তাঁর সঙ্গে প্রথম সাক্ষাতের দিন ভুলেও এই পাঁচটা ব্যাপার করবেন না!

তাঁর সঙ্গে প্রথম সাক্ষাতের দিন ভুলেও এই পাঁচটা ব্যাপার করবেন না!

প্রথম ডেট বলে কথা! জানি, বেশ টেনশনেই আছেন। কী পরবেন? কেমন ভাবেই বা কথা বলবেন? এই সব প্রশ্নের জালে যখন জড়িয়ে, তখন আপনাকে আর বাড়তি টেনশন দেব না। কিন্তু জেনে রাখা ভাল যে প্রথম ডেটে অনেকেই কিছু ভুল করে ফেলেন। যার চক্করে তীরে এসে তরী ডোবে! আমরা চাই না সেই একই ভুলের ফাঁদে পড়ুন আপনিও। তাই জেনে নিন কী-কী ভুল (mistakes) এড়িয়ে চলাই শ্রেয়।

১. লেট করলেই বিপদ

ঘড়ি লেট চললে ক্ষতি নেই। কিন্তু আপনি লেট করলেই মিস করতে পারেন ট্রেন। মানে, সম্পর্কের ট্রেন। একথা ঠিক যেন কোথাও দেরি করে পৌঁছানোটা বাঙালির জন্মগত অভ্যাস। কিন্তু date-এর দিন সেই ভুল করলে চলবে না। আপনার অপেক্ষায় থাকতে-থাকতে তিনি বিরক্ত হয়ে আর হয়তো না-ও এগোতে পারেন। আপনাকে নিয়ে ভুল বোঝার আশঙ্কাও উড়িয়ে দেওয়ার নয়। তাই মিনিটদশেক দেরি হলেও একটা মেসেজ করে দিন। আর পৌঁছানো মাত্র এক গাল হেসে একটু সরি বলুন। তাতেই দেখবেন, দেরিজনিত সমস্যার সমাধান হয়ে যাবে।

২. বিয়ে নিয়ে কোনও কথা নয়

আরে প্রথম ডেটে কেউ বিয়ে নিয়ে কথা বলে! একটু বুঝুন তাঁকে। কথা বলুন। প্রেমের ব্রিজটা একটু শক্তপোক্ত হোক, তবে না বিয়ে। তাই প্রথম দেখাতেই এই বিষয়ে কথা না বলাই শ্রেয়। বরং আপনার পছন্দ-অপছন্দ নিয়ে কথা বলুন। বাড়িতে কে-কে আছেন, কীভাব সময় কাটাতেই বা ভাল লাগে, এই নিয়েও কথা চলতে পারে। মোট কথা প্রথম ডেটে একে অপরের সঙ্গে সময় কাটাতে কেমন লাগছে, সেটা বুঝে নিতে হবে। সেই মতো প্রেমের গাড়ির গিয়ার বদলালেই পৌঁছে যাবেন বিয়ে নামক প্রান্তিক স্টেশনে।

আরও পড়ুন: সম্পর্কের জটিলতা থেকে প্রেমে ব্যর্থতা, সম্পর্ক নিয়ে নানা প্রশ্ন ও তার উত্তর

৩. 'এক্স' ফ্যাক্টর যেন মাঝে না আসে

প্রথম ডেটে একটু মজা হবে, খুনসুটি-রসিকতা হবে, তবেই না জমে উঠবে খেলা। তাই হালকা-ফুলকা কথাবার্তা চলতে পারে। মজার অভিজ্ঞতা ভাগাভাগি করে নিলেও মন্দ হয় না। কিন্তু অতীত নিয়ে বেশি ঘ্যানঘ্যান না করাই ভাল। কথায়-কথায় যদি বিষয়টা এসে যায়, তাতে ক্ষতি নেই! তখন না হয় হালকা করে আগের সম্পর্কগুলো নিয়ে একটু ছুঁয়ে যাবেন। কিন্তু ভুলেও বিস্তারিত গল্প ফেঁদে বসবেন না। তাতে এক বালতি দুধে চোনা পড়ে যাওয়ার মতো ব্যাপার হবে কিন্তু! 

৪. যত পারেন প্রশ্ন করুন

গল্প করতে-করতে কখনও-সখনও তার চাকরি, তার দৈনন্দিন জীবন, তার ভাল লাগা, মন্দ লাগা নিয়ে প্রশ্ন করুন। তাতে মানুষটাকে আরও গভীরে গিয়ে বোঝার সুযোগ পাবেন। তা ছাড়া আপনাকে এমন প্রশ্ন করতে দেখলে তাঁরও আপনাকে জানার ইচ্ছে জাগবে। এই ভাবেই তো কাছাকাছি আসবেন আপনারা। তবে একটা কথা মাথায় রাখবেন, হাজারো প্রশ্ন করুন ক্ষতি নেই, কিন্তু সে যখন উত্তর দিচ্ছে, তখন তা মন দিয়ে শুনুন। বারে-বারে আটকালে কথোপকথনের মজাটাই কিন্তু হারিয়ে যাবে।

আরও পড়ুন: সম্পর্কে কোনও কমিটমেন্ট করতে ভয় পান? রইল কমিটমেন্ট ফোবিয়া কাটিয়ে তোলার টিপস

৫. ফোনটা সাইলেন্ট করে ব্যাগে পুরে দিন

কথা বলার সময় ভুলেও বারে-বারে ফোন চেক করবেন না! তাতে ছন্দটা কেটে যাবে। আর এমনটা হতে থাকলে তাঁর হয়তো আপনার সঙ্গে গল্প করার ইচ্ছেটাই আর থাকবে না। তখন আর কিছু নয়, প্রথম ডেটে ডাহা ফেল করে মুখ নিচু করে বাড়ি ফিরতে হবে। এমন তেতো অভিজ্ঞতা হোক, এমনটা যদি না চান, তা হলে কয়েক ঘণ্টার জন্য ফোন বাবাজির মুখে কুলুপ এঁটে ব্যাগে ফেলে রাখুন। কোনও কারণে যদি ফোন ব্যবহার করতেও হয়, তা হলে তাঁর কাছে সরি চেয়ে নিতে ভুলবেন না যেন!

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!

আপনি যদি রংচঙে, মিষ্টি জিনিস কিনতে পছন্দ করেন, তা হলে POPxo Shop-এর কালেকশনে ঢুঁ মারুন। এখানে পাবেন মজার-মজার সব কফি মগ, মোবাইল কভার, কুশন, ল্যাপটপ স্লিভ ও আরও অনেক কিছু!