কাছের মানুষ এড়িয়ে যাচ্ছেন? অবহেলা করছেন? জেনে নিন, এর মোকাবিলা করবেন কীভাবে

কাছের মানুষ এড়িয়ে যাচ্ছেন? অবহেলা করছেন? জেনে নিন, এর মোকাবিলা করবেন কীভাবে

আমাদের প্রত্যেকের জীবনেই নানা ওঠাপড়া লেগেই থাকে। কিন্তু খারাপ সময়ে যদি কাছের মানুষটির থেকে প্রত্যাখ্যান (ignorance) আসে এবং তা-ও একবার-দু’বার নয়, বারবার, তা হলে খারাপ লাগে বই কী! যে-কোনও সম্পর্কে (relationship), সে মা-বাবার সঙ্গে সন্তানের হোক অথবা স্বামী-স্ত্রীয়ের হোক কিংবা প্রেমিক-প্রেমিকার মধ্যের সম্পর্কই হোক, বারবার নেগলেক্টেড হতে কারও ভাল লাগে না। কিন্তু কি বলুন তো, যতক্ষণ না পর্যন্ত কারও নিজের বিবেচনা সৃষ্টি হচ্ছে, ততক্ষণ পর্যন্ত আপনি হাজার চেষ্টা করেও সামনের মানুষটির মনোভাব পরিবর্তন করতে পারবেন না। কাজেই কখনও যদি মনে হয় যে, সামনের মানুষটি আপনাকে উপেক্ষা করছেন বা বারবার আপনাকে প্রত্যাখ্যান করছেন, অথচ সেই সম্পর্ক থেকে বেরিয়ে যাওয়া আপনার পক্ষে কোনও মোটেও সম্ভব নয়, তা হলে নিজেকে একটু বদলান। কীভাবে? জেনে নিন এই প্রতিবেদনে।

মেনে নিতে শিখুন

শাটারস্টক

যদি সামনের মানুষটি আপনাকে বারবার উপক্ষে কিংবা অবহেলা করেন, তা হলে খারাপ লাগাটা যেমন স্বাভাবিক, তেমনই আপনাকে কিন্তু এই বাস্তব সত্যটি মেনে নিতে হবে যে সামনের মানুষটি আপনার কথায় একটুও পাত্তা দিচ্ছেন না! অনেক সময়েই এমন হয় যে, আপনার মা-বাবা অথবা প্রেমিক বা স্বামী নিজেকে নিয়ে অথবা নিজের কাজ নিয়ে এতটাই ব্যস্ত যে আপনাকে সময় দিতে পারেন না। এই পরিস্থিতিটি ষদি মেনে নেন, বাস্তবটা বুঝতে পারেন ঠিক করে, তা হলে কষ্টটা কিছুটা লাঘব হবে।

নিজেকে টোন ডাউন করুন

এমন তো নয় যে আপনি খুব চেঁচামেচি করে কথা বলেন অথবা কথায়-কথায় রেগে যান? যদি এমনটা হয়, তা হলে কিন্তু নিজেকে একটু বদলানোর প্রয়োজন আপনার। সামনের মানুষটি যেন হন না কেন, তিনিও তো একজন রক্তমাংসের মানুষ! হতেই পারে হয়তো আপনার এমন স্বভাবের জন্যই তিনি বা তাঁরা আপনাকে এড়িয়ে চলেন! নিজেকে একটু শান্ত রাখুন, কথা বলার সময়ে একটু টোন ডাউন করে কথা বলুন।

একটু রহস্যময়ী হয়ে উঠুন

শুনতে খারাপ লাগলেও একটা সময়ের পর কিন্তু স্বামী বলুন বা স্ত্রী, পরস্পরকে বোরিং লাগতে শুরু করে। সম্পর্ক থেকে সেই প্রাথমিক ভাল লাগার ব্যাপারটা চলে যায় এবং সম্পর্ক একটু হলেও নেতিয়ে পড়ে। এমন যদি পরিস্থিতি হয় এবং সামনের মানুষটির মধ্যে কোনও রকম হেলদোল না থাকে, তা হলে কিন্তু আপনাকেই দায়িত্ব নিয়ে একটু রহস্যময়ী হয়ে উঠতে হবে! নিজের কাজে এতটাই ব্যস্ত হয়ে যান (আর যদি কাজ না-ও থাকে, তা হলেও একটু ব্যস্ততার ভাব দেখান) যাতে সামনের মানুষটি আপনার মূল্য বুঝতে পারেন।

ঘ্যানঘ্যান করবেন না

ঘ্যানঘ্যানে মানুষকে কিন্তু কেউই খুব বেশিদিন পছন্দ করেন না। যদি বোঝেন যে, আপনার স্বামী বা প্রেমিক আপনাকে এড়িয়ে যাচ্ছেন, একদম তাদের কাছে করুণার পাত্রী হবেন না, বরং নিজেকে নিয়ে ব্যস্ত হয়ে পড়ুন। যে সব শখ-আহ্লাদ এতদিন বিসর্জন দিয়েছিলেন, সেগুলো আবার শুরু করুন। নিজের সঙ্গে একটু সময় কাটান। দরকার হলে বন্ধু-বান্ধবের সঙ্গে আড্ডা দিন, সিনেমা দেখতে যান, অথবা কোনও গঠনমূলক কাজে নিজেকে ব্যস্ত রাখুন।

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!

আপনি যদি রংচঙে, মিষ্টি জিনিস কিনতে পছন্দ করেন, তা হলে POPxo Shop-এর কালেকশনে ঢুঁ মারুন। এখানে পাবেন মজার-মজার সব কফি মগ, মোবাইল কভার, কুশন, ল্যাপটপ স্লিভ ও আরও অনেক কিছু!