Bubble, মানে বুদবুদওয়ালা ফেস মাস্কের গুণে বাড়িয়ে তুলুন ত্বকের লালিত্য!

Bubble, মানে বুদবুদওয়ালা ফেস মাস্কের গুণে বাড়িয়ে তুলুন ত্বকের লালিত্য!

কোরিয়াতে জন্ম নেওয়া এই বিশেষ ফেস মাস্কের জনপ্রিয়তা আজ আকাশ ছুঁয়েছে। এমনকী, এদেশেও বাবল ফেস মাস্ক (Bubble face mask) নিয়ে উন্মাদনা একেবারে তুঙ্গে। যদিও এমন জনপ্রিয়তার পিছনে বেশ কিছু কারণও রয়েছে। কী কারণ? অল্প সময়েই ত্বকের সৌন্দর্য বাড়াতে এই ধরনের ফেস মাস্ক এর যেমন জুড়ি মেলা ভার, তেমনই ব্রণ এবং ব্ল্যাক হেডসের মতো সমস্যাকে দূরে রাখতেও বাবল ফেস মাস্কের কোনও বিকল্প হয় না বললেই চলে। তাই তো বলি, ত্বকের বয়স কমানোর মধ্যে দিয়ে যদি সৌন্দর্য বাড়িয়ে তুলতে চান ষোলো আনা, তা হলে বাকি প্রতিবেদনটি পড়ে ফেলতে দেরি করবে না যেন!

বাবল মেস্ক ফাস্ক আসলে কি?

বাকি সব ফেস মাস্ক যেভাবে ত্বকের যত্ন নেয়, বাবল মাস্ক কিন্তু একেবারেই সে পথ মাড়ায় না। বরং বিশেষ এক রকম oxygenation process-এর মাধ্যমে ত্বকের ভিতরে জমে থাকা ময়লা এবং টক্সিক উপাদানদের নিমেষে বের করে দেয়। সঙ্গে ত্বককে ভিতর থেকে সুন্দর করে তোলে, যে কারণে বাইরের লাবণ্য় বাড়ে। প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, এই ফেস মাস্কটি তৈরি করার সময় ঠেসে ঠেসে অক্সিজেন ঢুকিয়ে দেওয়া হয়, যে কারণে মাস্কটি মুখে লাগানো মাত্র 'বাবল' তৈরি হতে শুরু করে। এই কারণেই তো ফেস মাস্কটির নাম দেওয়া হয়েছে 'বাবল মাস্ক'।

মাস্কটি তৈরি করতে হবে কীভবে?

তৈরি করার কোনও প্রয়োজন নেই। কারণ, এই ফেস মাস্কটি ক্রিম এবং মাস্ক হিসেবে অনলাইনেই কিনতে পাওয়া যায়, যার কোনটায় রয়েছে collagen supplements, তো কোনও-কোনওটা অ্যাকটিভ চারকোল সমৃদ্ধ। এর মধ্যে যে কোনও একটা কিনে নিয়ে ব্যবহার শুরু করুন। দেখবেন, উপকার মিলবে হাতে-নাতে।

popxo recommends: Yashvi Traders Bubble Mask 

বাবল ফেস মাস্কের উপকারিত

সপ্তহে দিনদুয়েক এই ফেস মাস্কটি ব্যবহার করলে ত্বকের উপরে জমে থাকা মৃত কোষের স্তর সরে যায়, সঙ্গে ক্ষতিকর টক্সিক উপাদানগুলিও নিমেষে ধ্বংস হয়ে যায়, যে কারণে ত্বকের সৌন্দর্য বাড়তে সময় লাগে না। এখানেই শেষ নয়, এই ফেস মাস্কটি আরও নানাভাবে ত্বকের উপকারে লেগে থাকে। বিশেষ করে ত্বককে তুলতুলে রাখতে, অতিরিক্ত তেল বা sebum ধুয়ে ফেলতে এবং ব্রণর প্রকোপ কমাতে বাবল ফেস মাস্ক নানা ভাবে সাহায্য করে থাকে। তাই ত্বককে যদি সুস্থ-সুন্দর রাখতে চান, তাহলে বাবল ফেস মাস্কের সাহায্যে ত্বকের যত্ন নিতে দেরি করবেন না যেন!

বাবল ফেস মাস্ক ব্যবহারের নিয়ম

এই ফেস মাস্কটি ব্যবহারের সময় কতগুলি বিষয় মাথায় রাখা একান্ত প্রয়োজন, যেমন ধরুন...

১. ভাল করে মুখ ধুয়ে নিতে ভুলবেন না যেন

মাস্কটা মুখে লাগানোর আগে cleanser দিয়ে ভাল করে মুখ ধুয়ে নেবেন। তবে মনে করে হলকা গরম জলে মুখ ধোবেন, তাতে ত্বকের বন্ধ হয়ে যাওয়া ছিদ্রগুলি খুলে যাবে। ফলে আরও বেশি উপকার মিলবে।

২. ফেস মাস্কটি মুখে লাগানোর নিয়ম

প্যাকেট থেকে মাস্কটা বের করে ধীরে-ধীরে ত্বকের উপর লাগিয়ে কম করে মিনিটপনেরো অপেক্ষা করতে হবে। আর যদি ক্রিম ব্যবহার করেন, তা হলে ভাল করে হাত ধুয়ে নিয়ে ক্রিমটা সার্কুলার মোশনে সারা মুখে লাগিয়ে ফেলতে হবে। তবে খেয়াল করে চোখ, নাকের ছিদ্র, হেয়ার লাইন এবং মুখের কাছাকাছি ক্রিমটা লাগাবেন না যেন! এক্ষেত্রেও মিনিটপনেরো অপেক্ষা করার পরে মুখ ধুয়ে নিতে হবে।

৩. সিরামের ব্যবহার মাস্ট

মুখ ধোওয়ার পরে সারা মুখে ময়শ্চারাইজার বা সিরাম লাগিয়ে মিনিটদুয়েক মালিশ করতে ভুলবেন না যেন! তাতে মাস্কে উপস্থিত নানা উপকারী উপাদানগুলি ত্বকের একেবারে ভিতর পর্যন্ত পৌঁছে যাবে। ফলে অল্প সময়েই ত্বক তুলতুলে এবং নরম হয়ে উঠবে। বাড়বে সৌন্দর্যও।

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!

আপনি যদি রংচঙে, মিষ্টি জিনিস কিনতে পছন্দ করেন, তা হলে POPxo Shop-এর কালেকশনে ঢুঁ মারুন। এখানে পাবেন মজার-মজার সব কফি মগ, মোবাইল কভার, কুশন, ল্যাপটপ স্লিভ ও আরও অনেক কিছু!