জামাকাপড় থেকে যে-কোনও রকমের দাগ তোলার জন্য ট্রাই করুন এই ঘরোয়া উপায়গুলি

জামাকাপড় থেকে যে-কোনও রকমের দাগ তোলার জন্য ট্রাই করুন এই ঘরোয়া উপায়গুলি

অফিস থেকে ফিরেই চটজলদি রান্নাঘরে ঢুকে পড়লেন। আরে, রাতের রান্নার যে দেরি হয়ে যাবে। রাতের রান্না তো হল, কিন্তু সাধের কুর্তি তেল-কালি মেখে একেবারে দফারফা। ছেলে স্কুল থেকে ফিরল বিজয়ীর হাসি নিয়ে। তার সাদা স্কুল ইউনিফর্মে জ্বলজ্বল করছে মস্ত বড় একটা গোল দাগ! সস না চাটনি সেটা সে-ই বলতে পারবে। এদিক সেদিক চলাফেরা করতে গিয়ে এরকম উটকো দাগ যে কত বার আমাদের জামা কাপড় (clothes) নষ্ট করে দেয় সে আর গুণে বলা যাবে না। অবশ্য এর থেকে সহজে মুক্তি পাওয়ার সমাধান (removing) আছে। বাজার থেকে স্টেন রিমুভার কিনে আনো আর জামায় লাগিয়ে দাও। কিন্তু স্টেন রিমুভারের ক্ষতিকর রাসায়নিক যে আপনার জামার কী হাল করবে সেটা আমরা বলতে পারব না। দাগ (stains) হয়তো উঠে যাবে, কিন্তু সুতো আলগা হয়ে যাবে, উঠতে থাকবে বাবল। একবার এই সহজ ঘরোয়া (home remedies) উপায়গুলো ট্রাই করে দেখুন না। তখন সত্যিই মনে হবে “দাগ অচ্ছে হ্যায়!” 

জরুরি টিপস

pexels.com

১) যখন দেখবেন জামায় দাগ লেগেছে, সেটা পড়ে কাচব বলে ফেলে রাখবেন না। সঙ্গে-সঙ্গে সেই দাগ তোলার চেষ্টা করবেন। না হলে দাগ শুকিয়ে যাবে। 


২) যদি নির্দিষ্ট কোনও জায়গায় দাগ লাগে, তা হলে পুরো জামা গরম জলে দেবেন না। যেখানে দাগ লেগেছে সেখানে ঠান্ডা জল ব্যবহার করুন। 


৩) ভিনিগার, লেবু, মোটা দানার নুন, বেকিং সোডা এগুলো প্রাকৃতিক ক্লেনজার। জামার দাগ হাল্কা করতে এগুলোর সাহায্য নিতে পারেন। 

বাড়িতে তৈরি করে নিন স্টেন রিমুভার

এক কাপ ভিনিগারের মধ্যে ১০ ফোঁটা লেমন এসেনশিয়াল অয়েল মিশিয়ে স্টেন রিমুভার স্প্রে তৈরি করে নিন। যেখানে দাগ লাগবে, সেখানে এই স্প্রে ব্যবহার করুন। 

কোন দাগে কোন দাওয়াই

১) রাস্তা ঘাটে লোকের তো তাড়াহুড়োর শেষ নেই। মুখ ভর্তি পান নিয়ে পুচুক করে দিল পিক ফেলে আপনার গায়ে! সেই দাগ তুলতে হলে যেখানে দাগ লেগেছে আগে তার তলায় এক টুকরো পুরনো কাপড় রাখুন। এবার একটা আলু মাঝখান থেকে কেটে নিয়ে সেটা বেশ করে ওখানে ঘষুন। তারপর ধুয়ে নিন, দাগ উঠে যাবে। 


২) জামাকাপড় শুধু নয়, টেবিল ক্লথ বা বেড কভার, সবচেয়ে কোন জিনিসের দাগ বেশি লাগেন বলুন তো? হ্যাঁ, চা আর কফি। এক-আধবার চলকে সে উঠবেই। এরকম হলে কী করবেন? এটা জুস বা সফট ড্রিঙ্কয়ের দাগের ক্ষেত্রেও প্রযোজ্য। যেখানে চায়ের দাগ লেগেছে, সেখানে মোটা দানার চিনি আর একটু জল মিশিয়ে ভাল করে ঘষুন। যত কড়া দাগ, তত বেশি চিনি দেবেন। দাগ হাল্কা হলে ধুয়ে ফেলুন।  


৩) আমরা অনেকেই খুব বেশি ঘামি। আর এই ঘাম জামা কাপড়ের উপর বিশ্রী দাগ তৈরি করে। কুছ পরোয়া নহি। কলারে বা বগলের কাছে যেখানে দাগ হয়েছে, সেখানে একটু শ্যাম্পু ঘষে নিন। তারপর সাধারণ কাপড় কাচার সাবান দিয়ে ধুয়ে নিন।  


৪) নানা রকমের দাগ আছে যেগুলিকে সহজ ভাষায় জেদি দাগ বলা হয়। অর্থাৎ সেগুলি চট করে যেতে চায় না। এই যেমন ধরুন মাছের রক্তের দাগ, সুপের দাগ, মরচে ধরার দাগ বা কাদামাটির দাগ। এগুলোর ক্ষেত্রে কাজে দেবে ভিনিগার আর নুন। যেখানে দাগ লেগেছে ভিনিগার ও নুন মিশিয়ে ঘষে দিন। তারপর ধুয়ে ফেলুন। ভিনিগারের বদলে পাতিলেবুর রসও ব্যবহার করতে পারেন। 


৫) মেকআপের জিনিসপত্র যেমন লিপস্টিক, কাজল, ফাউন্ডেশন ইত্যাদির দাগ লাগলে দৌড়ে চলে যান রান্নাঘরে। বাসি রুটি আছে? গুঁড়ো করে নিন সেটা। তারপর সেটা যেখানে দাগ লেগেছে ঘষুন। কোনওরকম জল ব্যবহার করবেন না। দাগ উঠে গেলে বাকি রুটির গুঁড়ো ঝেড়ে ফেলুন। 

এছাড়াও যেগুলো করতে পারেন

pexels.com

১) কাদার শুকনো দাগ তুলতে সেখানে টুথপেস্ট লাগিয়ে ঘষে দিন। 


২) গাড়ির তেলকালি বা গ্রিজ লাগলে সেখানে কর্নফ্লাওয়ার মাখিয়ে দিন। যখন কর্নফ্লাওয়ার কালো হয়ে যাবে ধুয়ে ফেলুন। 


৩) পেনের কালির দাগ তুলতে ব্যবহার করুন কাঁচা দুধ। সেটা তুলোয় করে নিয়ে যেখানে দাগ লেগেছে ঘষে দিন। দুধের বদলে টোম্যাটোর রসও ব্যবহার করতে পারেন। 


POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!

আপনি যদি রংচঙে, মিষ্টি জিনিস কিনতে পছন্দ করেন, তা হলে POPxo Shop-এর কালেকশনে ঢুঁ মারুন। এখানে পাবেন মজার-মজার সব কফি মগ, মোবাইল কভার, কুশন, ল্যাপটপ স্লিভ ও আরও অনেক কিছু!