কোমরের মেদ ঝরাতে ও ইঞ্চি কমিয়ে তা সরু, সুঠাম করতে সাহায্য করবে এই আসনগুলি

কোমরের মেদ ঝরাতে ও ইঞ্চি কমিয়ে তা সরু, সুঠাম করতে সাহায্য করবে এই আসনগুলি

ওজন কমানোর সঙ্গে দুটো কথা অঙ্গাঙ্গীভাবে জড়িত! এক, মেদ ঝরানো, দুই, ইঞ্চি কমানো। প্রথমটা নিয়ে অত অসুবিধে হয় না। সমস্যা হয় দ্বিতীয়টা নিয়ে। বিশেষত, শরীরের কিছু বেয়াড়া অঞ্চল, যেমন, কোমর, থাই, পিঠের লাভ হ্যান্ডল ইত্যাদি থেকে একটু মেদ কমানো বা হাফ ইঞ্চিও ঝরানো যেন ভীষণ কষ্টকর একটা ব্যাপার হয়ে দাঁড়ায়! ওজন পটাপট কমে যাচ্ছে, কিন্তু কোমর যে-কে সেই ৩২ ইঞ্চিতেই দাঁড়িয়ে আছে! এটা যে কী ফ্রাস্ট্রেশনের ব্যাপার, সেটা যাঁরা এর মধ্যে দিয়ে গিয়েছেন, তাঁরাই একমাত্র জানেন! যতই ট্রেডমিলে দৌড়ন, মাইলের পর মাইল হাঁটুন, করিনা কপূরের মতো কোমর পেতে গেলে কিন্তু সেদিকে বিশেষ নজর দিতেই হবে। বিশেষজ্ঞদের মতে, লোকালাইজড ফ্যাট কমানো সবচেয়ে কঠিন আর এখানেই আপনাকে সাহায্য করতে পারে যোগাসন। নীচে বলে দেওয়া পাঁচটি যোগাসন (Yoga poses) যদি সপ্তাহে অন্তত দিনতিনেকও করতে পারেন, তা হলে কোমর সরু (reducing belly fat) করতে আর কোনও সমস্যা না হওয়ারই কথা!

আরও পড়ুনঃ ত্বক ও চুলের যত্নে কপালভাতি

১. তদাসন

শাটারস্টক

পেটের মেদ ঝরানোর জন্য যে পাঁচটি আসন এখানে বলা হচ্ছে, তদাসনকে তার প্রথম ধাপ বলতে পারেন। এটি আসলে এক ধরনের স্ট্রেচিং এক্সারসাইজ, যেটি এই আসনগুলির রুটিনে একেবারে প্রথমে আসবে। 

কীভাবে করবেন: দুই পা জড়ো করে সোজা টানটান হয়ে দাঁড়ান। মেরুদণ্ড সিধে রাখুন। এবার পায়ের আঙুলের উপর ভর দিয়ে পুরো শরীরটা তুলুন। সঙ্গে-সঙ্গে হাতের পাতাদুটি একসঙ্গে জোড় করে উপরের দিকে স্ট্রেচ করুন ছবিতে যেমনভাবে দেখানো আছে, সেভাবে। একেবারে উপরে শরীরটা যতটা স্ট্রেচ করা সম্ভব, ততটা করুন। এমনভাবে অন্তত ২০-৩০ সেকেন্ড থাকতে হবে। প্রক্রিয়াটি চলাকালীন স্বাভাবিকভাবে শ্বাস-প্রশ্বাস নেবেন। 

সতর্কতা: যাঁদের নিম্ন রক্তচাপ, ইনসোমনিয়া বা মাথাব্যথার সমস্যায় ভোগেন, তাঁরা এই আসনটি করবেন না।

২. পশ্চিমোত্তানাসন

শাটারস্টক

এই আসনটি যে শুধু পেটের মেদ ঝরাতেই সাহায্য করে, তা নয়। এটি থাই, নিতম্ব টোনিংয়েও সাহায্য করে, আবার হ্যামস্ট্রিংয়ে কোনও চোট থাকলে, তা-ও সারিয়ে দেয়! ইংরেজিতে এটি ফরওয়ার্ড বেন্ড পোজ নামে পরিচিত এবং এই আসনটি অত্যন্ত ভাল স্ট্রেচিং এক্সারসাইজ।

কীভাবে করবেন: দুই পা সোজা এবং জড়ো করে টানটান হয়ে কোনও শক্ত মাটিতে বসুন। এবার শ্বাস নিতে-নিতে দুই হাত উপরে তুলে আস্তে-আস্তে মাথা ও মেরুদণ্ড নামিয়ে হাঁটুর উপর মাথা ঠেকানোর চেষ্টা করুন। মাথা নামানোর সময় শ্বাস ছাড়তে থাকবেন। হাতের পাতা দিয়ে পায়ের আঙুলগুলি ধরে রাখুন। এভাবে ২০-৩০ সেকেন্ড থাকুন। আবার ধীরে-ধীরে শুরুর পোজে ফিরে যান।

সতর্কতা: প্রথম দিনই কিন্তু মাথা হাঁটুতে না-ও ঠেকতে পারে। কিন্তু খেয়াল রাখবেন, হাঁটু যেন মাটিতে লেগে থাকে। আর যদি আপনি স্লিপ ডিস্কের সমস্যায় ভোগেন, কিংবা আপনার যদি হাঁপানি, ডায়েরিয়া হয়ে থাকে, বা পেটে সাম্প্রতিক অতীতে কোনও সার্জারি হয়ে থাকে, তা হলে এই আসনটি করার আগে চিকিৎসকের সঙ্গে পরামর্শ করে নেবেন।

 

৩. পবনমুক্তাসন

শাটারস্টক

যাঁরা গ্যাসের সমস্যায় ভোগেন, এই আসনটি তাঁদের জন্য খুবই উপকারী। আর এই পোজে পা দুটি পেটের উপর চেপে ধরে থাকতে হয় বলে পেটের মেদ ঝরাতে ও ইঞ্চি কমাতে এই আসনটির জুড়ি মেলা ভার!

কীভাবে করবেন: টানটান হয়ে শুয়ে পড়ুন। এবার ডান পা হাঁটু থেকে মুড়ে, আস্তে-আস্তে গুটিয়ে পেটের উপরে নিয়ে এসে দুই হাত দিয়ে চেপে ধরুন, ছবিতে যেভাবে দেখানো আছে, ঠিক সেভাবে। ২০ পর্যন্ত কাউন্ট করুন। তারপর একইভাবে বাঁ পায়েও করুন। এবার জোড়া পা একইভাবে উপরে তুলে পেটের উপর চেপে রাখুন। প্রতিবার পা তোলার সময় শ্বাস নেবেন আর নামানোর সময় ছাড়বেন। 

সতর্কতা: আপনি সন্তানসম্ভবা হলে, আপনার হার্টের কিংবা মেরুদণ্ডের সমস্যা থাকলে ভুলেও এই আসনটি করবেন না।

৪. ভুজঙ্গাসন

শাটারস্টক

পেটের স্ট্রেচিংয়ের জন্য এই আসনটি সবচেয়ে ভাল। নিয়মিত এটি অভ্যাস করলে পেটের মেদ কমবেই, আপনার মেরুদণ্ডও শক্তিশালী হবে!

কীভাবে করবেন: মাটির উপরে উপুড় হয়ে শুয়ে পড়ুন। পা যেন জোড়া থাকে এবং হাত দুটি শরীরের নীচে থাকে। এবার হাত দুটি কনুই থেকে ভেঙে মাটির উপর রাখুন। তারপর হাতের পাতায় ভর দিয়ে শ্বাস নিতে-নিতে মাথা উপরে তুলুন। মাথা যতটা সম্ভব পিছনের দিকে নিয়ে যাবেন। যত বেশি শরীর স্ট্রেচড হবে, তত উপকার পাবেন। এই অবস্থায় অন্তত ৩০ সেকেন্ড থাকতে হবে।

সতর্কতা: পিঠে কোনও চোট-আঘাত থাকলে এই আসনটি করবেন না। আর যদি বেশি টান অনুভব করেন, তা হলে একটু হালকা করে দেবেন শরীরটা।

৫. বলাসন

শাটারস্টক

এই আসনটি হচ্ছে কুলিং ডাউন পোজ। মানে, এতক্ষণ এতরকমের স্ট্রেচিং করে শরীরকে যে ব্যতিব্যস্ত করে তুলেছিলেন, এবার তাকে স্বাভাবিক অবস্থায় ফিরিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্যও একটি আসনের প্রয়োজন।

কীভাবে করবেন: হাঁটু মুড়ে মাটিতে বসুন। তারপর আস্তে-আস্তে শ্বাস নিতে-নিসতে, হাত প্রণামের মতো জড়ো করে সামনের দিকে শরীর ঝুঁকিয়ে মাটিতে মাথা ঠেকিয়ে শুয়ে পড়ুন। স্বাভাবিকভাবে শ্বাস-প্রশ্বাস চালু রাখুন। এভাবে ৩০ সেকেন্ড বিশ্রাম নিতে হবে। 

POPxo এখন ৬টা ভাষায়! ইংরেজি, হিন্দি, তামিল, তেলুগু, মারাঠি আর বাংলাতেও!

আপনি যদি রংচঙে, মিষ্টি জিনিস কিনতে পছন্দ করেন, তা হলে POPxo Shop-এর কালেকশনে ঢুঁ মারুন। এখানে পাবেন মজার-মজার সব কফি মগ, মোবাইল কভার, কুশন, ল্যাপটপ স্লিভ ও আরও অনেক কিছু!