পার্টনারের সঙ্গে একটু দুষ্টুমি করতে ইচ্ছে করছে? বেছে নিন দুষ্টুমির নতুন ভাষা সেক্সটিং

পার্টনারের সঙ্গে একটু দুষ্টুমি করতে ইচ্ছে করছে? বেছে নিন দুষ্টুমির নতুন ভাষা সেক্সটিং

খোলাখুলি বলার দিন শেষ আর সত্যি কথা বলতে খোলাখুলি সবকিছু বলে দেওয়াতে সেই মজাটাও নেই! এখন হচ্ছে আকারে-ইঙ্গিতে বোঝানোর দিন! সবটা বললেন, কিন্তু বললেনও না। আর এই ঢাক-ঢাক, গুড়-গুড়, অল্প কথায় উস্কে দেওয়ার ব্যাপারটা যখন দুষ্টুমির পর্যায়ে পৌঁছে যায়, তখনই হেপ অ্যান্ড হ্যাপেনিং ভাষায় তাকে বলে সেক্সটিং! মানে, যেটা আপনার সঙ্গীকে আপনার মনের কথা বুঝিয়ে দেবে, জানিয়ে দেবে আপনি এই মুহূর্তে তাঁকে উস্কে দিতে চাইছেন, কিন্তু শালীনতার মাত্রা না ছাড়িয়ে, বাঙালি পরিশীলতা বজায় রেখে! আপনি চাইলে আরও দুষ্টুমিও (playing dirty) করতে পারেন, সেটা আপনার আর পার্টনারের ব্যাপার। কিন্তু তার আগে এই সেক্সটিং (sexting) সম্বন্ধে একটু ছোট্ট করে জ্ঞান দিয়ে দেওয়া যাক!

কাকে বলে সেক্সটিং

সেক্সুয়াল কথাবার্তা যখন আপনি টেক্সটের মাধ্যমে বলেন, তখনই তাকে বলে সেক্সটিং! মানে, আপনি এখন আপনার সঙ্গীকে (partner) ঠিক কীভাবে কাছে পেতে চাইছেন, তাঁকে নিয়ে দুষ্টুমিভরা কোন চিন্তাটি আপনার মাথায় এখন ঘুরপাক খাচ্ছে, এটা ছোট্ট-ছোট্ট মেসেজের মাধ্যমে বুঝিয়ে দেওয়ার শিল্পটিকেই বলা হয় সেক্সটিং। এটা কখন করবেন, সেটা আপনার ইচ্ছে, কাকে করবেন সেটাও একান্তভাবেই আপনার ইচ্ছে! কিন্তু এমনভাবে করতে হবে, যাতে উল্টোদিকের লোকটির মনেও আস্তে-আস্তে দুষ্টুমি করার ইচ্ছেটা মাথা চাড়া দিয়ে ওঠে আর তিনিও আপনাকে পাল্টা সেক্সট পাঠাতে শুরু করেন! তবেই জানবেন, আপনি একজন সফল সেক্সটার হতে পেরেছেন! 

কীভাবে শুরু করবেন এই সেক্সটিং গেম

pixabay

যে-কোনও দুষ্টুমিভরা গেমের মতোই সেক্সটিংয়েরও কিছু নিয়ম আছে! নিয়ম মানে কায়দা আর কী, যাতে মিনিমাম পরিশ্রমে ম্যাক্সিমাম ফায়দা হয়! যেমন...

  • সেক্সটিং শুরু করার আগে নিজের একটা হট ফোটো তুলে ফেলুন। ভাল করে ফোনে বিভিন্ন ফোটো এডিটরে সেটা এডিট করে পার্টনারকে পাঠিয়ে দিন! যদি নিজের ছবি পাঠাতে না চান (বলা যায় না, ফোন চুরি গেলে ওই ফোটো অনেক বিপদ ডেকে আনতে পারে), তা হলে কোনও নায়িকার হট ছবি নিয়ে ক্রপ করে পাঠিয়ে দিন! 
  • তিনি অফিসে বসে কাজ করছেন আর আপনি দুষ্টুমি করতে চান বলে সেক্সটিং শুরু করলেন, এমনটা করবেন না।
  • স্বামী টুরে বাইরে গিয়েছেন অথবা অনেকদিন বয়ফ্রেন্ডের সঙ্গে দেখা হয়নি, এমন সময় সেক্সটিংয়ের জন্য আদর্শ!
  • সেক্সটিংয়ের সবচেয়ে ভাল সময় হল রাত! আটটা থেকে শুরু করুন, তারপর যত রাত গড়াবে, দুষ্টুমির মজাটা ততই বাড়বে।
  • স্বামীর সঙ্গে সেক্সটিং করছেন ঠিক আছে, কিন্তু বয়ফ্রেন্ডের সঙ্গে সেক্সটিং করবেন ভেবেচিন্তে। কখন কার সঙ্গে ব্রেক আপ হয়ে যাবে আর সে এই সব মেসেজের ফায়দা তুলবে, তা কিন্তু আপনি জানেন না!

কিছু সেক্সটিং স্যাম্পল, শুধুমাত্র আপনাদের জন্য...

pixabay

কী লিখবেন ভেবে পাচ্ছেন না, এদিকে সেক্সটিং ব্যাপারটা ভারী পছন্দ হয়েছে? বুঝতে পেরেছি আর তাই এখানে নিয়ে এসেছি ১০টি স্যাম্পল সেক্সট, এগুলো দেখে ইন্সপায়ার্ড হোন কিংবা জাস্ট কপি-পেস্ট করে পাঠিয়ে দিন তাঁকে!

১. তোমাকে এখন কত্তটা পাশে চাইছি (তা-ও পোশাক পরা অবস্থায় নয়!), সেটা না বলতে পারলে আমার ঘুমটাই আসছে না ;)

২. ইশশশ...বাইরে তুমুল বৃষ্টি পড়ছে...এই ঠান্ডা, ঠান্ডা আবহাওয়ায় তোমাকে জড়িয়ে ধরে শুয়ে থাকার মজাটাই আলাদা...ভাবলেই শরীর গরম হয়ে যাচ্ছে...

৩. (বিছানায় নিজের একটা আবেদনময় ছবি পাঠিয়ে)...যদি এখন তুমি আমার পাশে থাকতে...

৪. আমি এখানে বেডে শুয়ে আছি, তুমি ওখানে বেডে শুয়ে আছ...কেউ তো একটা ভুলভাল জায়গায় আছি, তাই না!

৫. মনে পড়ছে, শেষ বার আমরা যখন..............করেছিলাম? আচ্ছা, এবার লক্ষ্মী ছেলেটির মতো ঘুমিয়ে পড়ো!

৬. গুড নাইট, শুধু মনে রেখো, আজ রাতে যদি আমি তোমার স্বপ্নে আসি, তা হলে প্লিজ আমার সঙ্গে দুষ্টুমি কোরো!

৭. আমার বেডটাইম স্টোরির নায়ক কিন্তু তুমিই, শুধু তখন তুমি এক্কেবারে....

৮. এখন আমি নিজেই নিজের রাতপোশাকের তারিফ করছি, কারণ তুমি তো আর পাশে নেই!

৯. আমি তোমাকে সামনে পেলে এখন তিনটে জিনিস করতাম! কী, কী, সেটা ভাবতে-ভাবতেই না হয় ঘুমিয়ে পড়ো!

১০. ভাগ্যিস তুমি আজ আমার পাশে নেই! কারণ, আমার খুউব ঘুম পেয়েছে! আর তুমি থাকলে তো আর ঘুম হতো না....

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!

আপনি যদি রংচঙে, মিষ্টি জিনিস কিনতে পছন্দ করেন, তা হলে POPxo Shop-এর কালেকশনে ঢুঁ মারুন। এখানে পাবেন মজার-মজার সব কফি মগ, মোবাইল কভার, কুশন, ল্যাপটপ স্লিভ ও আরও অনেক কিছু!