আলমারি গোছানোর ২০টি টিপস, জেনে নিন এই আসবাবটি কী করে পরিপাটি করে রাখবেন

আলমারি গোছানোর ২০টি টিপস, জেনে নিন এই আসবাবটি কী করে পরিপাটি করে রাখবেন

যাই বলুন, তাই বলুন, আলমারি গোছানো কিন্তু ভারী কঠিন কাজ! যতই মাথা খাটিয়ে বের করুন না কেন যে, শাড়িগুলো এভাবে রাখবেন, ব্লাউজ রাখবেন খাপে পুরে, জিনস আর টপ আলাদা-আলাদা করে গুছিয়ে রাখবেন, অন্তর্বাস আলাদা ড্রয়ারে রাখবেন, গোছানোর কিছুদিন পরেই দেখবেন সব আবার যে-কে সেই হয়ে গিয়েছে! জিনসের মধ্যে নুখ লুকিয়েছে টপ, কুর্তি আর কামিজ আলাদা করে বোঝার উপায় নেই, ব্রা আর প্যান্টি কোনওদিনও সবক'টা খুঁজে পাবেন না আর শাড়ির ব্লাউজ তো কোথায় যে সেঁধিয়েছে, কে জানে! অথচ কতগুলো সহজ, সাদাসিধে টিপস মেনে চললেই কিন্তু আলমারি (Wardrobe) দিব্যি গুছিয়ে (organise) ফেলা যায় এবং গুছিয়ে রাখাও যায়! আর পরিপাটি করে গুছিয়ে রাখা আলমারি যে স্কুল-কলেজ-অফিস যাওয়ার সময় কত্তটা কাজে আসে, তা আমরা সকলেই জানি। এখানে শেয়ার করা হল কয়েকটি টিপস (tips) যা আপনাদের আলমারি গোছানোর কাজে আসবে...

তবে আলমারি গোছানোর আসলে তিনটে ধাপ আছে। এক, আলমারি খালি করা। দুই, পোশাক সর্টিং করা। তিন, গুছিয়ে ফেলা। এক-এক করে এই তিনটি ধাপে আমরা আসছি। 

১. আলমারি গোছানোর আগের কাজ

  • আগে আলমারি পুরো খালি করে সব জামাকাপড় খাটের উপর ডাঁই করে রাখুন। 
  • কী-কী পোশাক আলমারিতে রাখবেন আর কোনগুলি রাখবেন না, আগে থেকে তার একটা লিস্টি তৈরি করুন। যেমন ধরুন, বাড়িতে রোজকার পরার বেশিরভাগ পোশাকই আমরা হয় আলনায়, নয় অন্য কোনও ওয়ার্ডরোবে রাখি। আর ভাল পোশাক রাখি আলমারিতে। আপনিও যদি তেমনটা করেন, তা হলে এই লিস্টের প্রয়োজন আছে।
  • আপনার কাছে কোন-কোন ধরনের পোশাক আছে, তা নিয়ে একটা তালিকা তৈরি করুন। মানে, শাড়ি, ব্লাউজ, সালোয়ার-কামিজ, জিনস, টপ, কুর্তা ইত্যাদি কী-কী জিনিস আছে আর তা ক'টা করে আছে, সেটার একটা লিস্ট করে ফেলা জরুরি!
  • আলমারি খালি হলে একটা শুকনো কাপড় নিয়ে প্রতিটা তাক ভাল করে মুছে ফেলুন। অনেক সময় আলমারির দরজায় কোণে ধুলো-ঝুল জমে। সেগুলোও ভাল করে পরিষ্কার করুন। কারণ, এখান থেকেই পরে পোকামাকড়ের উপদ্রব বাড়ে।

২. পোশাক বেছেবুছে রাখার কায়দা

ইনস্টাগ্রাম

  • প্রথমেই করতে হবে সর্টিং, যেটা সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ এবং বিরক্তিকর কাজ। সব ধরনের পোশাক আলাদা, আলাদা করে স্ট্যাক করুন। 
  • এবার দেখুন, কোন পোশাক সবচেয়ে বেশি জায়গা জুড়বে। এখানে একটা মজা আছে। শাড়ি সংখ্যায় কম হলেও, জায়গা নেয় বেশি আর পশ্চিমি টপ ও কুর্তি সংখ্যায় বেশি হলেও জায়গা নেয় কম! সুতরাং, সংখ্যা দেখে ভুলবেন না, জায়গা কোনটা বেশি নিচ্ছে সেটা দেখুন।
  • শাড়ি ঝুলিয়ে রাখতে চাইলে যথেষ্ট সংখ্যক হ্যাঙ্গার আছে কিনা দেখে নিন। হ্যাঙ্গার কিনবেন প্লাস্টিকের, কাঠের হ্যাঙ্গার কিন্তু বেশি জায়গা জোড়ে!
  • পুরনো, বেশিদিন ধরে ব্যবহার করা পোশাক আর নতুন পোশাক আলাদা করে রাখুন। 

৩. আলমারি গোছাবেন কীভাবে

ইনস্টাগ্রাম

  • আলমারির প্রতিটি তাকে পুরনো শাড়ি কিংবা দোপাট্টা কিংবা তোয়ালে পেতে দিন টান-টান করে। তার ভাঁজে রাখুন ধূপের কিংবা গায়ে মাখার সাবানের খালি প্যাকেট। এতে সুন্দর গন্ধ হবে। অনেকে আজকাল ওডোনিলের প্যাকেটও আলমারির দরজায় টানিয়ে রাখেন, সেটাও করতে পারেন।
  • ন্যাপথালিন বল ছোট-ছোট মলমলের কাপড়ে পুঁটুলি বাঁধুন। এবার তাকের বিভিন্ন জায়গায় সেগুলো গুঁজে দিন।
  • যে পোশাকগুলো আপনি সাধারণতই কলেজে-অফিসে যাওয়ার সময় পরেন, সেগুলো হাতের কাছের তাকে রাখুন। আর যেগুলো কালেভদ্রে পরেন, সেগুলো রাখুন নীচের কিংবা উপরের তাকে। 
  • আলমারির দরজায় মাল্টি ইউটিলিটি হ্যাঙ্গার ঝুলিয়ে রাখতে পারেন ওড়না কিংবা স্কার্ফ ঝুলিয়ে রাখার জন্য। 
  • আলমারির হ্যাঙ্গার ঝোলানোর তাকটিতে যেখানে শাড়ি ঝোলাবেন, তার তলায় বেশ কিছুটা জায়গা খালি থেকে যায়। এখানে ব্লাউজের খাপে ব্লাউজ পুরে রাখুন। এই ধরনের খাপেই রাখতে পারেন অন্তর্বাস। ব্রায়ের জন্য আলাদা খাপ রাখুন, প্যান্টির জন্য আলাদা।
  • আলমারির ড্রয়ার ব্যবহার করুন কস্টিউম জুয়েলারি রাখার কাজে।
  • নীচের তাকে, যেখানে ভাল শাড়ি বা অন্য পোশাক রাখবেন, তারই একপাশে সাজিয়ে রাখুন আপনার ব্যাগের সম্ভার।
  • আলমারির লকারে সাধারণত দামি গয়না রাখি আমরা। আপনার জরুরি কাগজপত্রও সেখানে রাখতে পারেন।
  • ময়শ্চারের সমস্যা দূর করতে আলমারির তাকে ছোট-ছোট সিলিকা জেলের প্যাকেট রাখতে পারেন।
  • ড্রয়ারে আরও বেশি কিছু রাখতে চাইলে ব্যবহার করুন ড্রয়ার অর্গানাইজার। এই ধরনের অর্গানাইজার আপনার তাকেও বাড়তি জায়গা তৈরি করে দিতে পারে।

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!

আপনি যদি রংচঙে, মিষ্টি জিনিস কিনতে পছন্দ করেন, তা হলে POPxo Shop-এর কালেকশনে ঢুঁ মারুন। এখানে পাবেন মজার-মজার সব কফি মগ, মোবাইল কভার, কুশন, ল্যাপটপ স্লিভ ও আরও অনেক কিছু!