হাতে-পায়ে কড়া পড়েছে? এই বিরক্তিকর ব্যাপারটি থেকে মুক্তি পান ঘরোয়া উপায়ে

হাতে-পায়ে কড়া পড়েছে? এই বিরক্তিকর ব্যাপারটি থেকে মুক্তি পান ঘরোয়া উপায়ে

ত্বকের কোনও অংশে মাত্রাতিরিক্ত চাপ পড়লে সেই অংশে মৃত কোষ জমতে-জমতে চামড়া মোটা হয়ে গিয়ে শক্ত হয়ে যায়, যাকে গোদা বাংলায় কড়া বলা হয়। যাঁরা নিয়মিত জিমে যান, তাঁদের হাতের তালুতে যেমন কড়া (Corns) পড়ার আশঙ্কা থাকে, তেমনই চাপা জুতো পড়লেও একই সমস্যা দেখা দেয়। এছাড়াও নানা কারণে কড়া পড়তে পারে। যেমন ধরুন, হাই হিল পরে যাঁদের বহুক্ষণ দাঁড়িয়ে কাজ করতে হয়, তাঁদের পায়ের পাতায় এবং গোড়ালিতে কড়া পড়ার আশঙ্কা থাকে। এমনকী, সারা শরীরে রক্তের প্রবাহ ঠিক মতো না হলেও এমন সমস্য়ার খপ্পরে পড়ার আশঙ্কা থাকে। অনেক সময় মোজা ছাড়া জুতো পড়লেও পায়ে কড়া পড়ে। কিন্তু প্রশ্ন হল, কড়া দূর করার কোনও উপায় আছে কি? আছে বই কী! তবে তার জন্য গুচ্ছের পয়সা খরচ করার কোনও প্রয়োজন নেই। কারণ, ঘরোয়া চিকিৎসাতেই এমন সমস্যার খপ্পর থেকে নিস্তার পাওয়া সম্ভব। তাই আপনিও যদি এমন ধরনের ত্বকের রোগের শিকার হয়ে থাকেন, তা হলে বাকি প্রতিবেদনটি ঝটপট পড়ে ফেলতে দেরি করবেন না যেন! 

কড়া দূর করার ঘরোয়া উপায়

১. রেড়ির তেল

নিয়মিত দিনে তিনবার, কড়ার উপর রেড়ির তেল লাগিয়ে মিনিটদুয়েক মালিশ করলে চামড়া ধীরে-ধীরে পাতলা হতে শুরু করবে। ফলে কড়া মিলিয়ে যেতে সময় লাগবে না। তবে যতদিন না কড়া একেবারে মিলিয়ে যাচ্ছে, ততদিন এই ঘরোয়া চিকিৎসাটা চালিয়ে যেতে ভুলবেন না যেন!

২. অ্যাপেল সিডার ভিনিগার

আধ বালতি ঈষদুষ্ণ গরম জলে মিনিটপাঁচেক পা চুবিয়ে রাখার পরে এক চামচ অ্যাপেল সিডার ভিনিগারে কয়েক ফোঁটা জল মিশিয়ে সেই মিশ্রণ তুলোর সাহায্যে কড়ার উপর লাগান। মিনিটপাঁচেক পরে আর একটা তুলোতে অল্প করে টি-ট্রি তেল নিয়ে কড়ার উপর লাগাতে হবে। নিয়মিত এমনটা করলে দেখবেন দিনতিনেকের মধ্যে উপকার পাবেন। কারণ, অ্যাপেল সিডার ভিনিগার এবং টি-ট্রি তেলে উপস্থিত নানা উপকারী উপাদান কড়ার উপরে জমে থাকা মৃত কোষের স্তর সরিয়ে ফেলে চামড়াকে নরম করে তোলে। সেই সঙ্গে সেখানে উপস্থিত ক্ষতিকর ব্যাকটেরিয়া এবং জীবাণুদের মেরে ফেলে। ফলে কড়া মিলিয়ে যেতে সময় লাগে না।

৩. বেকিং সোডা

রাতে শুতে যাওয়ার আগে এক চামচ বেকিং সোডার সঙ্গে সম পরিমাণে জল এবং লেবুর রস মিশিয়ে তৈরি পেস্ট কড়ার উপর লাগিয়ে ঘুমিয়ে পরুন। পরের দিন সকালে জয়গাটা ধুয়ে ফেলুন। টানা সাত দিন এই ঘরোয়া চিকিৎসা করলে ফল পাবেই পাবেন!

৪. রসুন

কড়া দূর করতে রসুনের জুড়ি মেলা ভার। কারণ এই প্রাকৃতিক উপাদানে এমন কিছু উপকারী ভিটামিন এবং মিনারেল রয়েছে, যা এমন ধরনের ত্বকের রোগের চিকিৎসায় বিশেষ ভূমিকা পালন করে থাকে। এক্ষেত্রে রাতে শুতে যাওয়ার আগে এক কোয়া রসুন নিয়ে প্রথমে অর্ধেক করে নিতে হবে। এরপর অর্ধেক রসুনের একটা ভাগ নিয়ে কড়ার উপর মিনিটদুয়েক ঘষে নিয়ে বাকি অর্ধেক রসুন কড়ার উপর রেখে ব্যান্ড-এড লাগিয়ে ফেলতে হবে। পরের দিন সকালে জায়গাটা ভাল করে ধুয়ে নিতে ভুলবেন না যেন! টানা এক সপ্তাহ এই ঘরোয়া চিকিৎসা করলে কড়া মিলিয়ে যেতে সময় লাগবে না।

৫. পেঁপের রস

টানা এক সপ্তাহ রাতে শুতে যাওয়ার আগে কড়ার উপর অল্প করে পেঁপের রস লাগিয়ে নিন। দেখবেন, নিমেষেই কড়া মিলিয়ে যাবে। কারণ, পেঁপের রসে রয়েছে papain নামক এক ধরনের এনজাইম, যা এমন ধরনের ত্বকের রোগের চিকিৎসায় বিশেষ ভূমিকা পালন করে থাকে।

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!

আপনি যদি রংচঙে, মিষ্টি জিনিস কিনতে পছন্দ করেন, তা হলে POPxo Shop-এর কালেকশনে ঢুঁ মারুন। এখানে পাবেন মজার-মজার সব কফি মগ, মোবাইল কভার, কুশন, ল্যাপটপ স্লিভ ও আরও অনেক কিছু!