খুশকি, চুল পড়া, অকালপক্কতার মতো সমস্যা থেকে রেহাই পেতে নিয়মিত সরষের তেল মালিশ করুন চুলে!

খুশকি, চুল পড়া, অকালপক্কতার মতো সমস্যা থেকে রেহাই পেতে নিয়মিত সরষের তেল মালিশ করুন চুলে!

শীতকালে গা, হাত-পায়ে সরষের তেল লাগিয়ে মালিশ করার চল রয়েছে ঠিকই। কিন্তু চুলে সাধারণত কেউই সরষের তেল লাগান না। কিন্তু আসলে এই তেলটি আপনার হেয়ার কেয়ার রেজিমেরও গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গ হয়ে উঠতে পারে। স্ক্যাল্প এবং চুলের স্বাস্থ্যের উন্নতিতে এই তেল নানাভাবে সাহায্য করে থাকে। Split ends এবং চুল পড়া হার কমাতেও সরষের তেলের (mustard oil) কোনও বিকল্প হয় না বললেই চলে। চুলের স্বাস্থ্যরক্ষায় এই তেলের গুণাগুণ সম্পর্কে জানিয়ে দেওয়া হল এই প্রতিবেদনে।

আরো পড়ুনঃ প্রতিদিন নিম পাতা খেলে বাড়বে ত্বকের জেল্লা

১. চুলের ভিতরে ভিটামিন-মিনারেলের ঘাটতি দূর করে

এই তেলে মজুত রয়েছে প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টিক্সিডেন্ট, essential alpha fatty acids আর এ, ডি, ই এবং কে-এর মতো ভিটামিন, যা নতুন চুল (hair) গজাতে যেমন সাহায্য করে, তেমনই সরষের তেলে উপস্থিত ক্যালসিয়াম, জিঙ্ক, আয়রন এবং ম্যাগনেসিয়ামের মতো মিনারেল মাত্রাতিরিক্ত হারে চুল পড়ার মতো সমস্যা কমাতে বিশেষ ভূমিকা নেয়। সপ্তাহে বারতিনেক যদি চুলে সরষের তেল মালিশ করতে পারেন, তা হলে চুল পড়ার সমস্যা অনেকটাই দূর হবে। আর এই তেলের নানা উপাকারী উপাদান স্ক্যাল্পের স্বাস্থ্যেরও উন্নতি করবে।

২. চুলের হারিয়ে যাওয়া আর্দ্রতা ফিরে আসে

স্ক্যাল্প আর্দ্রতা হারালে খুশকির প্রকোপ যেমন বাড়ে, তেমনই লেজুড় হয় মাথা চুলকানির মতো সমস্যাও। পাল্লা দিয়ে হেয়ার ফলের মাত্রাও বাড়ে। তাই স্ক্য়াল্পকে আর্দ্র রাখা একান্ত প্রয়োজন। আর ঠিক এই কারণেই চুলে সরষের তেল লাগানো মাস্ট! কারণ এই তেলে মজুত রয়েছে প্রচুর পরিমাণে alpha fatty acids, যা চুল এবং স্ক্য়ালের আর্দ্রতা বাড়ায়, যে কারণে খুশকির সমস্যা তো কমেই, সঙ্গে চুলের ঘনত্বও বাড়ে চোখে পড়ার মতো।

৩. চুলের গোড়ায় রক্তের প্রবাহ বেড়ে যায়

সপ্তাহে বারতিনেক সরষের তেল মালিশ করলে চুলের গোড়ায় অক্সিজেন সমৃদ্ধ রক্তের প্রবাহ এতটাই বেড়ে যায় যে, অল্প সময়েই চুলের সৌন্দর্য বাড়ে। সেই সঙ্গে চুলের ভিতরে essential nutrients-এর ঘাটতি মিটতেও সময় লাগে না।

৪. অসময়ে চুল পেকে যাওয়ার আশঙ্কা কমে

রাতে শুতে যাওয়ার মিনিটকুড়ি আগে চুলে সরষের লাগিয়ে মিনিটপাঁচেক মালিশ করতে ভুলবেন না যেন! কারণ, নিয়মিত এই ভাবে চুলের যত্ন নিলে অসময়ে চুল পেকে যাওয়ার আশঙ্কা কমবে। বাড়বে চুলের ঔজ্জ্বল্য।

সরষের তেল মালিশের আগে মাথায় রাখুন এই বিষয়গুলি

১. আপনার চুলে কি খুব জট পড়ে? তা হলে নিয়মিত সরষের তেল মালিশ করতে ভুলবেন না যেন! তাতে উপকার পাবেন হাতে-নাতে। কারণ, সরষের তেলে রয়েছে উপকারী ফ্যাটি অ্যাসিড, যা চুল এবং স্ক্যাল্পে আর্দ্রতা বাড়ায়, যে কারণে চুলে আর জট পড়ার আশঙ্কা আর থাকে না।

২. সরষের তেল হলকা গরম করে নিয়ে যদি চুলে লাগানো যায়, তা হলে বেশি উপকার মেলে।

৩. চুলে এবং স্ক্যাল্পে সরষের তেল মালিশ করে যদি কম করে আধ ঘণ্টা রেখে দেওয়া যায়, তা হলে দ্রুত উপকার মেলে। আর যদি ঘুমতে যাওয়ার তেল মালিশ করতে পারেন, তা হলে তো কোনও কথাই নেই! 

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!

আপনি যদি রংচঙে, মিষ্টি জিনিস কিনতে পছন্দ করেন, তা হলে POPxo Shop-এর কালেকশনে ঢুঁ মারুন। এখানে পাবেন মজার-মজার সব কফি মগ, মোবাইল কভার, কুশন, ল্যাপটপ স্লিভ ও আরও অনেক কিছু!