IN PICS: করিনা কপূরের লন্ডন হলিডে, দেখে চোখ ফেরাতে পারবেন না!

IN PICS: করিনা কপূরের লন্ডন হলিডে, দেখে চোখ ফেরাতে পারবেন না!

হলিডে করতে আজকাল সক্কলেই যায়! আমি যাই, আপনি যান, পাশের বাড়ির নীলুকাকু আর আপিসের সুষমা মুখুজ্জেও যান! নিশ্চয়ই যান! কিন্তু আপনারা তো আর ছবির মতো সাজানো, সুন্দর বিলেত যান না! কিংবা আপনাদের ছাতির মাপ চৌত্রিশ, কোমর আঠেরো নয়! বা আপনারা প্রাদার ব্যাগ,গুচির জামা, মিউ মিউয়ের জুতো কিংবা শানেল নাম্বার ফাইভ লাগিয়ে ছবিও তোলেন না। আর ইনস্টাগ্রামে লাইক? থাক বাপু, ওই দু-পাঁচখানা লাইক নিয়ে কথা না-ই বা বললেন! 

আসলে মোদ্দা কথাটা হল, আপনারা কেউই সেলেব্রিটি নন! তাই আপনাদের ছবিও এক্কেবারে পিকচার পারফেক্ট হয় না! আপনারা ঠান্ডার দেশে বেড়াতে গেলে টুপি-সোয়েটার-মোজা-গ্লাভস পরে কাপড়ের পুঁটুলি হয়ে ছবি তুলবেন! লন্ডনে খাঁটি ইংলিশ ওয়েদারে ফিনফিনে পোশাক পরে একগাল হেসে কোমর বেঁকিয়ে দাঁড়াতে পারবেনও না, সেটা ভেবে লাভও নেই! তাই আপনারা বরং সেলেব্রিটিদের হলিডে পিকচার দেখেই খুশি হোন!

সম্প্রতি এরকম একটি পিকচার পারফেক্ট হলিডে করে এলেন করিনা (Kareena) কপূরও, একেবারে সপরিবারে! তা তাঁর এই পরিবারটি একটু বৃহৎ। সেখানে তাঁর স্বামী-সন্তান তো আছেই, ছিলেন তাঁর দিদি করিশমা কপূর, তাঁর দুই ছেলেমেয়েও! তা ভাল, পরিবারের সঙ্গে সময় কাটানো তো কাজের চাপে বিশেষ একটা হয়ে ওঠে না, তাই ছুটিতে সকলকে নিয়ে যাওয়ায়ই ভাল। তাতে পরিবারের সঙ্গে সময়ও কাটানো যায়। আবার ছবিও ভারী সুন্দর ওঠে। একসঙ্গে অতগুলো ফরসাপানা, সুন্দর দেখতে লোক যদি ছবি তোলে, তা হলে সেই ছবি তো ভাল উঠবেই, তাই না? চলুন আমরা বরং প্রাণভরে দেখে নিই করিনার এই লন্ডন (London) হলিডের (Holiday) কিছু ছবি।

এয়ারপোর্ট থেকে শুরু

ইনস্টাগ্রাম

এমনকী, এয়ারপোর্টে কেমন করে কার্টে চেপে যাচ্ছিলেন তাঁরা, তার ভিডিয়োও আছে!

ভক্তদের সঙ্গে দেদার সেলফিও তুলেছেন নায়িকা!

ইনস্টাগ্রাম
ইনস্টাগ্রাম

ছবিগুলো দেখেই নিশ্চয়ই বুঝতে পারছেন যে, করিনা একটিবারও বারণ করেননি। আর করবেনই বা কেন! সকলে তো আর জয়া বচ্চন হন না, ক্যামেরা দেখলেই খেপে বোম হয়ে যাবেন! ইনস্টাগ্রামে করিনার কোনও অফিশিয়াল অ্যাকাউন্ট নেই! তাই তিনি জানেন, কী করে অন্যদের ছবির মধ্যে দিয়েই প্রচারে থাকতে হয়! সেই তৈমুরের জন্মের সময় মনে আছে...কী কাণ্ডটাই না হয়েছিল! মিডিয়ায় ভাইরাল হওয়া ছবিটি আসলে তাঁর কিনা, কে সেটা তুলল, কে-ই বা সেটা পোস্ট করল...সব মিলিয়ে ঝামেলার মধ্যে তৈমুর আলি খান পতৌদি বিখ্যাত হয়ে গেল! জয়া বচ্চন বিখ্যাত হলেন ছবি তুলতে না দিয়ে আর করিনা কপূর ছবি তুলতে দিয়ে! বেশ মজার ব্যাপার কিন্তু! সেলেব্রিটিদের মতিগতি বোঝা সত্যিই কঠিন!

ছুটির মধ্যেই জমিয়ে পার্টি!

ইনস্টাগ্রাম
ইনস্টাগ্রাম
ইনস্টাগ্রাম

ছুটির মধ্যে কী অসম্ভব রিফ্রেশিং লাগছে তাঁকে! প্রসঙ্গত, সেফ একসঙ্গে গেলেও, করিনার আগেই দেশে ফিরে আসেন। আর এসবের মাঝে ভারত-পাকিস্তান ক্রিকেট বিশ্বকাপের ম্যাচটিও দেখে ফেলেছিলেন তাঁরা!

আত্মীয় ও বন্ধুবান্ধবদের সঙ্গে আনন্দের মুহূর্ত

ইনস্টাগ্রাম
ইনস্টাগ্রাম
ইনস্টাগ্রাম
ইনস্টাগ্রাম
ইনস্টাগ্রাম
ইনস্টাগ্রাম
ইনস্টাগ্রাম

পরিবার করিনার কাছে বরাবরই গুরুত্বপূর্ণ। ছুটির সময়েও তার ব্যতিক্রম নেই। লন্ডনে গিয়েও পিসি ঋতু নন্দা, পিসেমশাই, বন্ধুদের সঙ্গে অনেকটা সময় কাটিয়েছেন নায়িকা। দেখা হয়ে গিয়েছিল নীতা অম্বানির সঙ্গেও। আশা করি, ছবিগুলি দেখে বুঝতে পারছেন যে, কেন আমরা করিনার হলিডে অ্যালবাম তৈরি করেছি।

তৈমুরের সঙ্গে

ইনস্টাগ্রাম
ইনস্টাগ্রাম

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!


আপনি যদি রংচঙে, মিষ্টি জিনিস কিনতে পছন্দ করেন, তা হলে POPxo Shop-এর কালেকশনে ঢুঁ মারুন। এখানে পাবেন মজার-মজার সব কফি মগ, মোবাইল কভার, কুশন, ল্যাপটপ স্লিভ ও আরও অনেক কিছু!