শুষ্ক ত্বক থেকে পিগমেন্টেশন, ত্বকের ছোট-বড় সব সমস্যা দূর হবে গাজরের গুণে!

শুষ্ক ত্বক থেকে পিগমেন্টেশন, ত্বকের ছোট-বড় সব সমস্যা দূর হবে গাজরের গুণে!

এত দিন তো জানতাম, গাজর খেলে শরীর ভাল থাকে, ত্বকও যে সুন্দর হয়ে ওঠে সে কথা তো জানা ছিল না! সত্যিই কি গাজর খেলে ত্বকের উপকার হয়? অবশ্যই হয়! তবে গাজর খাওয়ার পাশাপাশি যদি এই সবজিটিকে কাজে লাগিয়ে তৈরি ফেসপ্যাক মুখে লাগাতে পারেন, তা হলে তো কথাই নেই। সেক্ষেত্রে ত্বকের লাবণ্য এমন বাড়বে যে প্রসাধনী ব্যবহারেরও প্রয়োজন পরবে না। বলেন কী! তা হলে তো গুচ্ছের টাকাও বাঁচবে, আবার ত্বক নিয়ে কোনও চিন্তাও থাকবে না। একদম ঠিক বলেছেন! তাই তো বলি, অল্প দিনেই ত্বকের ছোট-বড় নানা সমস্যাকে গোড়া থেকে নির্মূল করে ত্বকের জেল্লা বাড়াতে চান তো জেনে নিন গাজরের (Carrots) ফেসপ্যাক তৈরির নানা সহজ উপায় সম্পর্কে।

১. শুষ্ক ত্বকের সমস্যা দূর করবে এই ফেসপ্যাক

গাজরে প্রচুর পটাশিয়াম রয়েছে, যা ত্বককে আর্দ্র রাখে। ফলে শুষ্কতা দূর হতে সময় লাগে না। তাহলে কি গাজর খেলেই চিন্তা দূর হবে? অর্ধেকটা খেতে পারেন, তাতে কোনও ক্ষতি নেই! কিন্তু বাকি অর্ধেকটা ভাল করে গ্রেট করে পেস্ট তৈরি করে নিয়ে তার সঙ্গে এক চামচ মধু এবং দুধ মিশিয়ে সেই মিশ্রণটা সারা মুখে লাগিয়ে দেরি করবেন না যেন! তারপরে কম করে মিনিটপনেরো অপেক্ষা করেতে ঠান্ডা জল দিয়ে মুখ ধুয়ে নিতে হবে। সপ্তাহে দিন দুয়েক এই পেস্ট মুখে লাগালেই ত্বকের আর্দ্রতা এমন বাড়বে যে শীতকালেও ময়েশ্চারাইজার ব্যবহারের প্রয়োজন পড়বে না।

২. তৈলাক্ত ত্বকের জন্য এটা আদর্শ ফেসপ্যাক

যাঁদের তেলতেলে ত্বক, তাঁদের যে কত ঝক্কি, সে খবর রাখি আমরাও। তাই তো আপনার হাতে আজ এমন একটা ফর্মুলা তুলে দিচ্ছি, যা আপনার সব চিন্তা দূর করবে। কী ফর্মুলা? তেমন কিছু নয়। এক কাপ গাজরের রসের সঙ্গে এক চামচ করে দই, বেসন এবং লেবুর রস মিশিয়ে একটা ফেসিমাল মাস্ক তৈরি করে নিন। এবার সেটা মুখে লাগিয়ে মিনিটকুড়ি অপেক্ষা করুন। সময় হলে হলকা গরম জল দিয়ে ভাল করে মুখ ধুয়ে নিন। সপ্তাহে বার তিনেক এইভাবে ত্বকের যত্ন নিলে ত্বকের ভিতরে ভিটামিন এ সহ একাধিক উপকারী উপাদানের মাত্রা বাড়তে শুরু করবে, যার প্রভাবে ত্বকের তৈলাক্ত ভাব তো কমবেই, সঙ্গে ব্রণ এবং পিগমেন্টেশনের মতো সমস্যাও দূর হবে। দাগ-ছোপ মিলিয়ে যেতেও দেখবেন সময় লাগবে না।

৩. ত্বককে ভিতর থেকে সুন্দর করে তুলতে চান নাকি?

ত্বক ভিতর থেকে সুন্দর হয়ে উঠলে বাইরের লাবণ্যও বাড়ে। কিন্তু প্রশ্ন হল, এই কাজটা করবেন কীভাবে সে সম্পর্কে জানা আছে কি? একটা সহজ উপায়ে ত্বককে ভিতর থেকে সুন্দর করে তোলা সম্ভব। কীভাবে? চামচ চারেক গাজরের রসের সঙ্গে এক চামচ দই এবং একটা ডিমের সাদা অংশ মিশিয়ে তৈরি পেস্ট মুখে লাগিয়ে মিনিটপনেরো অপেক্ষা করুন। তারপর হালকা গরম জল দিয়ে মুখ দুয়ে নিন। একদিন অন্তর অন্তর এই ফেসপ্যাকটি মুখে লাগালে গাজর, দই এবং ডিমে উপস্থিত একাধিক ভিটামিন এবং মিনারেলের গুণে ত্বক ভিতর থেকে সুন্দর হয়ে উঠবে। এমনকী, ত্বকের উপরে জমে থাকা মৃত কোষের স্তরও সরে যাবে, যে কারণেও ত্বকের লাবণ্য বাড়বে।

৪. ত্বকের বয়স কমাবে এই ফেসপ্যাক

ত্বক যাতে অসময়ে বুড়িয়ে না যায়, তা সুনিশ্চিত করতে ত্বকের যত্নে গাজরকে কাজে লাগাতে ভুলবেন না যেন! এক্ষেত্রে চামচপাঁচেক গাজরের রসের সঙ্গে চামচতিনেক অ্যালোভেরা জেল মিশিয়ে তৈরি পেস্ট নিয়মিত মুখে লাগাতে হবে। তাতে ত্বকের ভিতরে ভিটামিন সি এবং অ্যান্টিঅক্সিডেন্টের মাত্রা বাড়ার কারণে বলিরেখা মিলিয়ে যেতে সময় লাগবে না। সঙ্গে ত্বকের ইলাস্টিসিটিও বাড়বে, ফলে ত্বকের বয়সও কমবে!

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!

আপনি যদি রংচঙে, মিষ্টি জিনিস কিনতে পছন্দ করেন, তা হলে POPxo Shop-এর কালেকশনে ঢুঁ মারুন। এখানে পাবেন মজার-মজার সব কফি মগ, মোবাইল কভার, কুশন, ল্যাপটপ স্লিভ ও আরও অনেক কিছু!