রাশি অনুযায়ী জেনে নিন, কেন আপনার জীবনে একটাও প্রেম টেঁকে না!

রাশি অনুযায়ী জেনে নিন, কেন আপনার জীবনে একটাও প্রেম টেঁকে না!

আমাদের প্রত্যেকের জীবনেই একবার হলেও ‘প্রেম এসেছিল’! আবার কারও-কারও জীবনে হয়তো একাধিকবার প্রেম এসেছে, কিন্তু দুঃখের বিষয় একবারও টেঁকেনি! আর প্রেম না টেঁকা-টা যে কতটা বিচ্ছিরি একটা ব্যাপার, তা যার সঙ্গে না ঘটেছে, সে ছাড়া অন্য কারও পক্ষে বোঝা বেশ চাপের। প্রথম-প্রথম সম্পর্কটা (love life) বেশ মাখো-মাখো হলেও কয়েকমাসের মধ্যেই দেখা যায় ঝগড়া-অশান্তি, এমনকী, মারামারিও শুরু হয়ে যায়, এবং শেষ পর্যন্ত একে অন্যকে দুষে বিচ্ছেদ এবং কান্নাকাটি – সে আরও এক বিশ্রী কান্ড! তা আপনি কি কখনও ভেবেছেন যে আপনার রাশি (zodiac) এসব করাচ্ছে না তো? একবার চট করে দেখে নিন তো, যে রাশি অনুযায়ী কেন আপনার জীবনে একটাও প্রেম টেঁকে না?

শাটারস্টক

মেষ রাশি

মেষ রাশির জাতিকারা বাইরে থেকে শান্ত মনে হলেও ভিতরে-ভিতরে কিন্তু খুব ছটফটে হন। যে-কোনও অ্যাডভেঞ্চার হোক বা দৌড়দৌড়ি বা লাফালাফি করার কাজ করতে হলে এঁরা খুব খুশি হন। এঁরা চান এঁদের প্রেমিকের স্বভাবও এদের মতোই হবে। কিন্তু সমস্যা হল এঁরা দুমদাম প্রেমে পড়ে যান এবং প্রেমে পড়ার পর প্রেমিকের স্বাভাবিক স্বভাব বদলানোর চেষ্টা করেন। কাজেই... বুঝতেই পারছেন নিশ্চয়ই!

বৃষ রাশি

বৃষ রাশির জাতিকারা খুবই আবেগপ্রবণ হন এবং আত্মীয়স্বজন, বন্ধু-বান্ধব, পাড়া-প্রতিবেশী সকলেই কমবেশি তাঁদেরকে ‘ব্যবহার’ করেন। অন্যের সমস্যা সমাধান করতে বৃষ রাশির জাতিকারা এতটাই ব্যস্ত থাকেন যে, খেয়ালই করেন না নিজের জীবনে কী-কী অমিমাংসিত সমস্যা রয়ে গেছে। দুঃখের বিষয় হল, লোকজন এঁদের নিজের মনের কথা খুলে বলে হালকা হয়ে চলে যান এবং ফিরেও তাকান না! মানুষের কষ্টে সমব্যথী হওয়া ভাল, তবে বাপু ঘর বাঁচিয়ে!

মিথুন রাশি

মিথুন রাশির মহিলাদের ‘সোশ্যাল বাটারফ্লাই’ বলা যেতে পারে। যে-কোনও আসরের মধ্যমণি তাঁরা। কিন্তু যে মুহূর্তে আপনি তাঁদের সঙ্গে একটু গভীরে মিশতে শুরু করবেন, দেখবেন প্রজাপতি ফুড়ুত করে উড়ে পালিয়েছে! মিথুন রাশির মহিলারা যাকে-তাকে চট করে বিশ্বাস করতে পারেন না। ফলে যদি কখনও প্রেমে পড়েও যান এঁরা, এঁদের প্রেমিক বুঝতেই পারেন না যে এঁরা কী চান, ফলে কিছুদিন পর প্রেমটা আর টেঁকে না।

কর্কট রাশি

কর্কট রাশির জাতিকাদের মন খুব বড় হয় এবং এঁরা ‘সব্বাইকে’ ভালবাসেন। না না, সবার সঙ্গে প্রেম করেন তা নয়, কিন্তু মন থেকেই ভালবাসেন। অন্যরা এঁদের এই স্বভাবের জন্যই মাঝেমধ্যে অবজ্ঞাও করেন। প্রেমিক ঠিক সময়ে খেলেন কিনা, ঠিকভাবে অফিসে পৌছলেন কিনা, শরীর কেমন আছে – ইত্যাদি চিন্তা সবসময়ই এঁদের মাথায় ঘোরে। আরে বাবা, সবাই তো আর এই স্বভাবের মর্ম বুঝবে না! তাঁকেই ভালবাসুন, যিনি আপনাকেও ভালবাসবেন। সবাইকে প্রেম বিলোনোর কোনও প্রয়োজন নেই।

সিংহ রাশি

সিংহ রাশির মহিলাদের অনেকেই না-চাইতেই অনেক কিছু পেয়ে যান, ফলে অন্যকে ঠিকভাবে সম্মান করতে পারেন না। সিংহ রাশির মহিলারা দেখতেও সুন্দরী হন এবং এঁদের একটা আলাদা আভিজাত্য থাকে। ফলে অনেকেই এঁদের প্রেমে পড়েন। এঁদের প্রচুর অনুগামীও থাকে। কিন্তু একটা কথা বলুন তো, অনুগামী আর সত্যিকারের ভালবাসা – দুটো বিষয় কি এক হল? জীবনে যখন সত্যিকারের প্রেম আসবে, তাকে সম্মান করতে শিখুন, দেখবেন জীবনের মানেটাই বদলে যেতে পারে!

কন্যা রাশি

বলছি কী, আপনার নাম কি ‘চিন্তামণি’? নয় তো! তা হলে এত চিন্তা করেন কেন? কন্যা রাশির মহিলাদের এই ‘অতিরিক্ত চিন্তা করা’ স্বভাবটা এদের প্রেমিকের কাছে একটা অত্যন্ত বিরক্তিকর বিষয়। প্রথম ডেটের পরদিন থেকেই এঁরা মোটামুটি বিয়ে-বাচ্চা – সব কিছুর প্ল্যান করে ফেলেন। আরে বাবা, একটু থামুন! অন্যদিকের মানুষটিকেও একটু নিঃশ্বাস নিতে দিন। তিনি কি চান, সেটাও জানুন। আর তাছাড়া একে অন্যকে জানার সময়টুকু তো দিন, তারপর তো বিয়ে!

শাটারস্টক

তুলা রাশি

তুলা রাশির জাতক-জাতিকা উভয়েই ‘সঠিক ব্যাল্যান্স’ রক্ষা করতে পারদর্শী। কিন্তু যে মুহূর্তে প্রেম সংক্রান্ত বিষয় আসে, কেন যে এত ভেবলে যান এঁরা, কে জানে! মানুষ চিনতে তুলা রাশির জাতিকারা একদমই পারদর্শী নন। সবাইকে আপনারা বড্ড বেশি বিশ্বাস করে ফেলেন প্রথম দেখাতেই। প্রেমে পড়লে পৃথিবীটা রঙিন লাগে ঠিকই, তবে একবার ওই রঙিন চশমা সরিয়ে অন্যদিকের মানুষটির আসল মতলবটা জেনে নিন দেখি!

বৃশ্চিক রাশি

কিছু মনে করবেন না, তবে বৃশ্চিক রাশির জাতিকারা কিন্তু বেশ অহংকারী হন। এঁরা যে সব কাজে এদের প্রেমিকের থেকে কত বেশি পারদর্শী, উঠতে-বসতে সেকথা প্রেমিককে বোঝানোর চেষ্টা করেন এবং যেখানে-সেখানেই এঁরা প্রেমিককে বেশ হেয় করেন। এরকম করলে আর আপনাদের জীবনে কীভাবে প্রেম টিঁকবে বলুন?

ধনু রাশি

‘স্পষ্ট কথায় কষ্ট নেই’, ধনু রাশির মহিলারা এই মতবাদেই বিশ্বাস করেন। হ্যাঁ, সঠিক কথা সঠিক জায়গায় বলা, সৎ হওয়া খুবই ভাল, কিন্তু কাউকে কিছু বলার সময়ে যদি শব্দ চয়ন সঠিক না হয়, তা হলে কিন্তু মুশকিল! তাই না? আপনার প্রেমিক কেন সব সময়ে আপনার ‘স্পষ্ট’ কথা শুনবেন বলুন তো?

মকর রাশি

মকর রাশি জাতিকারা ‘পারফেকশনিস্ট’ টাইপের হন। যে কাজটি করবেন, একদম পরিপাটি করে করবেন। খুব ভাল কথা। কিন্তু আপনার প্রেমিকও যে এমন হবেন, তা ভাবার কি কোনও কারণ আছে? মকর রাশির মহিলাদের প্রেম না টেঁকার আরও একটি কারণ হল এঁরা সব সময়ে চান যে, অন্য মানুষটি তাঁদের কথা মতো চলবেন। ভাই, সেটা কিন্তু ঠিক নয়।

কুম্ভ রাশি

কুম্ভ রাশির লোকজন যখন রেগে যান বা কোনও কারণে দুঃখ পান, তখন নিজেদের একদম বন্দি করে ফেলেন। এসময় যদি কেউ তাঁদের সামনে যান অথবা কথা বলার চেষ্টা করেন কুম্ভ রাশির জাতিকারা তাঁদের সঙ্গে নিজের অজান্তেই খারাপ ব্যবহার করে ফেলেন। এটি একটি গুরুত্বপূর্ণ কারণ তাঁদের জীবনে প্রেম না টেঁকার ক্ষেত্রে।

মীন রাশি

মীন রাশির জাতিকাদের ভাগ্যটাই খারাপ। এঁরা এদের প্রেমিককে মন-প্রাণ দিয়ে ভালবাসলেও সেই ভালবাসা বা মর্যাদা কোনওটাই তাঁরা পান না। তাই পরপর সম্পর্ক ভেঙে বেরিয়ে আসতেই হয় তাঁদের! কিচ্ছুটি করার নেই। তবে ভেঙে দেওয়ার আগে উল্টোদিকের মানুষটিকে নিজের মনোভাব একটু বুঝিয়ে বললে হয়তো অনেকসময় সমস্যা মেটে। এটা একটু ভেবে দেখবেন আর কী!

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!

আপনি যদি রংচঙে, মিষ্টি জিনিস কিনতে পছন্দ করেন, তা হলে POPxo Shop-এর কালেকশনে ঢুঁ মারুন। এখানে পাবেন মজার-মজার সব কফি মগ, মোবাইল কভার, কুশন, ল্যাপটপ স্লিভ ও আরও অনেক কিছু!