বিয়ের পর শ্বশুরবাড়ি যাওয়ার জন্য কীভাবে নিজের সুটকেস গোছাবেন হবু কনে

বিয়ের পর শ্বশুরবাড়ি যাওয়ার জন্য কীভাবে নিজের সুটকেস গোছাবেন হবু কনে

বিয়ের মরসুম তো বলতে গেলে প্রায় এসেই গেল, আপনাদের মধ্যেও অনেকেরই হয়তো সামনেই বিয়ে (wedding)। বিয়ের দিন কী পরবেন, কেমন সাজবেন, বিয়েতে কেমন মেনু হবে, বিয়েবাড়ির ডেকরেশন কেমন হবে, ছবি ঠিক কীভাবে তুলবেন – মোটামুটি সবই হয়তো ঠিক করে ফেলেছেন, তবে একটা গুরুত্বপূর্ণ বিষয় কিন্তু আমরা প্রায়ই এড়িয়ে যাই, তা হল কনের সুটকেস গোছানো। অনেকেই হয়তো বলবেন, আরে বাবা বউভাতের দিন তো তত্ত্ব হিসেবে কনের সুটকেস যাবেই আর সঙ্গে যাবে তার সব প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র। কিন্তু বিয়ে আর বউভাতের মাঝের দিনগুলোতেও তো নতুন বউ-এর কিছু দরকারি জিনিস প্রয়োজন, তাই না? আপনাদের কাজ সহজ করে দেওয়ার জন্য এখানে একটা চেকলিস্ট দিয়ে দিচ্ছি কী-কী ভরবেন সুটকেসে (suitcase) যাতে শ্বশুরবাড়িতে গিয়ে কোনও অসুবিধে না হয়!

শ্বশুরবাড়ি যাওয়ার জন্য কীভাবে সুটকেস গোছাবেন

শাটারস্টক

  • সবচেয়ে প্রথমেই ফোনের চার্জার আর পাওয়ার ব্যাঙ্ক নিতে ভুলবেন না। ফোনে যদি চার্জ না থাকে তা হলে কিন্তু কারও সঙ্গে কথাও বলতে পারবেন না, আর সেলফি তুলে সোশ্যাল মিডিয়াতেও পোস্ট করতে পারবেন না।
  • ভাল একটা মেকআপ রিমুভার কিন্তু অবশ্যই সুটকেসে রাখবেন। বিয়েতে প্রচুর মেকআপ করতে হবে আর তা তুলতে কিন্তু বেশ মেহনত করতে হবে। আপনার ত্বক যদি অয়েলি হয় তা হলেও অয়েল বেসড মেকআপ রিমুভারই রাখুন। কারণ, ভারী ব্রাইডাল মেকআপ তুলতে ওটিই কাজে আসবে। মেকআপ রিমুভারের সঙ্গেই কটন প্যাড বা তুলোর বলের একটা প্যাকেট রেখে নেবেন।
  • একটা ছোট হেয়ার অয়েলের শিশি রাখবেন। বিয়েতে মেকআপের সঙ্গেই হেয়ারস্টাইলও তো করবেন নজরকাড়া, কিন্তু বেশ অনেকক্ষণ সেই হেয়ারস্টাইল একইভাবে ধরে রাখতে সাহায্য নিতে হবে প্রচুর ববি পিন, হেয়ার পিন, ক্লিপ আর হেয়ার স্প্রে-র, তাতে চুলের ক্ষতি যে হবে তা তো আলাদা, চুলে জট পড়ার আশঙ্কাও কিন্তু থেকেই যাবে। বিয়ের পর শ্বশুরবাড়ি গিয়ে চুলের জট ছাড়াতে কিন্তু তখন হেয়ার অয়েলই কাজে আসবে। হেয়ার অয়েলের সঙ্গেই রেখে দিন একটা ছোট শ্যাম্পু এবং কন্ডিশনারের বোতল। এর সঙ্গেই নিয়ে নিন টুথব্রাশ, টুথপেস্ট আর মাউথওয়াশের ছোট একটা শিশি।
  • এছাড়াও রাখুন দু’ ধরনের চিরুনি, একটি বড় দাঁতওয়ালা এবং একটি সরু দাঁড়ার চিরুনি। চুলের জট ছাড়াতে কাজে লাগবে বড় দাঁতওয়ালা চিরুনি আর স্নান করে চুল আঁচড়াতে বা চুল বাঁধার জন্য কাজে লাগবে সরু দাঁড়ার চিরুনি।
  • দু’-একদিনের ঘরে পরার মতো পোশাক গুছিয়ে নিন। যদি আপনার শ্বশুরবাড়িতে নতুন বউ-এর শাড়ি পরার নিয়ম থাকে তা হলে দু’-তিনটি ভাল কিন্তু নরম শাড়ি নিন, সঙ্গে রাখুন ম্যাচিং ব্লাউজ, পেটিকোট এবং অন্তর্বাস। রাতে শোওয়ার পোশাক কিন্তু আলাদাই নিতে হবে। অন্তর্বাস যখন নেবেন, একটু বেশি করে নিয়ে নিন।
  • মানিব্যাগ নিতে ভুলবেন না। মানিব্যাগে শুধু টাকা পয়সা নয়, রাখুন জরুরি কাগজপত্র, পরিচয়পত্র ইত্যাদিও।
  • স্যানিটারি ন্যাপকিনের প্যাকেট কিন্তু আবার ভুল করে সুটকেসে রাখবেন না, বরং হ্যান্ডব্যাগে রাখুন। আপনার যদি বিয়ের তারিখের আগে-পরে ঋতুস্রাবের তারিখ না-ও থাকে, বলা যায় না কখন অনাহুতের মতো পিরিয়ড শুরু হয়ে যাবে! কাজেই আগে থেকেই ব্যবস্থা করে রাখা ভাল, তাই না?
  • একটা স্নানের পর গা মোছার জন্য তোয়ালে, মুখ মোছার একটা ছোট নরম তোয়ালে আর কয়েকটি রুমাল রেখে দিন সুটকেসে। প্রয়োজনে একটা ভেজা টিসুর ছোট প্যাকেটও রাখুন।
  • ঘরে পরার একটা চটি রেখে দিন আর বাইরে পরার একটা নরম চটিও রাখুন। 
  • টুকটাক কিছু মেকআপের সরঞ্জাম রাখতে ভুলবেন না। বি বি বা সি সি ক্রিম, কম্প্যাক্ট, কাজল, দু’একটা লিপস্টিক এবং লিপ বাম, ময়শ্চারাইজার – এগুলো রাখুন।
  • একটা ফার্স্ট এড বক্স রাখুন যাতে আপনার প্রয়োজনীয় ওষুধ রাখতে পারেন। আপনি যদি কোনও নির্দিষ্ট ওষুধ খান তা তো রাখবেনই, সঙ্গে কিছু বেসিক ওষুধ যেমন জ্বরের ওষুধ, পেট খারাপের ওষুধ, কাটা-ছড়ার মলম, ব্যাথার অয়েন্টমেন্ট ইত্যাদিও রাখুন। 
  • নতুন বউকে কিন্তু সবসময় গয়নাগাঁটি পরে থাকতেই হয়। কাজেই ঘরে পরার কিছু ছোট দুল, গলার হার রাখুন। এগুলো একটা ছোট বাক্স ভরে সেটা তালা দিয়ে সুটকেসে রাখবেন।
  • অনেকেই বিয়ের পরপরই হনিমুনের জন্য রওনা দেন। ভুলেও কিন্তু সুটকেসে হনিমুনে পরার জন্য যে সাহসী রাতপোশাকগুলো কিনেছেন, সেগুলো সুটকেসে রাখবেন না! অন্য কেউ যদি আপনার সুটকেসে হাত দেন, তা হলে দৃশ্যটা খুব সুখকর হবে না!

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!

আপনি যদি রংচঙে, মিষ্টি জিনিস কিনতে পছন্দ করেন, তা হলে POPxo Shop-এর কালেকশনে ঢুঁ মারুন। এখানে পাবেন মজার-মজার সব কফি মগ, মোবাইল কভার, কুশন, ল্যাপটপ স্লিভ ও আরও অনেক কিছু!