স্টাইলিং করে চুল নষ্ট হয়ে গেছে? মেরামত করে নিন এই ঘরোয়া টোটকাগুলির সাহায্যে

স্টাইলিং করে চুল নষ্ট হয়ে গেছে? মেরামত করে নিন এই ঘরোয়া টোটকাগুলির সাহায্যে

আচ্ছা, আপনি নিশ্চয়ই চুল শুকোনোর জন্য হেয়ার ড্রায়ার ব্যবহার করেছেন কোনও না-কোনও সময়ে, অথবা চুলে নানা স্টাইলিং যেমন স্ট্রেটনিং বা কার্ল করেছেন? খেয়াল করে দেখেছেন কি, তারপর থেকে চুল উঠতে শুরু করেছে কিনা? আসলে বাইরে থেকে আমরা যখন চুলে হিট প্রয়োগ করি, তখন ভিতরে-ভিতরে কিন্তু নিজের অজান্তেই (আবার অনেকসময়েই জেনেশুনেও) চুলের অনেকটা ক্ষতি করে ফেলি। চুলের টেক্সচার, কিউটিকলস – এগুলো ক্ষতিগ্রস্থ হয় বাইরে থেকে হিট প্রয়োগ করার ফলে। পরে যদি ঠিকভাবে চুলের যত্ন না নেওয়া হয় তা হলে কিন্তু অকালেই চুল পড়ে মাথায় টাক পড়তে পারে। পার্লারে গিয়ে কাঁড়ি-কাঁড়ি টাকা খরচ করে নানারকম ট্রিটমেন্ট করাতেই পারেন তবে তাতে অনেকসময়ই হিতে বিপরীত হওয়ার আশঙ্কা থেকে যায়। তার চেয়ে বরং বাড়িতেই কিছু ঘরোয়া টোটকার সাহায্যে চুলের যত্ন নিতে পারেন (home remedies to cure damaged hair from heat) যাতে বাইরে থেকে হিট প্রয়োগ করার ফলে চুলের যা ক্ষতি হয়েছে তা মেরামত করা যায়।

নারকেল তেল এবং অলিভ অয়েল

শাটারস্টক

ছোটবেলায় প্রায় সবার বাড়িতেই স্নানের আগে হয় মা নয়তো অন্য কেউ জোর করে বসিয়ে মাথায় নারকেল তেল লাগিয়ে দিতেন মনে আছে? আসলে নারকেল তেল চুলে যে শুধু পুষ্টি যোগায় তা না, স্ক্যাল্পের নানা সমস্যাও দূর করে স্ক্যাল্প সুস্থ রাখতে সাহায্য করে। আর স্বাভাবিকভাবেই স্ক্যাল্প যদি সুস্থ থাকে তা হলে চুলও সুস্থ থাকবে। সমপরিমাণে নারকেল তেল এবং অলিভ অয়েল মিশিয়ে নিন এবং স্ক্যাল্পে, চুলের গোড়ায় ও সমস্ত চুলে ভাল করে লাগিয়ে নিন। হালকা হাতে স্ক্যাল্পে এই তেলের মিশ্রণ মালিশও করুন। প্রয়োজনে সারা রাত রেখে দিয়ে পরদিন মাইল্ড কোনও শ্যাম্পু দিয়ে চুল ধুয়ে নিন। যদি এতক্ষন না রাখতে চান, তা হলে অন্তত দু ঘণ্টা কিন্তু রাখবেনই। সপ্তাহে তিনদিন এভাবে চুলের যত্ন নিন, দেখবেন ধীরে-ধীরে আপনার চুল সুস্থ ও ঝলমলে হয়ে উঠবে।

পাকা কলা এবং মধু

শাটারস্টক

পাকা কলায় প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন এ রয়েছে যা চুলকে ভিতর থেকে পুষ্টি যোগায় এবং বাইরে থেকে হিট প্রয়োগ করার ফলে চুলের যা ক্ষতি হয়েছে তা মেরামত করতে সাহায্য করে। অন্যদিকে মধু একটি প্রাকৃতিক কন্ডিশনার। চুলে জেল্লা ফিরিয়ে আনতে এবং চুল মোলায়েম করতে মধু খুব উপকারী। একটি মাঝারি আকারের পাকা কলা খুব ভাল করে চটকে নিন। খেয়াল রাখবেন কোনও লাম্প বা দানা যেন না থাকে। এবার তার মধ্যে দুই চা চামচ মধু মিশিয়ে চুলের গোড়া থেকে ডগা পর্যন্ত ভাল করে লাগিয়ে নিন। অন্তত আধঘণ্টা মেখে রাখতে হবে এই হেয়ার মাস্ক। তারপরে মাইল্ড কোনও শ্যাম্পু দিয়ে ঠান্ডা জলে চুল ধুয়ে নিন। মধু একটু চটচটে হয় কাজেই চুল কিন্তু খুব ভাল করে ধুতে হবে। সপ্তাহে অন্তত একবার করে এই হেয়ার মাস্ক ব্যবহার করুন।

চা পাতা

শাটারস্টক

আজ্ঞে হ্যাঁ, চা খেয়ে এবার থেকে আর পাতা ফেলবেন না। চা পাতায় পলিফেনল নামে একটি এনজাইম রয়েছে যা নতুন চুল গজাতে সাহায্য করে। এছাড়াও সূর্যের ক্ষতিকর ইউ ভি রশ্মি থেকে চুলকে রক্ষা করে এই উপাদান। চা পাতা ফুটিয়ে নিন এবং ঠান্ডা করে নিন। এবারে চা পাতাগুলো স্ক্যাল্পে লাগিয়ে নিন এবং মিনিট ২০ রেখে দিন। এবারে মাইল্ড কোনও শ্যাম্পু দিয়ে চুল ধুয়ে নিন এবং সবার শেষে চায়ের যে জলটা ছিল তা দিয়ে চুল ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে দু’বার করুন এবং ফল দেখুন!

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!

আপনি যদি রংচঙে, মিষ্টি জিনিস কিনতে পছন্দ করেন, তা হলে POPxo Shop-এর কালেকশনে ঢুঁ মারুন। এখানে পাবেন মজার-মজার সব কফি মগ, মোবাইল কভার, কুশন, ল্যাপটপ স্লিভ ও আরও অনেক কিছু!