এই বলিউড সেলেব্রিটিদের কাছ থেকে শিখুন নানা ঢংয়ে শাড়ি স্টাইল করার কায়দা

এই বলিউড সেলেব্রিটিদের কাছ থেকে শিখুন নানা ঢংয়ে শাড়ি স্টাইল করার কায়দা

এটা আবার একটা প্রশ্ন হল, শাড়ি পরতে তো যে-কোনও বাঙালি মেয়েই ভালবাসে! কিন্তু সেই শাড়ি পরার ধরনে যদি বেশ একটা জমকালো ব্যাপার না থাকে, তা হলে তো সেই শাড়ি দিয়ে আপনাকে ফ্যাশনিস্তা ঠাউরানো যাবে না! তা ছাড়া সামনেই পুজো, এখন থেকেই এসব ব্যাপারে মাথা না ঘামালেও উপায় নেই! বলিউড (Bollywood) ডিভাদেরই দেখুন। সোনম থেকে শুরু করে করিনা, প্রিয়ঙ্কা থেকে দীপিকা কিংবা বিদ্যা, এঁরা কী সুন্দর শাড়ি (saree) পরেও নানারকমের স্টাইল করেন! একটু ভেবেচিন্তে শাড়ি পরলে, আমি-আপনিও কিন্তু ঠিক এভাবেই সকলকে চমকে দিতে পারব। শুধু পরার ধরনে কিংবা অ্যাকসেসরির নির্বাচনে এঁদের কাছ থেকে একটু ইন্সপিরেশন নিয়ে নিন। তা হলেই খাঁটি বাঙালি শাড়ির সাজেও (styling) আপনি চমকে দিতে পারেন সকলকে!

১. সোনম কপূর

ইনস্টাগ্রাম

শাড়ি নিয়ে আলোচনা করতে গেলে প্রথমেই এঁর নাম আসবে। কত ভাবে এবং কত কিছু দিয়ে যে শাড়ি পরা যায়, তা এঁকে দেখে শেখা যেতেই পারে! জ্যাকেটের সঙ্গে শাড়ি, বিকিনি টপের সঙ্গে শাড়ি, ক্রপড টপের সঙ্গে শাড়ি...শুধু সোনমের কাছ থেকে ইন্সপিরেশন নিলেও আপনার সারা জীবনের শাড়ি স্টাইলিং হয়ে যাবে! তবে সোনমের শারীরিক গঠনটা মাথায় রাখুন। ইনি লম্বা এবং এঁর বিল্ড চওড়া। সোনমের মুখ কিন্তু পানপাতা টাইপের, চিক বোন বেশ সুন্দর। আপনি যখন সোনমের মতো স্টাইল করতে যাবেন শাড়ি পরে, তখন কতগুলো ব্যাপার মাথায় রাখবেন। যেমন, পেটে মেদ থাকলে ক্রপড ট্রপ পরবেন না। লম্বা না হলে জ্যাকেট দিয়ে শাড়ি না পরাই ভাল। মুখ যদি গোলগাল হয়, তা হলে টেনে পনিটেল করবেন না শাড়ির সঙ্গে। কারণ, এতে আপনাকে বটম হেভি লাগবে। 

২. করিনা কপূর

ইনস্টাগ্রাম

করিনা সব ধরনের শাড়ি পরেন না। সাধারণত, বডি হাগিং মেটেরিয়ালের তৈরি শাড়িই তাঁর পছন্দ। তাই তাঁকে মনীশ মলহোত্রর জর্জেট কিংবা শিফনেই সাধারণত দেখা যায়। দেখবেন, শাড়ির সঙ্গে সাধারণতই চুল খোলা রাখেন তিনি। আর ব্লাউজ হিসেবে পরেন নুডল স্ট্র্যাপের টপ, বুস্তিয়ার কিংবা বিকিনি টপ, বা সরু স্লিভলেস ব্লাউজ। কিন্তু কেন? কারণ, করিনার ফিগার আওয়ারগ্লাস শেপের। এই ধরনের শারীরিক গঠনকে আরও ফুটিয়ে তোলে এই ধরনের মেটেরিয়ালের শাড়ি। আর ব্লাউজ হিসেবে এই ধরনের টপও শাড়ির মেটেরিয়ালকে সুন্দর কমপ্লিমেন্ট করে। আপনি যদি ছিপছিপে চেহারার অধিকারী হন, তা হলে আপনিও এই ধরনের শাড়ি-ব্লাউজের কম্বিনেশন ট্রাই করতে পারেন। যদি নুডল স্ট্র্য়াপ পরতে অসুবিধে হয়, তা হলে স্লিভলেস ব্লাউজের রকমফের ট্রাই করুন। চুলের ক্ষেত্রে হাই পনিটেল এই ধরনের শাড়ির সঙ্গে বেশ ভাল মানাবে। ভাল লাগবে পিক্সি বব টাইপের হেয়ার স্টাইলও। 

৩. কঙ্গনা রানাওয়াত

ইনস্টাগ্রাম

ইনি শাড়িপ্রেমী বলে বলিউডে বেশ পরিচিত। বিশেষ করে মণিকর্ণিকা করার পর থেকেই কঙ্গনার শাড়িপ্রেম আরও জোরদার হয়েছে। সব ধরনের শাড়ি পরেন কঙ্গনা, তা সে ফুরফুরে শিফনই হোক কিংবা ভারী সিল্ক। আর প্রতিটি শাড়ির সঙ্গেই সাজেন অন্যভাবে। ট্র্যাডিশনাল শাড়ি পরলে তাঁর পছন্দ ভারী, জমকালো কাজের ব্লাউজ, আর শিফন-জর্জেটের সঙ্গে সরু স্লিভলেস। কঙ্গনার গোলপানা মুখ বলে, চুল তিনি কখনও খুলে রাখেন না! সব সময় নিট করে বেঁধে রাখেন। আপনি কঙ্গনার কাছ থেকে শাড়ি স্টাইলের ইন্সপিরেশন নিতে চাইলে সব রকমের শাড়ি পরুন, ঠিক সেটি যেভাবে পরা উচিত, সেভাবে। আর মুখ তাঁর মতোই গোলাকার হলে, শাড়ির সঙ্গে চুল সবসময় বেঁধে রাখবেন।

৪. দীপিকা পাদুকোন

ইনস্টাগ্রাম

ইনি শাড়ি পরার একটা অদ্ভুত কায়দা রপ্ত করেছেন! হয় স্লিভলেস ব্লাউজ পরবেন, নয়তো ফুল স্লিভ! আসলে দীপিকার হাতদুটি এতটাই লম্বা যে, অন্য কোনও ব্লাউজের ধরনে তাঁকে ভাল লাগে না। দীপিকার শাড়ি পরার আরও একটা কায়দা আছে। ইনি সব সময় আঁচল ছেড়ে পরেন। আর শাড়ির সঙ্গে টাইট করে খোঁপা বাঁধেন! দীপিকার এই শাড়ি পরার স্টাইল কিন্তু চলতে পারে একটু যাঁরা গোলগাল চেহারা অধিকারী, তাঁদের জন্যও। শুধু ব্লাউজের ফিটিং যেন ঠিক হয়, সেদিকে লক্ষ রাখবেন। আর হ্যাঁ, ব্লাউজের পিঠ নিয়ে আপনারা মজাসে এক্সপেরিমেন্ট করুন। যত খুশি কেটে পরুন, ভাল লাগবে দেখতে!

৫, বিদ্যা বালন

ইনস্টাগ্রাম

এঁর কথা না বললে পাপ হবে! শাড়ি ব্যাপারটাকে যে বলিউডি স্টারেরা সবচেয়ে বেশি ভালবাসেন, তাঁদের মধ্যে এক্কেবারে প্রথমে আসবে বিদ্যা বালনের নাম। ইনি শাড়ি পরেন খাঁটি ভারতীয় মহিলার মতো, যেভাবে আমি-আপনি পরি। কিন্তু এক্সপেরিমেন্ট করেন অ্যাকসেসরিজ নিয়ে। তাঁর চেহারার কথাটা একবার ভাবুন। বেশ মোটাসোটাই। কিন্তু একটুও বেমানান লাগে কি? এর পিছনে রহস্য হল তাঁর প্লিট করার কায়দা। কুঁচি থেকে শুরু করে আঁচল, সবই সুন্দর, টানটান করে প্লিট করেন তিনি। কীভাবে, তা উপরের ছবিগুলো দেখে বুঝে নিন। শাড়ি একটুও ফুলে থাকে না বলে, ভারী সিল্কের শাড়ি পরলেও তাঁকে একটুও বাড়তি মোটা লাগে না।

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!

আপনি যদি রংচঙে, মিষ্টি জিনিস কিনতে পছন্দ করেন, তা হলে POPxo Shop-এর কালেকশনে ঢুঁ মারুন। এখানে পাবেন মজার-মজার সব কফি মগ, মোবাইল কভার, কুশন, ল্যাপটপ স্লিভ ও আরও অনেক কিছু!