রণবীর সিংহর এই বিদঘুটে পোশাকগুলো দেখলেই নানা জিনিসের কথা মনে পড়ে!

রণবীর সিংহর এই বিদঘুটে পোশাকগুলো দেখলেই নানা জিনিসের কথা মনে পড়ে!

রণবীর সিংহ (Ranveer Singh)। মানে, আমাদের শ্রী শ্রী রণবীর সিংহ (Ranveer Singh) মশাই। ভার্সেটাইল অভিনেতা। সে নিয়ে কোনও কথা হবে না ! একজন দুর্দান্ত প্রেমিক! (কেমন কপূরকে হাটিয়ে দিয়ে দীপিকাকে বগলদাবা করলেন) এবং অবশ্যই একজন ভাল স্বামী। এনার্জির স্টোর হাউজ রণবীর সারাক্ষণ ফুটন্ত কড়াইয়ের মতো টগবগ করে ফুটছেন। আমরা সবাই ওকে খু-উ-উ-ব ভালবাসি। কিন্তু উনি যে রকম বিদঘুটে (quirky) পোশাক (outfits) পরেন, সেগুলো দেখলেই কভি-কভি আমার সাদা মনেও কাদা মার্কা নানা খেয়াল আতা হ্যায়। আমরা সেই রকমই কিছু পোশাক (outfits) খুঁজে বের করেছি, যেগুলো দেখলে আপনারও কোনও না কোনও বস্তু বা প্রোডাক্টের (products) কথা মনে পরবেই। তা ছাড়া আমরা তো মাঝে-মাঝেই অমুক নায়িকার তমুক লুক আর তমুক নায়িকার অমুক লুক করে থাকি। থোড় বড়ি খাড়া তো অনেক হল। আজ না হয় একটু খাড়া বড়ি থোড় করে নায়কের লুক করা যাক। তার আগে করজোড়ে বলছি, দীপিকা বউদি হেব্বি সরি। আই অ্যাম আ জোকিং! 


১) আজ বাথরুম বড়া বেইমান হ্যায় 


rs 1a


দেখুন এই ছবিটা। এটাকে বলা হয় হারপিক লুক। যেদিন দীপিকা বাথরুম পরিষ্কার করতে বলে, সেদিন রণবীর এই পোশাক পরেন। কোনও-কোনও দিন তো দীপিকা গুলিয়ে ফেলেন কোনটা হারপিক আর কোনটা রণবীর। তখন রণবীর অন্য লুকে চলে যান। আর সেটাই হচ্ছে ওর পরের লুক। 


২) রাস্তে কা মাল সস্তে মেঁ 


rs 2


এটাকে বলে চৈত্র সেলে বেডশিট লুক। বাঃ রে, ওরা তারকা বলে বুঝি বিছানার চাদর পাল্টায় না। যেদিন যেদিন চাদর পাল্টে দেয় দীপিকা সেদিন ম্যাচ করে এইটা পরেন তিনি! 


৩) কিউট ক্যান্ডিফ্লস না হাতি! 


rs 3


ওদের স্বামী-স্ত্রীতে খুব ভাব জানেন তো। না, এমনিতে লোকের সামনে দাঁত কেলানো আদিখ্যেতা ছাড়াও বলছি। সেই যে দীপিকা মাঝে-মাঝে টাকি থেকে টোকিও পর্যন্ত লম্বা একটা গোলাপি গাউন পরেছিলেন না? মনে আছে? মনে না থাকাটাই স্বাভাবিক। কারণ, এত ঘন-ঘন জামা পালটালে কারই বা মনে থাকে। যাক গে, যা বলছিলুম। ওই গোলাপি গাউনের বাড়তি কাপড় ফেলে না দিয়ে সেটা দিয়েই উনি মানে রণবীর সুট বানিয়ে নিয়েছেন। এটা হল বুড়ির চুল বা ক্যান্ডিফ্লস লুক। 


৪) কার্পেট লুক 


rs 4


আপনি এরকম সেজে বেরোন একবার বাড়ি থেকে! পিছনে কুত্তা না দৌড়েছে তো আমার নাম পাল্টে দেবেন। কিন্তু ওঁরা হলেন তারকা। ওদের কোনও দোষ নেই গো। আমার খুব শখ ছিল এই রকম বাঘের ছাল পানা বড়লোকি কার্পেট মাটিতে মাতব গেল শীতকালে। তা ঘোড়ার ডিম কলকাতায় শীতকাল আসে না তো আমি কী করব? আমার পছন্দ করা কার্পেট কেটেই বোধ হয় এইটা বানিয়েছে! 


৫) ফ্লুরসেন্ট আলো লুক 


rs 5


হ্যাঁ, যখন ওদের বাড়িতে দুম করে লোডশেডিং হয়ে যায় সেদিন উনি এই স্যুটটা পরেন। আহা, বউ ক্লান্ত হয়ে কাজ থেকে বাড়ি ফিরলে অন্ধকারে যদি দেখতে না পান? সেইজন্য এই শ্যামাপোকা পানা জামা পরে উনি খলিবলি নাচেন। যাতে দীপিকা বাড়ি এলেই মালুম পেয়ে যান স্বামী কোথায় আছেন! 


৬) ইজির প্যাকেট সাজা ইজি নয় 


rs 6


হ্যাঁ, হ্যাঁ, ইজি। ওই যে শীতকালে সোয়েটার কাচে না, সেই ইজি। দেখুন, একবার টেবিলে সাজিয়ে রাখুন, ভুল করে আমার লাল সোয়েটার কেচেই না ফেলি। যত্তসব!  


 


POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!



আপনি যদি রংচঙে, মিষ্টি জিনিস কিনতে পছন্দ করেন, তা হলে POPxo Shop-এর কালেকশনে ঢুঁ মারুন। এখানে পাবেন মজার-মজার সব কফি মগ, মোবাইল কভার, কুশন, ল্যাপটপ স্লিভ ও আরও অনেক কিছু!