সকালে তাড়াতাড়ি ওঠার এই পাঁচটা সুফল জানেন কি?

সকালে তাড়াতাড়ি ওঠার এই পাঁচটা সুফল জানেন কি?

“আর্লি টু বেড অ্যান্ড আর্লি টু রাইজ” সেই স্কুল জীবন থেকে এই সাহেবি প্রবাদ আমরা শুনে আসছি। অর্থাৎ তাড়াতাড়ি যদি কেউ ঘুমোতে যায় এবং তাড়াতাড়ি উঠে পড়ে তাহলে একজন মানুষ স্বাস্থ্যবান, ধনী ও বুদ্ধিমান হয়। নেহাতই কথার কথা ভেবে এই প্রবাদকে কেউই আমরা গুরুত্ব দিইনি। কিন্তু সকালে তাড়াতাড়ি ওঠার যে কতগুলো দারুণ সুফল আছে সেগুলো অস্বীকার করা যায় না। তার মানে এই নয় যে আপনার শরীর খারাপ থাকলে বা রাত জেগে কাজ করলে আপনি পরের দিন একটু বেলা পর্যন্ত ঘুমোতে পারবেন না। কিন্তু সেটাকে অভ্যেসে পরিণত করবেন না। আসুন দেখে নেওয়া যাক সকালে (morning)  তাড়াতাড়ি (early) ওঠার সুফলগুলো (benefits) কী কী। 

১) হাতে অনেকটা বেশি সময় পাবেন

pixabay

তাড়াতাড়ি উঠলে আপনি হাতে কাজ করার জন্য অনেকটা বেশি সময় পাবেন। অনেক বেশি এনার্জি অনুভব করবেন এবং অনেক দ্রুত কাজ সারতে পারবেন। গবেষণা বলছে যে যারা সকালে তাড়াতাড়ি ওঠেন তাঁরা যে কোনও সিদ্ধান্ত অনেক দ্রুত নিতে পারেন এবং নিজের লক্ষ্যে খুব সহজেই পৌঁছে যান।

২) মানসিক সুস্থতা

pixabay

যেহেতু আপনি অনেক তাড়াতাড়ি উঠছেন সেহেতু আপনার হাতে অনেক বেশি সময় আছে।  ফলে কোথাও বেরোতে হলে বা অফিস যেতে হলে বা রান্না সারতে হলে আপনার তাড়াহুড়ো করার কোনও প্রয়োজন নেই। এর জন্য আপনার স্ট্রেস অনেকটাই কম হবে ফলে মানসিক শান্তিও বজায় থাকবে। আপনার দিন এক রাশ পজিটিভিটি দিয়ে শুরু হবে এবং এই অনুভূতি সারাদিন বজায় থাকবে। 

৩) ভাল ঘুম হবে

pixabay

সকালে তাড়াতাড়ি উঠলে স্বভাবতই রাত্রে আপনি তাড়াতাড়ি শুতে যাবেন। আর সেটাই কাম্য। কারণ তাড়াতাড়ি উঠে যদি আপনি দেরি করে ঘুমোতে যান তাহলে আপনার শরীর খারাপ হয়ে যাবে। আর সেই রাত জাগাটা যদি অকারণে হয় তাহলে তো আরও খারাপ। তাড়াতাড়ি উঠে তাড়াতাড়ি শুতে গেলে আপনার শরীরে যে জৈবিক ঘড়ি বা বায়োলজিকাল ক্লক আছে সেটা সেভাবেই অভ্যস্ত হয়ে যাবে। আর একটা সুস্থ জীবনের জন্য এটা খুব দরকার। 

৪) সফলতা আসে

pixabay

টেক্সাস বিশ্ববিদ্যালয় একবার একটি গবেষণা করে দেখেছিল। এর জন্য তাঁরা সেইসব ছাত্র ছাত্রীদের সঙ্গে কথা বলেছিল যারা তাড়াতাড়ি ওঠে। আবার এক দল গবেষক কথা বলে যারা দেরিতে ওঠে তাঁদের সঙ্গে। দেখা গেছে যে সব ছাত্রছাত্রীরা তাড়াতাড়ি ওঠে তাঁরা পরীক্ষায় অনেক ভাল করেছে। একই নিয়ম কার্যকরী হয়েছে অন্যান্য ক্ষেত্রেও। দেখা গেছে যে সব ব্যক্তি তাড়াতাড়ি ওঠেন, মহিলা পুরুশ নির্বিশেষে তাঁরা অন্যদের চেয়ে অনেক বেশি সফল হন। 

৫) দীর্ঘ ও সুখী জীবন

pixabay

দেখা গেছে যে যারা তাড়াতাড়ি ঘুম থেকে ওঠেন এবং নানা রকম কাজ নিয়ে সারাদিন ব্যস্ত থাকেন, তাঁরা অনেক বেশি দিন বাঁচেন আর তাঁদের জীবনে স্ট্রেস কম থাকে ফলে তাঁরা সুখী জীবন যাপন করতে পারেন। 

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!

আপনি যদি রংচঙে, মিষ্টি জিনিস কিনতে পছন্দ করেন, তা হলে POPxo Shop-এর কালেকশনে ঢুঁ মারুন। এখানে পাবেন মজার-মজার সব কফি মগ, মোবাইল কভার, কুশন, ল্যাপটপ স্লিভ ও আরও অনেক কিছু!