পুরনো, প্রায় বাতিল মেকআপ দিয়ে বাড়িতেই তৈরি করে ফেলুন দুর্দান্ত সব নতুন মেকআপ প্রোডাক্ট!

পুরনো, প্রায় বাতিল মেকআপ দিয়ে বাড়িতেই তৈরি করে ফেলুন দুর্দান্ত সব নতুন মেকআপ প্রোডাক্ট!

গতবারের পুজোর সময় কেনা আপনার সাধের মাস্কারাটির দশা এখন কেমন? কিংবা ধরুন, ছোটপিসি গতবার বিদেশ থেকে যে আইশ্যাডো প্যালেটটা কিনে এনে দিয়েছিল? বা গত শীতে মামাতো বোনের বিয়ের সময় একগাদা পয়সা খরচ করে যে দুটো লিপস্টিক কিনেছিলেন, সেগুলো এখনও বেঁচেবর্তে আছে তো? আর ফাউন্ডেশন? ওটার কথা তো যত কম জিজ্ঞেস করা যায়, ততটাই ভাল! বেচারা আপনার বাড়িতে ঢোকা ইস্তক হয়তো দুদিন তার ঢাকনা খোলা হয়েছে! আসলে আমরা মেকআপ প্রোডাক্ট (makeup product) কেনার সময় যত আদিখ্যেতা করে কিনি, ব্যবহার করার সময় ততটা নিয়মিত ব্যবহার করি না! তাই আমাদের লিপস্টিক আলমারির তাকে পড়ে-পড়ে এক্সপায়ারি ডেট পেরিয়ে যায়, ফাউন্ডেশন শুকিয়ে কাঠ হয়ে যায়, মাস্কারা দেখে বোঝার উপায় থাকে না যে ওটা কী কাজে ব্যবহার করা হত! আপনি বলবেন, কেনার সময়ই তা হলে আরও সাবধান হওয়া উচিত ছিল। আমরা বলব, তা তো অবশ্যই। কিন্তু সেটা তো সব সময় সম্ভব হয় না। তাই পুরনো শুকিয়ে, প্রায় বাতিল হয়ে যাওয়া মেকআপও কী করে আপনি নতুন করে (recycle) সাজগোজের কাজে লাগাতে পারেন, সেই টিপসই (tips) আজ আমরা বলে দেব!

১. পুরনো লিপস্টিক দিয়ে নতুন রং

পিক্সাবে

একগাদা পুরনো লিপস্টিক জমে গিয়েছে? তার মধ্যে আবার কতগুলো রং এখন একেবারেই ফ্যাশনেও নেই! কোই বাত নহি। এই সবগুলো দিয়ে তৈরি করে ফেলুন এক্কেবারে আনকোরা, নতুন শেড, যেটা শুধু আপনার কাছেই থাকতে পারে।

কীভাবে বানাবেন: প্রথমে টুথপিক বা কানখুশকি জাতীয় কিছু একটা দিয়ে সব লিপস্টিকগুলো খুঁচিয়ে-খুঁচিয়ে বের করে ফেলুন একটা ছোট স্টিলের বাটিতে। সেটা গ্যাসের ঢিমে আঁচে ধরে নাড়াতে থাকুন টুথপিক দিয়ে। সবকটি শেড একসঙ্গে মিশে একটা নতুন রং তৈরি হয়ে যাবে। এবার বড় মুখওয়ালা কোন কাচের জারে সেটা ভরে ফ্রিজে রেখে জমতে দিন। ব্যস, আপনার কাস্টমাইজড লিপ কালার রেডি। যখন প্রয়োজন লিপ ব্রাশের সাহায্যে সেটা লাগিয়ে ফেলুন!

২. পুরনো আইশ্যাডো, ব্লাশ অন, ব্রোঞ্জার, প্রেসড পাউডার নতুন করার কায়দা

পিক্সাবে

এই ধরনের জিনিসগুলো পরে থাকতে-থাকতে ক্র্যাকড হয়ে যায়। যে-কোনও ওযুধের দোকান থেকে কিনে আনুন ছোট এক শিশি রাবিং অ্যালকোহল! এই অ্যালকোহল মূলত ব্যবহার করা হয় ইঞ্জেকশন দেওয়ার সময় জায়গাটা পরিষ্কার করতে। ফোঁটা-ফোঁটা করে এই অ্যালকোহল ঢালতে থাকুন গুঁড়ো-গুঁড়ো হয়ে যাওয়া জিনিসগুলোর উপর আর একটা ফ্ল্যাট ব্রাশ দিয়ে চেপে-চেপে সমান করে দিতে থাকুন। অ্যালকোহল এই আইশ্যাডো, ব্লাশঅন, প্রেসড পাউডারের সঙ্গে মিশে সেগুলোকে আবার ব্যবহারের উপযোগী করে দেবে।

জরুরি টিপস: এই একই উপায়ে আপনি দুটো আইশ্যাডো একসঙ্গে মিশিয়ে নতুন রং তৈরি করতে পারেন। আইশ্যাডো ও ব্রোঞ্জার একসঙ্গে মিশিয়ে বানিয়ে ফেলতে পারেন নতুন শিমার আইশ্যাডো!

৩. পুরনো আই পেনসিল দিয়ে নতুন আইলাইনার

পিক্সাবে

পুরনো আইপেনসিল ঘষে-ঘষেও কাজ হচ্ছে না! শুকিয়ে খরখরে হয়ে গিয়েছে? আইপেনসিলটি শার্পনার দিয়ে বেশ খানিকটা ছুলে নিন। তারপর লাইটারের শিখার উপর আলতো করে ধরুন। কয়েক সেকেন্ড ধরে রাখার পর দাগ টেনে দেখুন, দেখবেন, মোটা কাজলের মতো সুন্দর দাগ পড়ছে!

৪. পুরনো ফেস পাউডার দিয়ে টিন্টেড ময়শ্চারাইজার!

পিক্সাবে

পুরনো গুঁড়ো হয়ে যাওয়া ফেস পাউডার আর আপনার ফেভারিট ময়শ্চারাইজার দিয়ে বাড়িতেই তৈরি করে ফেলতে পারেন টিন্টেড ময়শ্চারাইজার! একটা বাটিতে ময়শ্চারাইজারটা ঢেলে ফেলুন। তারপর ফেস পাউডারের গুঁড়োটা তার মধ্যে ঢেলে ভাল করে মিশিয়ে নিন। ব্যস, তৈরি হয়ে গেল আপনার নিজস্ব টিন্টেড ময়শ্চারাইজার! বাইরে বেরনোর সময় এটা মুখে লাগিয়ে নিলেই আর কোনও মেকআপের প্রয়োজন নেই! ত্বকের যত্ন এবং মেকআপ, একসঙ্গেই হয়ে গেল!

৫. শুকিয়ে যাওয়া লিপস্টিক দিয়ে লিপ বাম

পিক্সাবে

শুকিয়ে যাওয়া লিপস্টিক দিয়ে যে নিজস্ব লিপ বাম সহজেই তৈরি করে ফেলতে পারেন, সেটা জানা ছিল কি? এটা তৈরি করতে লাগবে পেট্রোলিয়াম জেলি (যাকে আমরা গোদা বাংলায় ভেসলিন বলি), পুরনো লিপস্টিক, কয়েক ফোঁটা আপনার পছন্দের যে-কোনও এসেনশিয়াল অয়েল আর একটা ছোট্ট কৌটো। পুরনো লিপস্টিক আর পেট্রোলিয়াম জেলি একসঙ্গে একটা ছোট মাইক্রোওয়েভ প্রুফ বাটিতে নিয়ে মিনিটদুয়েক মাইক্রোতে ঘুরিয়ে নিন। তারপর কাঁটা দিয়ে ভাল করে মিশিয়ে নিন। এতে মেশান দু-এক ফোঁটা এসেনশিয়াল অয়েল! তারপর ওই কৌটোয় ভরে তা রেখে দিন ফ্রিজে, কিছুক্ষণের জন্য। একবার জমে গেলেই আপনার নিজস্ব লিপ বাম তৈরি, তা-ও বিনা খরচে!

৬. গ্লিটারি আই শ্যাডো আর পুরনো নেলপলিশ দিয়ে নতুন নেল পেন্ট

পিক্সাবে

নেলপলিশ বোধ হয় সবচেয়ে তাড়াতাড়ি শুকিয়ে এবং আউট অফ ফ্যাশন হয়ে যায়! আজ একটা কটকটে লাল কিনলেন ফ্যাশনে ইন বলে, ও মা, মাসদুয়েক পরেই সেটা পুরনো কেতা হয়ে গেল। এদিকে নতুন ট্রেন্ডের সঙ্গে পাল্লা দিতে গিয়ে নেলপলিশের পর নেলপলিশ কিনে-কিনে আপনি ক্লান্ত! তার চেয়ে বরং বাড়িতেই নিজস্ব নেল পেন্ট বানিয়ে ফেলুন! 

কীভাবে বানাবেন: পুরনো গ্লিটারি আইশ্যাডো, যেটা বহুদিন তাকে থেকে-থেকে পচছে, সেটা মিশিয়ে নিন নেলপলিশের সঙ্গে! ব্যস, এভাবে আপনি ম্যাট থেকে শুরু করে গ্লসি, যে-কোনও ফর্মের শিমারি নেল পেন্ট বানিয়ে ফেলতে পারবেন!

৭. বেশ কিছু পুরনো মেকআপ প্রোডাক্ট কাজে লাগানোর টিপস

১. পুরনো, শুকিয়ে যাওয়া মাস্কারা কাজে আসতে পারে আই ব্রো ফিলার হিসেবে!

২. শুকিয়ে যাওয়া লিকুইড লিপলাইনার একটা কফি মাগে গরম জল নিয়ে তার মধ্যে ডুবিয়ে রাখুন গলা পর্যন্ত। লিপলাইনারটি আবার ব্যবহারযোগ্য হয়ে উঠবে! একই ভাবে সারিয়ে ফেলতে পারেন পুরনো লিকুইড আইলাইনারও।

৩. মাস্কারা একেবারেই ফুরিয়ে গিয়েছে? তার ব্রাশটি ফেলে না দিয়ে ভাল করে ধুয়ে, পরিষ্কার করে নিন। এটি আই ব্রো ব্রাশ হিসেবে দুর্দান্ত!

৪. পুরনো কমপ্যাক্টের কৌটো ফেলে দেবেন না যেন! সেটা পরিষ্কার করে তাতে মোম আর কয়েক ফোঁটা এসেনশিয়াল অয়েল একসঙ্গে মিশিয়ে রেখে জমতে দিন। আপনার সলিড, ইজি টু ক্যারি পারফিউম রেডি!

৫. বডি লোশনের গন্ধ পছন্দ নয়? তাতে একটু ভেসলিন আর কয়েক ফোঁটা এসেনশিয়াল অয়েল মিশিয়ে তৈরি করে নিন নিজস্ব পছন্দের গন্ধওয়ালা বডি লোশন!

 

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!

আপনি যদি রংচঙে, মিষ্টি জিনিস কিনতে পছন্দ করেন, তা হলে POPxo Shop-এর কালেকশনে ঢুঁ মারুন। এখানে পাবেন মজার-মজার সব কফি মগ, মোবাইল কভার, কুশন, ল্যাপটপ স্লিভ ও আরও অনেক কিছু!