ দুয়েক দুধের সরের সঙ্গে এক চামচ বেসন মিশিয়ে থকথকে একটা পেস্ট বানিয়ে নিতে হবে। তারপর তা সারা মুখে লাগিয়ে সার্কুলার মোশনে মিনিট পাঁচেক মাসাজ করতে হবে। এরপরে মিনিট দশেকের অপেক্ষা। সময় হলে ঠান্ডা জল দিয়ে মুখ ধুয়ে নিতে হবে। সপ্তাহে বার তিনেক এই পেস্ট মুখে লাগালে দাগ- ছোপ তো কমবেই, সঙ্গে ট্যানও দূর হবে। বাড়বে ত্বকের জেল্লাও।

২. ত্বক আর্দ্র থাকবে

সারা বছরই কি ড্রাই স্কিনের সমস্যায় ভোগেন? তাহলে তো দুধের সর মুখে লাগাতে ভুলবেন না যেন! কারণ, দুধের সর হল প্রাকৃতিক ময়েশ্চারাইজার, যা ত্বকের হারিয়ে যাওয়া আর্দ্রতা ফিরিয়ে আনে। এমনকী স্কিন সেলের নানা ক্ষতও দূর করে। ফলে ভিতর থেকে ত্বক এতটাই সুন্দর হয়ে ওঠে যে জেল্লা বাড়ে চোখে পড়ার মতো। আসলে দুধে রয়েছে saturated fat, যা এক্ষেত্রে বিশেষ ভূমিকা নেয়। এত সব উপকার পেতে এক চামচ দুধের সরের সঙ্গে সম পরিমাণ মধু মিশিয়ে সেই মিশ্রণ মুখে লাগিয়ে মিনিট কুড়ি অপেক্ষা করতে হবে। সময় হলে মুখ ধুয়ে ফেলতে হবে। সপ্তাহে বার দুয়েক এই ভাবে ত্বকের যত্ন নিলেই কেল্লা ফতে!

আরও পড়ুন: ভিটামিন ই তেলের গুণে বাড়িয়ে তুলুন ত্বক এবং চুলের জেল্লা

৩. ত্বক নরম এবং তুলতুলে থাকে

এক চামচ দুধের সরের (Malai) সঙ্গে সম পরিমাণে হলুদ গুঁড়ো মিশিয়ে তৈরি পেস্ট মুখে লাগিয়ে মিনিট কুড়ি অপেক্ষা করুন। সময় হয়ে গেলে ঠান্ডা জল দিয়ে ভাল করে মুখ ধুয়ে নিন। একদিন অন্তর অন্তর যদি এইভাবে ত্বকের যত্ন নেওয়া যায়, তাহলে ত্বকের ভিতরে অ্যান্টিঅক্সিডান্ট এবং উপকারী ফ্যাট সহ একাধিক উপকারী উপাদানের মাত্রা বৃদ্ধি পায়, যে কারণে অল্প সময়ই ত্বক নরম এবং তুলতুলে হয়ে ওঠে। সঙ্গে জেল্লাও বাড়ে। মিলিয়ে যায় নানা দাগ-ছোপও।

৪. স্ক্রাব হিসেবেও ব্যবহার করা যায়

একথা নিশ্চয় সবারই জানা আছে যে, প্রতিনিয়ত আমাদের ত্বকের উপরে মৃত কোষ জমা হয়, যে কারণ ত্বকের জেল্লা কমে। তাই সৌন্দর্য ধরে রাখতে সময়ে সময়ে মৃত কোষ ধুয়ে ফেলতে হবে। আর সেই কাজটা করতে অনায়াসেই কাজে লাগানো যেতে পারে দুধের সরকে। কীভাবে কাজে লাগাতে হবে? এক্ষেত্রে প্রথমেই এক চামচ ওটস নিয়ে মিহি করে গুঁড়ো করে নিতে হবে। তারপর তাতে সম পরিমাণে দুধের সর মিশিয়ে তৈরি পেস্ট মুখে লাগিয়ে মিনিট পাঁচেক ভাল করে ঘষতে হবে। এবার মিনিট দশেকের অপেক্ষা। সময় হলে মুখ ধুয়ে ফেলতে হবে। সপ্তাহে বার দুয়েক এইভাবে মুখ পরিষ্কার করলে উপকার মিলবে হাতে-নাতে!

আরও পড়ুন: ত্বক ও চুলের যত্নে বেসনের ভূমিকা - রইল কয়েকটা রূপটানের হদিশ

৫. ত্বকের বয়স কমবে

নানা কারণে অসময়েই কি ত্বক বুড়িয়ে গেছে? তা হলে আজ থেকেই মুখে লাগাতে শুরু করুন দুধের সর। দেখবেন, উপকার পাবেই পাবেন! কারণ, এতে উপস্থিত প্রোটিন, ভিটামিন এবং উপকারী ফ্যাট ত্বকের ভিতরে যাওয়া মাত্র কোলাজেনের উৎপাদন বাড়িয়ে দেয়। ফলে নিমেষে উধাও হয়ে যায় বলিরেখা। সঙ্গে ত্বকের ইলাস্টিসিটিরও উন্নতি ঘটে, যে কারণে ত্বকের বয়স কমে চোখে পড়ার মতো। বাড়ে জেল্লাও।

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!

আপনি যদি রংচঙে, মিষ্টি জিনিস কিনতে পছন্দ করেন, তা হলে POPxo Shop-এর কালেকশনে ঢুঁ মারুন। এখানে পাবেন মজার-মজার সব কফি মগ, মোবাইল কভার, কুশন, ল্যাপটপ স্লিভ ও আরও অনেক কিছু!