হাত কোমল ও নরম রাখতে বাড়িতেই তৈরি করুন লিকুইড হ্যান্ড ওয়াশ

হাত কোমল ও নরম রাখতে বাড়িতেই তৈরি করুন লিকুইড হ্যান্ড ওয়াশ

দু'হাতে কম-বেশি ১৫০টি প্রজাতির প্রায় তিন হাজারেরও বেশি ব্যাকটেরিয়া এবং জীবাণুর সন্ধান মেলে। যেগুলি সারাক্ষণই শরীরের নানা ক্ষতি করার চেষ্টায় লেগে থাকে। তাই তো রোগ সৃষ্টিকারী এই সব জীবণুদের খপ্পর থেকে মুক্তি পেতে আট থেকে আশি, সকলেরই হ্যান্ড ওয়াশ জেল ব্যবহার করা একান্ত প্রয়োজন। কিন্তু তাতেও একটা সমস্যা রয়েছে। কী সমস্যা? বাজার চলতি লিকুইড হ্য়ান্ড সোপগুলি ক্ষতিকর ব্যাকটেরিয়াগুলিকে মেরে ফেলে ঠিকই। কিন্তু এই সব সাবানে উপস্থিত নানা কেমিকেলের কারণে ত্বকের ক্ষতি হয়ে যাওয়ার আশঙ্কা থাকে। তাই বাজার চলতি হ্যান্ডওয়াশ ব্যবহারের পরিবর্তে বাড়িতেই (home) তৈরি করে ফেলুন নানা ধরনের সুগন্ধি সব লিকুইড সাবান, যা রোগ সৃষ্টিকারী জীবাণুদের তো মারবেই, সঙ্গে হাতের সৌন্দর্যও বাড়াবে ষোলো আনা!

১. এসেনশিয়াল তেল এবং সাবান

এক বাটি মিনারেল ওয়াটারে অর্ধেক সোপ বার চুবিয়ে মিনিটপাঁচেক জলটা ফুটিয়ে নিন। যখন দেখবেন, জলটা ভাল রকম ফুটতে শুরু করেছে, তখন আঁচটা কমিয়ে দিয়ে জলটা নাড়াতে থাকুন, যাতে সাবানটা ঠিক মতো মিশে যেতে পারে। এবার আঁচটা বন্ধ করে জলটা চব্বিশ ঘণ্টা রেখে দিন। সময় হওয়ামাত্র তাতে কয়েক ফোঁটা এসেনশিয়াল তেল মিশিয়ে জলটা একটা স্প্রে বোতলে ঢেলে নিন। তারপর শুরু করুন ব্যবহার।

২. হার্বাল সোপ এবং Vanilla Extract

পছন্দের যে কোনও হার্বাল সোপ নিয়ে সেটা ভাল করে গ্রেট করে নিন। এবার সাবানের টুকরোগুলো এক বাটি মিনারেল ওয়াটারে ভিজিয়ে মিনিটদুয়েক ফুটিয়ে নিয়ে আঁচটা কম করে নিন। এবার ভাল করে জলটা নাড়তে থাকুন, যাতে সাবানটা ঠিক মতো গুলে যাওয়ার সুযোগ পায়। এই মিশ্রণটি বারো ঘন্টা রেখে দেওয়ার পরে তাতে এক চামচ Vanilla Extract মিশিয়ে ভাল করে নাড়ান। মিনিটপাঁচেক নাড়ানোর পরে মিশ্রণটি একটা বোতলে ঢেলে নিন।

৩. নারকেল তেল এবং অলিভ অয়েল

এক কাপ নারকেল তেলের সঙ্গে সম পরিমাণ অলিভ অয়েল মিশিয়ে সেই মিশ্রণে একটা সোপ বার চুবিয়ে তেলটা ততক্ষণ গরম করুন, যতক্ষণ না সাবানটা পুরোপুরি গলে যায়। তারপর দু'কাপ মিনারেল ওয়াটার যোগ করে ভাল করে নাড়ান। মিনিটপাঁচেক নাড়ানোর পরে বাটিটা চাপা দিয়ে দিন। মিনিটকুড়ি পরে আঁচটা কমিয়ে দিয়ে মিশ্রণটা মাঝে-মাঝে নাড়াতে থাকুন। যখন দেখবেন সাবানের পেস্টটা ঠিক মতো তৈরি হয়ে গেছে, তখন একটা পাত্রে কাপচারেক জল নিয়ে তা ফুটিয়ে তাতে চামচ তিনেক গ্লিসারিন এবং আগে থাকতে তৈরি করা সাবানের পেস্টটা মিশিয়ে দিন। ঘণ্টাখানেক পরে মিশ্রণটি ছেঁকে নিলেই তৈরি হয়ে যাবে হ্যান্ড সোপ। এবার সেই মিশ্রণটা একটা বোতলে ঢেলে নিয়ে ব্য়বহার শুরু করুন!

৪. নারকেল তেল, হার্বাল সাবান এবং এসেনশিয়াল তেল

দু-তিন রকমের সাবান নিয়ে তা ভাল করে গ্রেট করে নিয়ে তার থেকে এক কাপ গুঁড়ো সাবান নিয়ে একটা বাটিতে রাখুন। এবার তাতে এক চামচ নারকেল তেল এবং কাপ চারেক গরম জল মিশিয়ে ততক্ষণ নাড়ান, যতক্ষণ না সাবান গুঁড়োগুলো ভাল করে মিশে যায়। মিশ্রণটা একটু ঠান্ডা হওয়া মাত্র আরও কয়েকবার নাড়ান, যাতে সাবানটা জমে না যায়। তারপর সেই মিশ্রণে দশ-কুড়ি ফোঁটা এসেনশিয়াল তেল মিশিয়ে মিশ্রণটি একটা স্প্রে বোতলে ঢেলে নিয়ে ব্যবহার শুরু করুন।

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!

আপনি যদি রংচঙে, মিষ্টি জিনিস কিনতে পছন্দ করেন, তা হলে POPxo Shop-এর কালেকশনে ঢুঁ মারুন। এখানে পাবেন মজার-মজার সব কফি মগ, মোবাইল কভার, কুশন, ল্যাপটপ স্লিভ ও আরও অনেক কিছু!