হবু কনের জন্য দারুণ কয়েকটি লোহা বাঁধানোর ডিজাইন

হবু কনের জন্য দারুণ কয়েকটি লোহা বাঁধানোর ডিজাইন

বাঙালি (bengali) বিয়ে এখন আর অমুকের সঙ্গে তমুকের বিয়ের মতো সাদামাটা স্তরে আটকে নেই। বাঙালি বিয়ে এখন ‘দ্য বং ওয়েডিং’ হয়ে গেছে। আর হবে নাই বা কেন? বাঙালি এখন গ্লোবাল সিটিজেন। তাঁরা ডেসটিনেশান ওয়েডিং করছে, প্রি ব্রাইডাল শুট করছে। মোদ্দা কথা বিয়ের হ্যাপা এখন আগের চেয়ে অনেক বেশি। তাই বলে এটা ভেবে বসবেন না যে তাঁরা নিজেদের রীতিনীতি আর নিয়ম ভুলে গেছে। তবে যে সব গয়না বাঙালি বিয়ের অবিচ্ছেদ্য অংশ, সেগুলোও এখন স্টাইল স্টেটমেন্ট বা ফ্যাশন স্টেটমেন্ট হয়ে গেছে। যেমন ধরুন নোয়া বাঁধানো বা লোহা বাঁধানো। এটা দিয়েই শাশুড়ি বউমাকে (brides) আশীর্বাদ করেন। তাই বলে সেটা কি আর যেমন তেমন হতে পারে। একদম নয়। যাঁদের সামনে বিয়ে বা যাঁদের উপর অন্য কারও বিয়ের কেনাকাটার বিশাল দায়িত্ব অর্পিত, তাঁরা দেখে নিন এই দারুণ কয়েকটি লোহা বাঁধানোর (loha badhano) ডিজাইন (designs)। 

কেন পরা হয় এই লোহা বাঁধানো?

হিন্দু রীতি অনুযায়ী এয়োস্ত্রী অর্থাৎ বিবাহিত মহিলার হাতে থাকে লোহা বাঁধানো। এটি মেয়েরা বাঁ হাতে পরেন। তবে কেন এটি পরা হয় সেই নিয়ে নানা মত প্রচলিত আছে। অনেকে বলেন প্রাচীন কালে অর্থাৎ সেই রাজা রাজড়াদের যুগে পুরুষের যে মেয়েকে পছন্দ হত, তাঁকে তাঁরা হরণ করে নিয়ে যেতেন। মেয়ে যাতে পালিয়ে না যায় তার জন্য হাতে পরানো হত লোহার বেড়ি বা লোহার শিকল। সেটাই কালক্রমে লোহা বাঁধানোয় পরিণত হয়েছে। অনেকে আবার এই নিয়ে ভিন্ন মত পোষণ করেন। তাঁরা মনে করেন লোহা হল একটি শুদ্ধ ধাতু এবং অক্ষয় ধাতু। সংসারে যে নতুন রমণী আসছে তাঁর আগমন যেন শুদ্ধাচারে হয় এবং তাঁর সংসারের সুখ যাতে অক্ষয় ও অখণ্ড হয় সেই জন্যই এই ধাতু পরিয়ে দেওয়া হয়। 

লোহা বাঁধানো কিনতে যাওয়ার আগে কী কী দেখে নেবেন

১) যেহেতু লোহার উপরে সোনা দিয়ে বাঁধানো থাকে সেহেতু সোনার দাম বাড়া কমার উপর অনেক কিছু নির্ভর করে। সুতরাং আগে বাকি কেনাকাটা সেরে নেওয়া যাক, লোহা বাঁধানো পড়ে কিনলেও হবে এটা ভাববেন না। বরং সোনার দাম যখন কমছে তখন অন্যান্য গয়নার সাথে এটা কিনে নিন। 


২) যিনি পরবেন এই লোহা বাঁধানো তাঁর হাতের মাপ সম্পর্কে ওয়াকিবহাল থাকতে হবে। লোহা বাঁধানো যাতে বেশি ঢলঢলে বা বেশি টাইট যেন না হয় সেদিকে খেয়াল রাখবেন। নইলে সেটা হাতে পরলে মোটেও ভাল লাগবে না। 


৩) যদি দেখেন যে সেইভাবে রেডিমেড লোহা বাঁধানো আপনার পছন্দ হচ্ছে না তাহলে আগে থেকে মেয়ের হাতের মাপ নিয়ে স্যাকরাকে দিয়ে এটা গড়িয়ে রাখুন। 


৪) যখন লোহা বাঁধানো কিনবেন তখন দেখে নেবেন লোহার উপর সোনার পাত ঠিকঠাক বসেছে কিনা। যদি লক বা আংটা সিস্টেম হয় তাহলে চেক করে নেবেন সেটা টাইট আছে কিনা। 


৫) লোহা হচ্ছে এমন ধাতু যা গরমকালে প্রসারিত হয় এবং শীতকালে সঙ্কুচিত হয়। তাই বহু বছর হাতে পরে থাকলে অনেক সময় লোহার উপর সোনার মোড়ক ঢিলে হয়ে যায় বা বেঁকে যায়। তাই যে দোকান থেকে যখনই লোহা বাঁধানো কিনবেন তার রিসিট যত্ন করে রেখে দেবেন। কারণ এক বা দু’বছরের মধ্যে কোনও অসুবিধা হলে গয়নার দোকান সেটা ঠিক করে দেবে। রিসিট থাকলে সেটা বিনামূল্যেই হবে। 

এবার লোহা বাঁধানোর কয়েকটি ডিজাইন দেখে নেওয়া যাক

tajonline
senco gold
A.Sircar
infinitesoldier
senco gold

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!

আপনি যদি রংচঙে, মিষ্টি জিনিস কিনতে পছন্দ করেন, তা হলে POPxo Shop-এর কালেকশনে ঢুঁ মারুন। এখানে পাবেন মজার-মজার সব কফি মগ, মোবাইল কভার, কুশন, ল্যাপটপ স্লিভ ও আরও অনেক কিছু!

Featured Image Jhum9037, sudiptopage3, wedzeddayidea