ঝটপট ওজন কমাতে চান? পেতে চান ছিপছিপে শরীর? তা হলে নিয়মিত করুন এই যোগাসনগুলি

ঝটপট ওজন কমাতে চান? পেতে চান ছিপছিপে শরীর? তা হলে নিয়মিত করুন এই যোগাসনগুলি

ডায়েট করেও কি ওজন কমছে না? দিনে দিনে বেড়েই চলেছে মধ্যপ্রদেশ? তাহলে তো বিশেষ কিছু আসনের উপর ভরসা করা ছাড়া আর কোনও উপায়ই নেই। যোগ গুরুদের মতে, চটজলদি ওজন কমানোর পাশাপাশি শরীরের ফ্লেক্সিবিলিটি বাড়াতে যোগাসনের কোনও বিকল্প হয় না বললেই চলে। শুধু তাই নয়, নিয়মিত বিশেষ কিছু আসন (Yoga) করলে ছোট-বড় নানা রোগ-ব্যাধি তো দূরে থাকেই, সঙ্গে ত্বক এবং চুলের জেল্লাও বাড়ে চোখে পড়ার মতো। কিন্তু কী-কী আসন করলে এত সব উপকার মিলবে, সে সম্পর্কে জানা আছে কি? জানা না থাকলে জেনে নিন আমাদের কাছ থেকে।

চটজলদি ওজন কমাতে ভরসা রাখুন এই আসনগুলির উপর

১. বীরভদ্রাসন

এই আসনটি নিয়মিত বারচারেক করলে ওজন (Weight) তো কমবেই, সঙ্গে মেরুদণ্ডের ক্ষমতা বাড়বে, পাঁজরের হাড়ের অসমতা দূর হবে এবং শরীরের ফ্লেক্সিবিলিটি বাড়বে চোখে পড়ার মতো।

আসনটি করার পদ্ধতি
প্রথমে দু'হাত মাথার উপরে তুলে সোজা হয়ে দাঁড়ান। খেয়াল রাখবেন হাত দুটো যেন কানকে ছুঁয়ে থাকে এবং হাতের তালু সামনের দিকে ফেরানো থাকবে। এবার বাঁ দিকে ঘুরে, দুই থেকে আড়াই ফুট দূরে বাঁ পা রাখুন। তারপর বাঁ পা, হাঁটু থেকে ভাঁজ করে শরীরকে সোজা রেখে দাঁড়ান এবং ডান পা সোজা রাখুন। এই অবস্থায় স্বাভাবিকভাবে শ্বাস-প্রশ্বাস নিতে নিতে ২০ সেকেন্ড থাকতে হবে। এরপর পা বদলে আরও ২০ সেকেন্ড আসনটি করুন। আসনটা দু'বার করার পরে তিরিশ-চল্লিশ সেকেন্ড শবাসনে বিশ্রাম নিয়ে আরও দু'বার আসনটা করতে হবে। এইভাবে নিয়নিত আসনটি করলে ফল মিলবে হাতে-নাতে!

২. ত্রিকোণাসন

পেটের মেদ ঝরাতে এই আসনটির জুড়ি মেলা ভার। সেই সঙ্গে পায়ের পেশির জোর বাড়াতে, হাঁটুর যন্ত্রণা কমাতে এবং কাঁধের ব্যথা সারাতেও ত্রিকোণাসনের কোনও বিকল্প হয় না বললেই চলে। হজম ক্ষমতার উন্নতিতে এই আসনটি বিশেষ ভূমিকা পালন করে থাকে।

আসনটি করার পদ্ধতি
দু' পায়ের মাঝে এক হাত ফাঁক রেখে সোজা হয়ে দাঁড়ান। এবার দু'হাত কাঁধ বরাবর তুলুন যাতে হাত দুটো সরল রেখায় থাকে। এ অবস্থায় ধীরে ধীরে ডান দিকে ঝুঁকে ডান হাত দিয়ে ডান পায়ের বুড়ো আঙুল স্পর্শ করুন। আর বাঁ হাত ওপরের দিকে ওঠান যাতে বাঁ হাতটা, ডান হাতের সঙ্গে সরলেরখায় থাকে। স্বাভাবিক শ্বাস-প্রশ্বাস নিতে নিতে দশ সেকেন্ড থেকে আগের অবস্থায় ফিরে আসুন। এবার বাঁ দিকে ঝুঁকে, বাঁ হাত দিয়ে বাঁ পায়ের বুড়ো আঙুল ধরে আগের মতো অভ্যাস করুন। তারপর সোজা হয়ে দাঁড়িয়ে স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরে আসুন। এই ভাবে বার তিনেক আসনটি করে তিরিশ সেকেন্ড শবাসনে বিশ্রাম নিন।

৩. অধোমুখ শবাসন

নিয়মিত এই আসনটি করলে যেমন পেটের মেদ ঝরবে, তেমনই পেশির জোরও বাড়বে। সঙ্গে হাত, পিঠ এবং থাইয়ের ক্ষমতাও বাড়াবে চোখে পড়ার মতো।

আসনটি করার পদ্ধতি
হাত ও পায়ের উপর ভর দিতে এমনভাবে দাঁড়ান যাতে টেবিলের মতো দেখতে লাগে। এবার হাত-পা সোজা রেখে কোমরটা একটু ওঠান। এই সময় আপনার শরীরের ভঙ্গি অনেকটা ইংরেজির উল্টো ভি-এর মতো হবে। গলাটা এবার প্রসারিত করার চেষ্টা করুন, সঙ্গে হাত দিয়ে মাটিকে ঠেলুন। এই সময় এমন জায়গায় আপনার হাত দুটি থাকবে যাতে তা কানকে ছোঁয়। এইভাবে কয়েক সেকেন্ড থেকে পুনরায় স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরে আসুন। প্রতিদিন বার তিনেক এই আসনটি করলে ফল মিলবে হাতে-নাতে!

৪. সর্বাঙ্গাসন

চটজলদি ওজন কমাতে চান? তাহলে নিয়মিত এই আসনটি করতে ভুলবেন না যেন! তবে প্রতিদিন সর্বাঙ্গাসন করলে মেদ ঝরে যাওয়ার পাশাপাশি আরও অনেক উপকার মেলে। যেমন ধরুন- হজম ক্ষমতার উন্নতি ঘটে, কাঁধের জোর বাড়ে, ইনসোমনিয়ার মতো সমস্যা দূরে পালায়, ফুসফুসের ক্ষমতা বাড়ে, হেয়ার ফলের মাত্রা কমে এবং পায়ের জোর বাড়ে চোখে পড়ার মতো।

আসনটি করার পদ্ধতি
কাঁধের উপর ভর দিয়ে দু'পা সোজা করে উপরে তুলুন। এই সময় দু'হাতের চেটো দিয়ে পিঠকে এমন ভাবে ঠেলে ধরতে হবে যাতে ঘাড় থেকে পা পর্যন্ত সরল রেখায় থাকে। আর চিবুক থাকবে বুকের সঙ্গে লেগে। দৃষ্টি থাকবে পায়ের আঙুলের দিকে। স্বাভাবিক শ্বাস-প্রশ্বাস নিতে নিতে তিরিশ সেকেন্ড এইভাবে থেকে স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরে আসতে হবে। এইভাবে নিয়মিত বার তিনেক আসনটি করলেই ফল মিলতে সময় লাগবে না।

 

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!

আপনি যদি রংচঙে, মিষ্টি জিনিস কিনতে পছন্দ করেন, তা হলে POPxo Shop-এর কালেকশনে ঢুঁ মারুন। এখানে পাবেন মজার-মজার সব কফি মগ, মোবাইল কভার, কুশন, ল্যাপটপ স্লিভ ও আরও অনেক কিছু!