চুলে তেল মাখার সঠিক উপায় ও বাড়িতেই হট অয়েল মাসাজ করবেন কীভাবে

চুলে তেল মাখার সঠিক উপায় ও বাড়িতেই হট অয়েল মাসাজ করবেন কীভাবে

চুলে কি নিয়মিত তেল মাখা উচিত? নাকি উচিত নয়? মাখলে কীভাবে মাখা উচিত? নাকি বাড়িতে নিজের অপটু হাতে তেল না লাগিয়ে পার্লারে গিয়ে তেল মালিশ (massage) করাটাই ভাল? এসব ভারী জটিল প্রশ্ন কিন্তু! ভাল করে ভেবে দেখুন, মাথায় নিয়মিত তেল দেওয়াটা কিন্তু আমরা অনেকেই আজকাল করি না! তা সে স্টাইলজনিত কারণেই হোক কিংবা সময়ের অভাবজনিত কারণে! কিন্তু চুলে তেল দেওয়ার প্রয়োজন তো আছে, বরাবরই ছিল, এখনও আছে। কিন্তু কীভাবে চুলে (hair) তেল লাগাবেন, সপ্তাহে ক'বার লাগাবেন, তেল (oil) গরম করে লাগাবেন কিনা, বা কীভাবে মানে, কোন পদ্ধতিতে লাগাবেন, তা সঠিক ভাবে আমরা অনেকই জানি না। এখানে সেই বিষয়েই আলোকপাত করার একটু চেষ্টা করা হল।

চুলে তেল লাগানোর সঠিক পদ্ধতি, কী করবেন, কী করবেন না

১. চুলে তেল লাগানোর আগে ভাল করে একটা মোটা দাঁড়ার চিরুনি দিয়ে চুলের জট ছাড়িয়ে নিন।

২. যাঁদের তেলতেল স্ক্যাল্পের সমস্যা আছে, কিংবা যাঁদের চুল খুব ঘন, তাঁরা সপ্তাহে একবার চুলে তেল লাগান। রাতে তেল লাগিয়ে শুতে যান। পরদিন সকালে শ্যাম্পু করে নেবেন।

৩. যাঁদের স্ক্যাল্প শুষ্ক বা সাধারণ, কিংবা যাঁদের চুল খুব পাতলা, তাঁরা সপ্তাহে দুই বার অন্তত তেল মালিশ করুন চুলে। 

৪. চুলে তেল লাগিয়ে বাইরে বেরবেন না। তেল খুব তাড়াতাড়ি ধুলোময়লা টেনে নেয়। এতে চুলের আরও বেশি ক্ষতি হবে।

৫. রোজ-রোজ তেল লাগালে কিংবা অতিরিক্ত তেল লাগালে মোটেও চুল ভাল থাকে না। উল্টে ক্ষতিই হয়। তাই প্রয়োজনের অতিরিক্ত তেল লাগানোর অভ্যেস থাকলে, তা বন্ধ করুন।

৬. তেল লাগানোর সময় মাথার তালুর দিকেই মন দিন। চুলের প্রতিটি গুছিতে তেল লাগিয়ে বাড়তি কোনও উপকার পাবেন না।

৭. তেল লাগানোর পর চুল আঁচড়াতে চাইলে মোটা দাঁড়ার চিরুনি ব্যবহার করুন। সারা রাত তেল লাগিয়ে শুতে যাওয়ার সময় টাইট করে চুল বাঁধবেন না। বরং হালকা করে একটু পনিটেলই যথেষ্ট।

চুলে কীভাবে হট অয়েল মালিশ করবেন

shutterstock

আপনার চুল নিয়ে সমস্যাগুলি কীরকম, তার উপর নির্ভর করবে আপনি কোন তেল দিয়ে চুল মালিশ করবেন। আমরা ঘরে তৈরি একটি তেলের কথা বলে দিচ্ছি এখানে, যা মোটামুটি সব ধরনের স্ক্যাল্পের বা চুলের পক্ষেই উপকারী।

কম্বিনেশন অয়েল, হট অয়েল মাসাজের জন্য: একটি বড় বাটিতে ৫০ মিলি করে আমন্ড ওয়েল, নারকেল তেল, অলিভ অয়েল এবং ৫০ মিলি ক্য়াস্টর অয়েল নিন। তার মধ্যে যোগ করুন দুই চা চামত মেথিদানা, কয়েকটা জবা ফুলের শুকনো পাপড়ি আর একমুঠো কারিপাতা। এই মিশ্রণটা বেশ কিছুক্ষণ ভাল করে ফুটিয়ে ছেঁকে নিন। গন্ধটা একটু উৎকট হবে বটে, তার হাত থেকে বাঁচতে চাইলে কয়েক ফোঁটা যে-কোনও সুগন্ধি এসেনশিয়াল অয়েল মিশিয়ে নিতে পারেন। তবে এসেনশিয়াল অয়েল তেলের মিশ্রণটা ঠান্ডা করে তারপর মেশাবেন।

কীভাবে মাসাজ করবেন: প্রক্রিয়াটি খুবই সোজা। এই বিশেষ তেলটি অল্প একটু গরম করে নিন। তারপর একটি মোটা দাঁড়ার কাঠের চিরুনি দিয়ে সারা মাথায় সরু-সরু করে সিঁথি কাটুন। ওই সিঁথির মধ্যে আঙুলের ডগা দিয়ে অল্প-অল্প করে তেল মালিশ করুন স্ক্যাল্পে। মনে রাখবেন, স্ক্যাল্পে তেল লাগানো জরুরি, চুলে নয়! কারণ, চুলে পুষ্টি জোগাবে এই স্ক্য়াল্পই! পুরো মাথায় এভাবে তেল লাগানো হয়ে গেলে আঙুলের ডগা দিয়েই হালকা হাতে মালিশ করুন। মালিশ শুরু হবে মাথায় সামনে, দু পাশের রগ থেকে এবং শেষ হবে ঘাড়ে এসে। মালিশ শেষ হলে মাথায় গরম জলে ভেজানো তোয়ালে মিনিটদশেক বেঁধে রেখে দিন। ঘণ্টাখানেক পরে মাইল্ড কোনও শ্যাম্পু দিয়ে চুল ধুয়ে নিন। 

আরও বিশদে জানতে চাইলে নীচের ভিডিয়োটি দেখে দিন...

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!

আপনি যদি রংচঙে, মিষ্টি জিনিস কিনতে পছন্দ করেন, তা হলে POPxo Shop-এর কালেকশনে ঢুঁ মারুন। এখানে পাবেন মজার-মজার সব কফি মগ, মোবাইল কভার, কুশন, ল্যাপটপ স্লিভ ও আরও অনেক কিছু!